ঢাকা, বুধবার, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

ডাবপরা-তাবিজ নিয়েও কাজ না হওয়ায়...

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২১৮ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০২১
ডাবপরা-তাবিজ নিয়েও কাজ না হওয়ায়... প্রতীকী ছবি।

চট্টগ্রাম: বাঁশখালীর শীলকূপ ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ড দাসপাড়া এলাকায় ক্ষুব্ধ যুবকের হামলায় ১ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ৩ জন।

সোমবার (১২ জুলাই) ভোর সাড়ে ৬টার দিকে নূর উদ্দীন সিকদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।  

নিহত ফাতেমা বেগম (৪৬) ওই এলাকার মোস্তাক আহমেদ সিকদারের স্ত্রী। আহতরা হলেন-জান্নাতুল ফেরদৌস (২২), রাবেয়া (৪০) ও বৃষ্টি (৯)।  

এ ঘটনায় জড়িত মাইজপাড়ার যুবক এহসানকে আটক করেছেন স্থানীয়রা।  

স্থানীয় মিজানুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, ফাতেমা বেগম বাড়িতে ঝাড়ফুঁক করতেন। কোনও এক মেয়ের সঙ্গে এহসানের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এজন্য ডাবপরা-তাবিজ নিয়েও কাজ না হওয়ায় ক্ষুব্ধ ছিল সে।  সকালে এহসান এসে আবারও ডাবপরা নেন এবং ডাবটি কেটে দিতে বলেন। ফাতেমা ডাব কেটে দিতে দেরি হওয়ায় তার হাত থেকে দা কেড়ে নিয়ে এ ঘটনা ঘটায় এহসান। বাধা দিতে গেলে ফাতেমার মেয়ে ও বাড়ির গৃহপরিচারিকাকে কুপিয়েছে সে। পরে আহতদের উদ্ধার করে বাঁশখালীতে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে কর্মরত জেলা পুলিশের এএসআই আলাউদ্দীন তালুকদার বাংলানিউজকে বলেন, সকাল পৌনে ১০টার দিকে বাঁশখালী থেকে আহত চারজনকে হাসপাতালে আনা হয়। এদের মধ্যে ফাতেমা বেগমকে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক  মৃত ঘোষণা করেন। অন্য তিনজন হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।  

বাঁশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিউল কবীর বাংলানিউজকে বলেন, শীলকূপে চারজনকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনার জড়িত এহসান নামে এক যুবককে পুলিশ আটক করেছে।  

বাংলাদেশ সময়: ১২০০ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০২১
এমএম/এসি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa