ঢাকা, রবিবার, ১১ আশ্বিন ১৪২৮, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭ সফর ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

মামলার নথি থেকে চেক চুরি করা সেই আইনজীবীকে শোকজ, তদন্ত কমিটি 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২১৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১
মামলার নথি থেকে চেক চুরি করা সেই আইনজীবীকে শোকজ, তদন্ত কমিটি  জোবায়ের মোহাম্মদ আওরঙ্গজেব

চট্টগ্রাম: যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ ৫ম আদালত থেকে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য জোবায়ের মোহাম্মদ আওরঙ্গজেবের বিরুদ্ধে মামলার নথি থেকে ২৭ কোটি ৯৭ লাখ ৮৮ হাজার ৭২ টাকার চেক চুরির ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সেই সঙ্গে আইনজীবীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করবে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতি।

 

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাতে বাংলানিউজকে  এ তথ্য নিশ্চিত করেন চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এএইচএম জিয়াউদ্দিন।  

চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এএইচএম জিয়াউদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, অ্যাডভোকেট জোবায়ের মোহাম্মদ আওরঙ্গজেবের অভিযোগের বিষয়ে বিকেলে চট্টগ্রাম আইনজীবী সমিতির মিটিং হয়েছে। আগামীকাল বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করা হবে। তদন্ত করার জন্য তিন সদস্য কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট ও শোকজের জবাবে সামঞ্জস্য আছে কিনা দেখবো। যদি তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হয়, তাহলে আমাদের পর্ববর্তী রুলস অ্যান্ড রেগুলেশন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।  

তিন সদস্য কমিটিতে কাদের সদস্য করা হয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে জিয়াউদ্দিন কমিটির সদস্যদের নাম প্রকাশ করতে অনিচ্ছা পোষণ করেন।  

এর আগে গতকাল সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) মামলার নথি থেকে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য জোবায়ের মোহাম্মদ আওরঙ্গজেবের বিরুদ্ধে মামলার নথি থেকে চেক চুরির অভিযোগ উঠে। এ ঘটনায় ব্যবস্থা নিতে চট্টগ্রাম মহানগর যুগ্ম  দায়রা জজ ৫ম আদালতের বিচারক মো. জহির উদ্দিন  মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের কাছে অভিযোগ দেন।  

আদালত সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ ৫ম আদালতে দায়রা-১৮৩৭/২০১৪ নথি দেখার জন্য নেন অ্যাডভোকেট জোবায়ের মোহাম্মদ আওরঙ্গজেব। ঐ মামলার আইনজীবী না হয়েও তিনি নথি দেখার অনুরোধ করলে আদালতের অফিস সহায়ক নথিতে রক্ষিত সব কাগজপত্র সঠিক আছে যাচাই করে নথি অ্যাডভোকেটের কাছে দেন। নথি দেখার পর, রেকর্ড অফিস সহায়কের কাছে হস্তান্তর করলে, অফিস সহায়ক নথি যাচাই করে নথিতে রক্ষিত ২৭ কোটি ৯৭ লাখ ৮৮ হাজার ৭২ টাকার চেক নেই। অফিস সহায়ক এবং বেঞ্চ সহকারী আইনজীবীকে অনেক খোঁজাখুজির পরও না পেয়ে আদালতের বিচারককে অবহিত করেন। চেক চুরির বিষয়ে বারের সাধারণ সম্পাদক বেঞ্চ সহকারীকে চেক উদ্ধারের বিষয়ে তৎপর হওয়ার অনুরোধ করেন। মোবাইলে যোগাযোগ করে চুরি করা চেক উদ্ধারের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেন। বারের সাধারণ সম্পাদককে জ্ঞাত করে বেঞ্চ সহকারীকে জোবায়ের মোহাম্মদ আওরঙ্গজের কাছে পাঠানো হয়। চেক দেওয়ার কথা বলে বার বার স্থান পরিবর্তন করেন আইনজীবী। নগরের হোটেল আগ্রাবাদ থেকে রাতে ১০টার দিকে আদালতের বেঞ্চ সহকারী ফরিদ চুরি হওয়া চেক জোবায়ের মোহাম্মদ আওরঙ্গজেব থেকে উদ্ধার করেন।  

বাংলাদেশ সময়: ২২১১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১
এমআই/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa