ঢাকা, বুধবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

কংগ্রেসকে আসন ছেড়ে তৃণমূলের প্রার্থী ঘোষণা

রক্তিম দাশ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৯ ঘণ্টা, মার্চ ১৮, ২০১১
কংগ্রেসকে আসন ছেড়ে তৃণমূলের প্রার্থী ঘোষণা

কলকাতা: জোটের কথা মাথায় রেখে কংগ্রেসের জন্য ৬৪টি আসন ছেড়ে আসন্ন পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের জন্য দলীয় ২২৮ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

শুক্রবার বিকাল ৪টা ১৫ মিনিটে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা দিয়ে ভারতের রেলমন্ত্রী ও তৃণমূল সভানেত্রী মমতা ব্যানার্জি কলকাতায় বলেন, ‘কংগ্রেস হাইকমান্ডের সঙ্গে গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত আলোচনা হয়েছে।

কিন্তু এখনো তারা কিছুই জানালেন না। ১৮ দিন অপেক্ষা করেছি। আর অপেক্ষা করা সম্ভব নয়। তাই আমি ৬৪টি আসন কংগ্রেস ও ২টি আসন এসএইসি-র জন্য ছেড়ে দিয়ে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করলাম। ’

তিনি বলেন, ‘সোমবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত অপেক্ষা করব। না হলে ওই দিন আমরা বাকি ৬৪ আসনে প্রার্থী ঘোষণা করব। সেই সঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের ইশতেহার প্রকাশ করা হবে। ’

কংগ্রেসকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘তাদের দল বড়, বাংলায় আমাদের দল বড়। আমাদের তালিকা অনেকদিন আগেই তৈরি ছিল। সিপিএমের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের এটাই প্রথম ও শেষ সুযোগ। জোটের দরজা বন্ধ হয়নি। আমি ভোট গণনার দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করব। ’

বামফ্রন্টের সমালোচনা করে মমতা বলেন, গত ৩৫ বছরে ৬০ হাজার মানুষ খুন হয়েছেন। এবার জঙ্গলমহলে সিপিএম একটি আসনেও জিতবে না। এবার জোট হোক বা না হোক দুই তৃতীয়াংশ আসন নিয়ে তৃণমূল ক্ষমতায় আসছে। ’

প্রকাশিত প্রার্থী তালিকায় উল্লেখযোগ্য প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন- সিবিআইয়ের সাবেক প্রধান উপের বিশ্বাস, প্রয়াত রিজওয়ানুরের বড় ভাই রুকবানুর রহমান, সঙ্গীতশিল্পী অনুপ ঘোষাল, টালিউডের নায়ক চিরঞ্জিত, টালিউডের নায়িকা দেবশ্রী রায়, কলকাতার সাবেক মেয়র সুব্রত মুখার্জি প্রমুখ।

এদিকে, সবচেয়ে আলোচিত কেন্দ্র যাদবপুরে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে তৃণমূলের প্রার্থী হয়েছেন রাজ্যের সাবেক স্বরাষ্ট্র সচিব মনীশ গুপ্ত।

তৃণমুলের এই একতরফা প্রার্থী তালিকা ঘোষণায় ুব্ধ কংগ্রেস হাইকমান্ড। দিল্লি কংগ্রেস নেতা আহমেদ প্যাটেল ২১ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলেছিলেন মমতাকে।

এই পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার কংগ্রেস হাইকমান্ড থেকে পশ্চিমবঙ্গের দায়িত্বপ্রাপ্ত শাকিল আহমেদ বলেছেন, ‘একক ভাবে প্রার্থী তালিকা দেওয়া কাক্সিত নয়। আলোচনা করে করলে ভাল হতো। ’

জানা গেছে, যে ক’টি আসনে তৃণমূল প্রার্থী দিয়েছে তার মধ্যে ৪২টি আসনে গত লোকসভায় ব্যাপক ভোটে জিতেছিল সিপিএম। অন্য দিকে কলকাতায় বন্দর ও গার্ডেনরিচ আসনসহ বেশ কয়েকটি জেলায় একটি আসনও কংগ্রেসকে দেওয়া হয়নি। তাই তৃণমূলের বিরুদ্ধে জোট ভাঙার অভিযোগ তুলে রাহুল গান্ধিকে ইমেইল করেছে রাজ্য কংগ্রেস। তারা ৯০ জনের একটি তালিকাও দিল্লিতে পাঠিয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৫৬ ঘণ্টা, মার্চ ১৮, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa