ঢাকা, রবিবার, ৫ বৈশাখ ১৪২৮, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ০৫ রমজান ১৪৪২

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

বে টার্মিনালের প্রতিরক্ষা দেয়ালে পানি প্রবাহ আটকাবে না: মেয়র রেজাউল

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ৭, ২০২১
বে টার্মিনালের প্রতিরক্ষা দেয়ালে পানি প্রবাহ আটকাবে না: মেয়র রেজাউল বে টার্মিনালের প্রতিরক্ষা দেয়াল পরিদর্শন করেন মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী

চট্টগ্রাম: সিটি মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেছেন, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ আশ্বস্ত করেছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (চউক) নির্মিত স্লুইসগেট দিয়ে পানি প্রবাহে বিঘ্ন সৃষ্টি বা জলজট যাতে না হয় সে লক্ষ্যে প্রকৌশল ও প্রযুক্তিগত দিক বিশ্লেষণ করে প্রয়োজনীয পদক্ষেপ জরুরি ভিত্তিতে নেওয়া হবে।  

আশা করি প্রস্তাবিত বে-টার্মিনাল প্রকল্প এলাকায় বন্দর কর্তৃপক্ষের প্রতিরক্ষা দেয়াল নির্মাণের ফলে অত্র এলাকায় পানি আটকে থাকার যে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে তা নিরসন হবে এবং চউক নির্মিত স্লুইসগেটের কার্যকারিতা সমুন্নত থাকবে।

বুধবার (৭ এপ্রিল) সমুদ্র উপকূলবর্তী কাট্টলীতে প্রস্তাবিত বে-টার্মিনালে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের প্রতিরক্ষা দেয়ায় নির্মাণ এলাকা পরিদর্শনকালে এসব কথা বলেন।  

এ সময় স্থানীয় লোকজন মেয়র প্রতিরক্ষা বাঁধের কারণে পানি প্রবাহে চউক নির্মিত স্লুইচগেটের কার্যকারিতা হারাবে এবং পানি চলাচলে বাধাগ্রস্ত হবে বলে মত প্রকাশ করেন।  

বিষয়টি চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষকে অবগত করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে তাগিদ দেন মেয়র। মেয়র প্রকল্পে দায়িত্বরত চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশে বলেন, প্রস্তাবিত বে-টার্মিনাল বাস্তবায়ন শুধু চট্টগ্রামে নয়, সমগ্র দেশবাসীর প্রাণের দাবি। এ দাবি পূরণে প্রধানমন্ত্রী সাড়া দিয়ে প্রকল্প বাস্তবায়নে সব ধরনের সহায়তা, কারিগরি, প্রকৌশলগত সমর্থন ও প্রয়োজনীয় বরাদ্দ নিশ্চিত করেছেন। আমরা চাই এ প্রকল্পের দ্রুত বাস্তবায়ন হোক এবং এর ফলে দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জনে অধিকতর পথ সুগম হবে। তবে প্রকল্প বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া এমনভাবে চলমান রাখতে হবে যাতে কোনো নতুন সমস্যা ও জনদুর্ভোগ সৃষ্টি না হয়।  

মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, উত্তর কাট্টলী লিংক রোডের বাম দিকে বিপুল পরিমাণ সরকারি খাসজমি থেকে অবৈধ ইটভাটাসহ অনুমোদিত স্থাপনা জেলা প্রশাসন উচ্ছেদ করে দখলমুক্ত করেছে। এ সব সরকারি খাসজমি সুরক্ষায় এখানে একটি স্মৃতিসৌধ ও ওশান পার্ক গড়ে তুলতে চসিকের পক্ষ থেকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে একটি প্রকল্পের প্রস্তাব পাঠানোর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।  

বে-টার্মিনাল প্রকল্প এলাকা পরিদর্শনকালে মেয়রের সঙ্গে ছিলেন উত্তর কাট্টলী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রফেসর ড. নিছার উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু ও মেয়রের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেমসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২১ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৭, ২০২১
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa