ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৭, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে ওয়েবিনার 

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২০
প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে ওয়েবিনার  ‘স্টার্টআপ অপরচুনিটিস ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক ওয়েবিনার।

চট্টগ্রাম: প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের উদ্যোগে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হয়েছে ওয়েবিনার সিরিজের ৭ম পর্ব।

‘স্টার্টআপ অপরচুনিটিস ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক এই পর্বে কি-নোট স্পিকার হিসেবে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সরকারের সিনিয়র অ্যাসিস্টেন্ট সেক্রেটারি ও আইডিয়া প্রজেক্ট আইসিটি ডিভিশনের সিনিয়র কনসালটেন্ট (রিসার্চ অ্যান্ড ইনোভেশন স্পেশালিস্ট) আর এইচ এম আলাউল কবির।

 

প্যানেল স্পিকার ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও স্টেলার বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ড. আরিফ ইফতেখার মাহমুদ, প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান টুটন চন্দ্র মল্লিক এবং মাস্টোডন ওয়াশ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও ফরিদুল হাসান শুভ।  

প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাইফুদ্দীন মুন্নার সঞ্চালনায় ওয়েবিনারে সভাপতিত্ব করেন বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. তৌফিক সাঈদ।  

কি-নোট স্পিকার আর এইচ এম আলাউল কবির বলেন, আইসিটি মন্ত্রণালয়ের অধীনে স্টার্টআপ বাংলাদেশ আজ শিক্ষার্থীদের জন্য এবং তরুণ উদ্যোক্তাদের জন্য বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা নিয়ে কাজ করছে। আইডিয়া প্রজেক্ট-এর অধীনে বাংলাদেশে প্রতিবছর অনেকগুলো স্টার্টআপকে ১০ লাখ টাকা করে সরকারি অনুদান দেওয়া হয়।  

তিনি উল্লেখ করেন, সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন জায়গায় স্টার্টআপ বিষয়ে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। এছাড়া ২১ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়েছে আইডিয়াথন প্রতিযোগিতা, যা  চলবে ২১ নভেম্বর পর্যন্ত। এখানে শিক্ষার্থীরা তাদের আইডিয়া জমা দিবে এবং সেরা পাঁচ আইডিয়াদাতা দক্ষিণ কোরিয়াতে ছয় মাসের প্রশিক্ষণসহ আন্তর্জাতিক ফান্ডিং এবং পেটেন্ড নিয়ে পড়ালেখা করবে।

সভাপতির বক্তব্যে প্রফেসর ড. তৌফিক সাঈদ বলেন, শুধুমাত্র চাকরির পেছনে ছুটলে ভবিষ্যতে শিক্ষার্থীদের জন্য কর্মক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত হওয়া একটু কঠিন হয়ে যাবে। তাই যাদের মেধা রয়েছে, কিছু করার শক্তি রয়েছে, ইচ্ছা রয়েছে-তাদের উচিত স্টার্টআপ নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া।  

প্যানেল স্পিকার ড. আরিফ  ইফতেখার মাহমুদ বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে অনেক ছোট ছোট কোম্পানি বিভিন্ন টেকনোলজিক্যাল প্রোডাক্ট বাজারে আনছে। এগুলোর মান বিশ্বমানের হলেও শুধুমাত্র সঠিক গাইডলাইনের অভাবে মার্কেটে স্থান করে নিতে পারছে না। তাই প্রোডাক্ট প্রোডাকশনের পাশাপাশি সেই প্রোডাক্টের সাসটেইনেবিলিটি নিয়ে আমাদেরকে কাজ করতে হবে।

প্যানেল স্পিকার টুটন চন্দ্র মল্লিক প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের  বিভিন্ন প্রজেক্টকে কিভাবে প্রোডাক্ট হিসেবে বাজারে আনা যায় সে-সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করেন।

প্যানেল স্পিকার ফরিদুল হাসান শুভ কিভাবে খুব অল্প বয়সে তার স্টার্টআপ শুরু করেন, স্ট্যাটাসগুলো কিভাবে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন, সেগুলোর বর্তমান অবস্থা কী, ইত্যাদি বিষয়ে বক্তব্য দেন।

ফেসবুক লাইভে অনুষ্ঠিত এই ওয়েবিনারে প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষার্থীসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২০
এসি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa