ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ সফর ১৪৪২

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

বিআইটিআইডিতে পিসিআর মেশিন দিল বিজিএমইএ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৫ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০২০
বিআইটিআইডিতে পিসিআর মেশিন দিল বিজিএমইএ বিআইটিআইডির জন্য পিসিআর মেশিন হস্তান্তর করেন বিজিএমইএ নেতারা

চট্টগ্রাম: বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম অঞ্চলের জনসাধারণের কোভিড-১৯ টেস্টের সুবিধার্থে পোশাক শিল্পমালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) আরটি-পিসিআর মেশিন দিয়েছে।  

শুক্রবার (১৪ আগস্ট) চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে আনুষ্ঠানিকভাবে মেশিনটি হস্তান্তর করা হয়।

 

চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদ।
বিশেষ অতিথি ছিলেন বিজিএমইএর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ আবদুস সালাম। অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ, চট্টগ্রামের স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির।  

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, বর্তমানে বৈশ্বিক মহামারী কোভিড-১৯ সংক্রমণ বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে স্বাস্থ্যসচেতনতা প্রতিপালনসহ আক্রান্তদের দ্রুত সেবার জন্য কোভিড টেস্ট করার লক্ষ্যে বিজিএমইএ বিআইটিআইডিকে  আরটি-পিসিআর মেশিন অনুদান হিসেবে দেওয়অ একটি সময়োপযোগী ও প্রশংসনীয় উদ্যোগ। এতে বিআইটিআইডির সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়ে দ্রুততম সময়ে কোভিড-১৯ টেস্ট করতে সক্ষম হবে।  

বিজিএমইএর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বলেন, কোভিড-১৯ এর প্রেক্ষিতে বর্তমানে পোশাক শিল্প সেক্টরে অসংখ্য রফতানি আদেশ বাতিলসহ সীমাহীন দুরবস্থা বিরাজ করছে। ইতিমধ্যে অনেক পোশাক কারখানা বন্ধ হয়ে গেছে। এ পরিস্থিতির মধ্যেও সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ হিসেবে বিজিএমইএ সল্টগোলা এলাকায় বিজিএমইএ কোভিড-১৯ (করোনা) ফিল্ড হাসপাতাল গত ২ জুলাই থেকে চালু করেছে। জনসাধারণের কল্যাণে দ্রুত কোভিড-১৯ টেস্ট করতে বিআইটিআইডিকে অনুদান হিসেবে আরটি-পিসিআর মেশিন হস্তান্তর করা হচ্ছে।  

জেলা প্রশাসক বলেন, বর্তমান কোভিড-১৯ মহামারী সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় ইতিমধ্যে চট্টগ্রামে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ফলে সংক্রমণের হার দিন দিন কমছে।  

দেশের জাতীয় অর্থনীতিতে পোশাক শিল্পের অবদান স্মরণ করে তিনি কোভিড-১৯ সংক্রমণের প্রেক্ষিতে পোশাক শিল্প যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের মধ্য দিয়ে কারখানা চালু রেখে কার্যক্রম পরিচালনা করায় বর্তমানে মন্দাবস্থা কাটতে শুরু করায় বিজিএমইএকে ধন্যবাদ জানান।  

বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ, বিআইটিআইডির ল্যাব ইনচার্জ ডা. শাকিল আহমেদ, চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বী প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বী, বিআইটিআইডির পরিচালক প্রফেসর ডা. এমএ হাসান, বিজিএমইএর সহ-সভাপতি এএম চৌধুরী সেলিম, পরিচালক অঞ্জন শেখর দাশ, মোহাম্মদ আতিক, খন্দকার বেলায়েত হোসেন ও এনামুল আজিজ চৌধুরী, সাবেক প্রথম সহ-সভাপতি শাহাবুদ্দিন আহমেদ, এসএম আবু তৈয়ব ও নাসিরউদ্দিন চৌধুরী ও সাবেক পরিচালক আবদুল মান্নান রানা, এমদাদুল হক চৌধুরী, এমডিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী, সৈয়দ নজরুল ইসলাম, সাইফ উল্লাহ মনসুর প্রমুখ।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮১০ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০২০
এআর/টিসি  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa