ঢাকা, সোমবার, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫ শাবান ১৪৪৫

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

বিজেপি-বিরোধী বৈঠক ভালো হয়েছে, মানুষের ভালো হবে: মমতা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৫ ঘণ্টা, জুলাই ১৮, ২০২৩
বিজেপি-বিরোধী বৈঠক ভালো হয়েছে, মানুষের ভালো হবে: মমতা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ভারতের বেঙ্গালুরুতে বিজেপি-বিরোধী রাজনৈতিক দলের বৈঠক খুব ভালো হয়েছে। আগামী দিনে মানুষের ভালো হবে।

 

মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) ছিল বেঙ্গালুরুতে বিরোধী বৈঠকের দ্বিতীয় দিন। সেই বৈঠকে হাজির ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অরবিন্দ কেজরিওয়াল, অখিলেশ যাদবসহ ২৪ বিরোধী দলের প্রধানরা। উপস্থিত ছিলেন কংগ্রেস প্রধান সোনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী ও মল্লিকার্জুন খাড়গেসহ বিশিষ্টরা।

দুপুরে জোটের বৈঠক থেকে বেরিয়ে সমাজবাদী পার্টির নেতা অখিলেশ যাদবকে পাশে নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, জোটের বৈঠক ভালো হয়েছে। গঠনমূলক হয়েছে। এই বৈঠকের ফল ভালো হবে। তা আগামী দিনে দেশের জন্যও ভালো হবে। একই সুর ছিল বিরোধী বৈঠকে অংশ নেওয়া অন্যান্য নেতা-নেত্রীদের গলায়ও।

আমআদমী পার্টির প্রধান তথা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী বৈঠক থেকে বেরিয়ে বিজেপি ও মোদির ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, নরেন্দ্র মোদি ১০ বছর সুযোগ পেয়েছেন। কিন্তু প্রতিটি ক্ষেত্রে তিনি সম্পূর্ণ ব্যর্থ। মানুষের মধ্যে বিদ্বেষ ছড়িয়েছেন। মূল্যবৃদ্ধি আকাশ ছুঁয়েছে। অর্থনীতি ধুঁকছে। বেকারত্ব বেড়েছে। সময় হয়েছে বিদায় নেওয়ার। সব মিলিয়ে এদিন বিরোধী বৈঠকে সবদলই ঐক্যমত পোষণ করেছেন। ন্যূনতম সাধারণ কর্মসূচি নিয়ে চলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেই খবর।

গত লোকসভা নির্বাচনের আগেও মমতার নেতৃত্বে জোট হয়েছিল, কিন্তু সেইবার সাফল্য পায়নি। তবে মমতা চেষ্টার কোনো কসুর করেননি। বর্তমানে ভারতের একমাত্র নারী মুখ্যমন্ত্রী হিসেব বিজেপির বিরুদ্ধে তার লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। এবার সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো মমতার মহাজোটে কংগ্রেসও পাওয়া গেছে। ফলে এই মহাজোটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবস্থান খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করে রাজনৈতিক মহল।

কংগ্রেস ও মমতা যে বহুদিনের দ্বন্দ্ব ভুলে এক হয়েছে, তার আভাস সোমবারই পাওয়া গিয়েছিল। বৈঠকের অনেক আগেই সোনিয়ার দাওয়াতে নৈশভোজে থাকবেন না বলেই জানিয়ে দিয়েছিলেন মমতা। তবে বৈঠকের দিন সোনিয়ার অনুরোধ রাখলেন বাংলার নেত্রী। এমনকি সোনিয়া গান্ধীর ঠিক ডান পাশে মমতার বসার আসন রাখা হয়েছিল।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, রাজনীতিতে অনেক কিছুই বার্তাবহ। সোমবারের বৈঠকে সোনিয়ার পাশে যেভাবে মমতার বসার জন্য আসন রাখা হয়েছিল, তাতেই স্পষ্ট যে, তৃণমূলনেত্রীকে যথাযোগ্য মর্যাদা দিচ্ছে কংগ্রেস। মঙ্গলবার মমতার কথাতেও পরিষ্কার যে, এখনো জোটের বৈঠকে যে আলোচনা হয়েছে, তাতে তিনি সন্তুষ্ট।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩১ ঘণ্টা, ১৮ জুলাই, ২০২৩
ভিএস/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।