ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ কার্তিক ১৪২৮, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

সড়কে নরকের যন্ত্রণা: অক্সিজেন টু কুয়াইশ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০ ঘণ্টা, জুলাই ৮, ২০২১
সড়কে নরকের যন্ত্রণা: অক্সিজেন টু কুয়াইশ অক্সিজেন-কুয়াইশ সংযোগ সড়কের বেহাল দশা

চট্টগ্রাম: ভারী বৃষ্টি হলে সড়কে জমে হাঁটুপানি। পানি নামতেই দেখা যায় বড় মাঝারি শত শত গর্ত।

এসব গর্তে পড়ে বিকল হয় গাড়ি। নষ্ট হয় যন্ত্রাংশ। সড়কেই যেন নরকের যন্ত্রণা যাত্রী ও চালকদের।  

এমন চিত্র চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) তৈরি অক্সিজেন-কুয়াইশ সংযোগ সড়কের।

প্রায় ৬ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কের দুই প্রান্তে রয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল। এ সড়কেই রয়েছে বিশ্বমানের একটি বেসরকারি হাসপাতাল, এভারকেয়ার। ফ্রোবেল একাডেমিসহ বেশ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। কাপ্তাই রাস্তার মাথা, চান্দগাঁও, বহদ্দারহাট কেন্দ্রিক যানজট, জলজট এড়িয়ে কাপ্তাই সড়কের শহরমুখী কিংবা বিমানবন্দরমুখী যাত্রীদের প্রথম পছন্দ সড়কটি। অক্সিজেন, শিকারপুর ইউনিয়ন, কুয়াইশ, মোহরা, হাটহাজারী, চান্দগাঁও এসব এলাকার লোকজনের কাছে সড়কটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ। খানাখন্দে ভরা সড়কটি এখন এলাকাবাসীর কাছে দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।  

অক্সিজেন-কুয়াইশ সংযোগ সড়কের বেহাল দশা।  ছবি: উজ্জ্বল ধর

দক্ষিণ রাউজান ও রাঙ্গুনিয়া থেকে নিয়মিত নগরে যাত্রী নিয়ে আসা-যাওয়া করেন সিএনজি অটোরিকশাচালক হাসান মিয়া। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের জন্য কুয়াইশ টু অক্সিজেন হয়ে শহরে যেতে সময় কম লাগে। সড়কটি উদ্বোধনের পর বেশ কিছুদিন আরামে গাড়ি চালিয়েছি। এখন শহরে একটু ভারী বৃষ্টি হলেই সড়কটির কোথাও কোথাও হাঁটু পানি জমে। যাত্রীদের গাড়ি থেকে নেমে ঠেলতে হয়। খানাখন্দে পড়ে গাড়ি বিকল হয়, যন্ত্রাংশ নষ্ট হয়। পারতপক্ষে এ সড়কে যেতে মন চায় না। কিন্তু হাসপাতাল হওয়ায় রোগী ও স্বজনদের অনুরোধ তো ফেলতে পারি না।  

২ নম্বর জালালাবাদ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. শাহেদ ইকবাল বাবু বাংলানিউজকে বলেন, সড়কটির পশ্চিম প্রান্তের কিছু অংশ আমার ওয়ার্ডে পড়েছে। লোকজনের অভিযোগ, খানাখন্দে ভরে গেছে সড়কটি। একটু বৃষ্টি হলে কিছু অংশ ডুবে যায়। দুর্ভোগের শেষ থাকে না পথচারী ও যাত্রীদের।  

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সড়কটি সিডিএর। এটি রক্ষণাবেক্ষণ ও সংস্কারের কাজও সিডিএ করে।  

গুরুত্বপূর্ণ সড়কটির চট্টগ্রাম-৮ (চান্দগাঁও-বোয়ালখালী) সংসদীয় আসনে পড়েছে। জনদুর্ভোগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ বাংলানিউজকে বলেন, সড়কটি দ্রুত সংস্কার করার লক্ষ্যে সিডিএর সঙ্গে কথা বলব।  

যোগাযোগ করলে সিডিএর প্রধান প্রকৌশলী কাজী হাসান বিন শামস বাংলানিউজকে বলেন, ভারী বৃষ্টিতে সড়কটি ডুবে যাওয়ায় কিছু খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। শিগগির আমরা ইটের খোয়া ফেলে কিংবা ইট বিছিয়ে দেব। সড়কটি কার্পেটিংয়ের পর চট্টগ্রাম ওয়াসা পাইপ লাইন বসানোর জন্য কাটার কারণে একপাশে মেরামত করতে হয়েছে আমাদের। এখন সড়কটি পানিতে ডুবে থাকার সময় ভারী গাড়ি চলাচল করায় খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে।  

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সিডিএ ৮টি সড়ক সম্প্রসারণের পরিকল্পনা নিয়েছে। এর মধ্যে বঙ্গবন্ধু অ্যাভেনিউ সড়কটিও রয়েছে। বর্তমানে ৬০ ফুট প্রশস্ত সড়কটিকে ১২০ ফুটে উন্নীত করে ৬ লেন করার উদ্যোগ নিচ্ছি আমরা।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৮ ঘণ্টা, জুলাই ০৮, ২০২১
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa