ঢাকা, সোমবার, ২ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

সরকারি পরিকল্পনা বাস্তবায়নে নাগরিক সচেতনতা জরুরি: বাবর

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০২১
সরকারি পরিকল্পনা বাস্তবায়নে নাগরিক সচেতনতা জরুরি: বাবর বক্তব্য দেন যুবলীগের সাবেক উপ-অর্থ সম্পাদক হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর

চট্টগ্রাম: নান্দনিক, ইতিহাসসমৃদ্ধ, সমুদ্র ও পাহাড়ঘেরা অপরূপ ও বৈচিত্র্যময় নগর হলেও নাগরিক সচেতনতা না থাকার কারণে ক্রমে বসবাসের অযোগ্য হয়ে উঠছে চট্টগ্রাম। এ নগরকে রক্ষা করতে হলে নান্দনিক ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য রক্ষায় এবং আধুনিক, নান্দনিক ও পরিচ্ছন্ন নগর গড়তে সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নে নাগরিক সচেতনতা জরুরি।

 

অ্যাড ভিশন বাংলাদেশের উদ্যোগে মাসব্যাপী পরিচ্ছন্নতা অভিযানের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুবলীগের সাবেক উপ-অর্থ সম্পাদক ও অ্যাড ভিশন বাংলাদেশের প্রধান পৃষ্ঠপোষক হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর এসব কথা বলেন।  

পরিবেশ ও জলবায়ুবিষয়ক জাতীয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন অ্যাড ভিশন বাংলাদেশের উদ্যোগে ‘যেখানে-সেখানে ময়লা-আবর্জনা ফেলবেন না এবং পলিথিনের ব্যবহার বন্ধ করুন’ স্লোগান সামনে রেখে নগরের ৪১ ওয়ার্ডে মাসব্যাপী পরিচ্ছন্নতা অভিযান উদ্বোধন অনুষ্ঠান সোমবার (৬ ডিসেম্বর)  চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য শেখ নওশেদ সরোয়ার পিল্টুর সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন অ্যাড ভিশন বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিবেশ সংগঠক মাসুদ রানা।  

প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক যুগ্ম পরিচালক, গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা ফজল আহমদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন এলবিয়ন গ্রুপের চেয়ারম্যান ও শিল্পোদ্যোক্তা মো. রাইসুল উদ্দিন সৈকত, ৪১ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো. মাইনুল ইসলাম, নগর জাতীয় শ্রমিক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব, সহ সভাপতি স্বপন বিশ্বাস, আইনজীবী মো. কামরুল ইসলাম, ডিজিটাল আন্তর্জাতিক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি মো. হাসান মুরাদ, কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি সাথী কামাল, বন্দর শ্রমিকনেতা মো. নুর উদ্দিন, সাপ্তাহিক ইস্টার্ন ট্রেড সম্পাদক শেখ নজরুল ইসলাম মাহমুদ, চট্টগ্রাম সাহিত্য পাঠচক্রের সাধারণ সম্পাদক মো. আসিফ ইকবাল, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রাম জেলার সদস্য আঁচল চক্রবর্তী।  

বক্তারা বলেন, নগরের পরিবেশ রক্ষায় নাগরিক সচেতনতা না থাকার সুযোগ নিয়ে পরিবেশ সংরক্ষণের দায়িত্বে নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানগুলো অবহেলা ও দায়িত্বহীনতার সুযোগ নিচ্ছে। চট্টগ্রামের পরিবেশ বিনষ্টের দায় এসব কর্তৃপক্ষকে নিতে হবে। সরকার ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরিবেশবান্ধব হলেও কিছু মানুষের দায়িত্বহীনতার কারণে সরকারের সুনাম বিনষ্ট হচ্ছে। এর দায় দায়িত্বহীন কর্তৃপক্ষের। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন, পরিবেশ অধিদপ্তর ও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ দায়িত্বহীনতার পথ থেকে সরে না আসলে চট্টগ্রাম ক্রমাগত পরিবেশ অনুপযোগী ও বাসযোগ্যহীন হয়ে পড়বে।

সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সংগঠক স ম জিয়াউর রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. ইউসুফ, অর্থ সম্পাদক মৌসুমী চৌধুরী, প্রচার সম্পাদক মো. আলমগীর, জেবুন্নেসা সুপ্তা, গোলাম মোস্তফা, শারমিন আকতার, মহসিন কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মায়মুন উদ্দিন মামুন, কোতোয়ালী থানা ছাত্রলীগ নেতা জোবাইদুল আলম আশিক, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মনিরুল ইসলাম, জাহিদ হাসান সাইমুন, দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের উপ ক্রীড়া সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল সাইমুন প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০২১
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa