ঢাকা, বুধবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

মাসী দেবশ্রীর হয়ে প্রচারে নামছেন রানি

রক্তিম দাশ. সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৩৩১ ঘণ্টা, মার্চ ২৫, ২০১১
মাসী দেবশ্রীর হয়ে প্রচারে নামছেন রানি

কলকাতা: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে মাসী দেবশ্রী রায়ের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় নামছেন বলিউড তারকা রানি মুখার্জি।

পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল সিপিএম’র হেভিওয়েট মন্ত্রী কান্তি গাঙ্গুলিকে হারাতে সুন্দরবনের রায়দিঘি কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে লড়বেন টলিউডের নায়িকা দেবশ্রী রায়।

দেবশ্রীর একমাত্র দিদির মেয়েই হচ্ছেন রানি।

তবে তৃণমূল সূত্রে জানা গেছে, দেবশ্রী রায়ের হয়ে শুধু রানিকেই নয়, মুম্বাইয়ের আরও তারকার পাশাপাশি নাচের দলকেও প্রচারণায় নামানো হতে পারে।

সূত্র আরও জানায়, ভারতের নির্বাচন কমিশন বিধানসভা ভোটে প্রার্থীদের প্রচারণার জন্য মোট ১৬ লাখ রুপি ব্যয় বরাদ্দ বেঁধে দিয়েছে। তারপরও আইনের ফাঁক রেখে কীভাবে ভোটের ময়দানে তারকাখচিত অভিনব প্রচারণা করা যায়Ñ সে নিয়ে আলোচনা চলছে এখন তৃণমূলের অন্দরে।

তবে সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে রানিসহ বলিউডের বেশ কয়েকজন তারকাকে রায়দিঘি কেন্দ্রে প্রচারণায় নামানোর জন্য এপ্রিলের দ্বিতীয় অথবা তৃতীয় সপ্তাহকে টার্গেট করেছে তৃণমূল।

যদিও গত লোকসভা নির্বাচনে প্রাপ্ত ভোটের নিরিখে এই কেন্দ্রে তৃণমূল জোটের চেয়ে সিপিএম ১২ হাজারেরও বেশি ভোটে এগিয়ে।

তাই এখন দেখার বিষয় বলিউডি তারকাদের প্রচারণা ভোটে কতখানি ছাপ ফেলতে পারে।

উল্লেখ্য, চিত্র তারকাদের নিয়ে ভোটের প্রচারণা করে সাধারণ মানুষের জনসমর্থনকে ভোটবাক্সে প্রতিফলন ঘটানোর কৌশল ভারতের রাজনীতিতে প্রথম শুরু করে বিজেপি। পরে একই কৌশল কাজে লাগিয়ে বিজেপিকে উল্টো ধরাশায়ী করে কংগ্রেস।


তবে রাজ্য রাজনীতিতে অতীতে বামফ্রন্টের হয়ে শুধু প্রচারণা নয়, ভোটে জিতে বিধায়ক হয়েছিলেন প্রয়াত চিত্র অভিনেতা অনুপ কুমার ও গণসঙ্গীত শিল্পী অজিত পান্ডে।

এ ধারাবাহিকতায় গত লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গ থেকে তৃণমূলের হয়ে ভোটে জেতেন টলিউডের দুই তারকা তাপস পাল ও শতাব্দী রায়।

বাংলাদেশ সময়: ০৩২৭ ঘণ্টা, মার্চ ২৫, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa