ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ মে ২০২২, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

এক বছরে আগুনে ২১ কোটি টাকার ক্ষতি

সৈয়দ বাইজিদ ইমন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৪৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০২২
এক বছরে আগুনে ২১ কোটি টাকার ক্ষতি ফাইল ছবি।

চট্টগ্রাম: ১৯ ডিসেম্বর ভোর ৫টা। নগরের আকবরশাহ থানার ভাণ্ডারী কলোনিতে ৫ কক্ষের একটি টিনের ঘরে হঠাৎ আগুন ধরে যায়।

ধোঁয়া দেখে মেয়ে বের হতে পারলেও আটকা পড়েন মা রিজিয়া বেগম। আগুন নেভানোর পর পাওয়া যায় মধ্যবয়সী এই নারীর পোড়া কঙ্কাল।

এর আগে ২ ডিসেম্বর বিকেলে এক মেয়েকে বাসায় রেখে অন্য মেয়েকে স্কুল থেকে আনতে যান এক মা। এসময় একটি রুমে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলে ভবনের অন্য বাসিন্দাদের কান্নাকাটিতে ছুটে আসেন স্থানীয়রা। পরে তারা ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিসের দুটি দল বাসার ভেতরে প্রবেশ করে মেয়েটিকে উদ্ধার করেন। আর একটু দেরি হলেই ঘটতে পারতো অঘটন।  

চট্টগ্রামে এভাবে প্রায় প্রতিদিনই পুড়ছে ঘর। তাতে রাজিয়ার মতো প্রাণ হারাচ্ছেন অনেকেই। কেউবা হারাচ্ছেন বেঁচে থাকার সম্বল।

জানা গেছে, ২০২১ সালে চট্টগ্রামে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে ৬৭০টি। এ হিসেবে শুধুমাত্র চট্টগ্রামেই প্রায় প্রতিদিনই দুইটি করে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। গত এক বছরে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতি হয়েছে ৭ কোটি ৪০ লাখ ৮২ হাজার টাকা। তবে চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের তৎপরতায় অগ্নিকাণ্ড থেকে বাঁচানো গেছে ৪৭ কোটি ১৬ লাখ ৯০ হাজার টাকার সম্পদ। এ বছর আগুনে দগ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন ১৯ জন। নিহত হয়েছেন ৭ জন। এই এক বছরে  দুর্ঘটনা হয়েছে ২৫১টি, আহত হয়েছেন ৪১৫ জন। নিহত হয়েছেন ৭৪ জন। ১২টি দুর্ঘটনায়  ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের সক্রিয় অংশগ্রহণ ছিল। এতে আহত হয়েছেন ৩ জন। নিহত হয়েছেন ৯ জন।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স-চট্টগ্রাম এর অধীনে আরও পাঁচ জেলা রয়েছে। গত এক বছরের পরিসংখ্যানে এসব জেলায় ক্ষয়ক্ষতির তথ্য মিলেছে।

কুমিল্লা জেলায় ৬৩৫টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ক্ষতি হয়েছে ৪ কোটি ৯২ লাখ ৪৭ হাজার ৫০০ টাকা, উদ্ধার করা হয়েছে ৩১ কোটি ৬২ লাখ ৫৪ হাজার টাকার সম্পদ। আগুনে আহত হয়েছেন ২০ জন। নিহত হয়েছেন ৬ জন। দুর্ঘটনা হয়েছে ২৭৩টি, আহত হয়েছে ৪৮৬ জন, নিহত হয়েছে ৭২ জন। ১৫টি দুর্ঘটনায় ডুবুরি দল ১২ জনকে মৃত উদ্ধার করেছে।  

নোয়াখালী জেলায় ২৯৮টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ক্ষতি হয়েছে ৫ কোটি ৪৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা, উদ্ধার করা হয়েছে ৩১৩ কোটি ১০ লাখ ৮০ হাজার টাকার সম্পদ। আগুনে আহত হয়েছেন ১৩ জন। নিহত হয়েছেন ১ জন। দুর্ঘটনা হয়েছে ৫৫টি, এতে আহত হয়েছে ৯০ জন, নিহত হয়েছে ১৯ জন। ৬টি দুর্ঘটনায় ডুবুরি দল ৬ জনকে মৃত উদ্ধার করেছে।  

রাঙামাটি জেলায় ৯৭টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ক্ষতি হয়েছে ৫৫ লাখ ৫৬ হাজার টাকা, উদ্ধার করা হয়েছে ৪ কোটি ৮২ লাখ ২২ হাজার টাকার সম্পদ। এক বছরে আগুনে নিহত হয়েছেন ১ জন। দুর্ঘটনা হয়েছে ২৫টি, এতে আহত হয়েছে ৩৭ জন, নিহত হয়েছে ১২ জন। ৫টি দুর্ঘটনায় ডুবুরি দল ৫ জনকে মৃত উদ্ধার করেছে।  

বান্দরবান জেলায় ৪০টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ক্ষতি হয়েছে ৩৯ লাখ ৭ হাজার টাকা, উদ্ধার করা হয়েছে ১ কোটি ৩৬ লাখ ১০ হাজার টাকার সম্পদ। ২০২১ সালে দুর্ঘটনা হয়েছে ১৬টি, এতে আহত হয়েছে ২৮ জন, নিহত হয়েছে ১১ জন। ৩টি দুর্ঘটনায় ডুবুরি দল ৬ জনকে মৃত উদ্ধার করেছে।  

কক্সবাজার জেলায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে ১৭০টি। ক্ষতি হয়েছে ১ কোটি ৯৩ লাখ ১৪ হাজার টাকা, উদ্ধার করা হয়েছে ৮ কোটি ৮৮ লাখ ৩০ হাজার টাকার সম্পদ। ২০২১ সালে আগুনে আহত হয়েছেন ৮ জন, নিহত হয়েছেন ১০ জন। দুর্ঘটনা হয়েছে ৫২টি, এতে আহত হয়েছে ১৪৮ জন, নিহত হয়েছে ৩৪ জন। ৮টি দুর্ঘটনায় ডুবুরি দল ২ জনকে আহত ও ৯ জনকে মৃত উদ্ধার করেছে।  

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স বিভাগীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষের মবিলাইজিং অফিসার জানান, ২০২১ সালের ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স চট্টগ্রাম বিভাগে ১ হাজার ৯১০টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। গত এক বছরে আনুমানিক ক্ষতি হয়েছে ২০ কোটি ৬৭ লাখ ৫৬ হাজার ৫০০ টাকা।

এছাড়া চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের তৎপরতায় অগ্নিকাণ্ড থেকে বাঁচানো গেছে ৪০৬ কোটি ৯৬ লাখ ৮৬ হাজার টাকার সম্পদ। আগুনে আহত হয়েছেন ৬০ জন। নিহত হয়েছেন ২৫ জন। দুর্ঘটনা ঘটেছে ৬৭২টি। এতে আহত হয়েছেন ১ হাজার ২০৪ জন ও নিহত হয়েছেন ২২২ জন। ৪৯টি দুর্ঘটনায় ডুবুরি দল ৫ জনকে আহত অবস্থায় ও নিহত ৪৭ জনকে উদ্ধার করেছে।  

চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক ফারুক হোসেন সিকদার বাংলানিউজকে বলেন, ‘অগ্নিনিরাপত্তা জোরদার করতে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানোসহ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কার্যক্রমে জনসম্পৃক্ততা বাড়ানোর লক্ষ্যে প্রতি বছর ফায়ার সার্ভিস সপ্তাহ উদযাপন করা হয়। জনসম্পৃক্ততা বৃদ্ধির মাধ্যমে আমরা মানুষকে আরও বেশি সচেতন করে নিরাপদ জীবনযাপন ব্যবস্থার দিকে এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। ’

তিনি আরও বলেন, মহড়া ও গণসংযোগ আয়োজন, ক্রোড়পত্র প্রকাশ, যান্ত্রিক শোভাযাত্রা, লিফলেট ও পোস্টারসহ নানা প্রচারপত্র বিতরণ এবং বিভিন্ন পোশাকশিল্প প্রতিষ্ঠানসহ অন্যান্য শিল্পপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করে সংশ্লিষ্টদের সচেতন করা হচ্ছে। ফায়ার সার্ভিস শুধু অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা নিরসনে কাজ করে না। ফায়ার সার্ভিস ড্রেন থেকে মানুষ, বৈদ্যুতিক খুঁটি থেকে ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, বহুতল ভবন পরিদর্শন থেকে শুরু করে সব কাজই এখন করছে। মানুষের ডাক পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে যে প্রতিষ্ঠানটি সাড়া দেয়, সেটি হলো ফায়ার সার্ভিস।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০২২ 
বিই/এসি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa