ঢাকা, রবিবার, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮ সফর ১৪৪২

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

হারামের মধ্যে আরাম নেই, চসিক প্রকৌশলীদের সুজন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২১ ঘণ্টা, আগস্ট ১০, ২০২০
হারামের মধ্যে আরাম নেই, চসিক প্রকৌশলীদের সুজন চসিক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন

চট্টগ্রাম: নাগরিকসেবা দিতে গিয়ে যদি কেউ অনিয়মে জড়িয়ে পড়েন তাহলে জবাবদিহি করতে হবে উল্লেখ করে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) প্রকৌশলীদের উদ্দেশে প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, মনে রাখতে হবে হারামের মধ্যে আরাম নেই। এ কথাটা উপলব্ধি করে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে অর্পিত দায়িত্ব শেষ করতে হবে।

 

তিনি বলেন, চসিকের প্রকৌশল বিভাগের কাছে নগরবাসীর অনেক প্রত্যাশা রয়েছে। এ বিভাগের কাজগুলোর সফলতা যেমন দৃশ্যমান তেমনি ভুল-ভ্রান্তিগুলোও জনগণের কাছে দৃশ্যমান। এ ভুলভ্রান্তিগুলো সংশোধন করে এগিয়ে যেতে হবে। প্রকৌশলীরা হচ্ছেন এ শহর উন্নয়নের রুপকার। নগর উন্নয়নে আপনাদের অবদান অত্যধিক। আপনাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করা ইমানি কাজ। সঠিক দায়িত্ব পালন ও শুদ্ধাচার জীবন যাপনের মধ্যে মানসিক শান্তি নিহিত। অন্যথায় নিজের মাঝে অপরাধবোধ কাজ করবে। দায়িত্ব পালনে কোনো বাধা-বিপত্তিতে আমার সহযোগিতা থাকবে।  

সোমবার (১০ আগস্ট) বিকেলে টাইগারপাসের চসিক নগর ভবনের সম্মেলন কক্ষে প্রকৌশল বিভাগের সঙ্গে বৈঠককালে এসব কথা বলেন সুজন।  

তিনি বলেন, নগরে চলমান উন্নয়নকাজে গতি বাড়াতে প্রকৌশলীদের মাঠে থেকে কাজ আদায় করতে হবে। ঠিকাদাররা সঠিকভাবে কাজ করছেন কিনা? গুণগতমান ঠিক আছে কিনা? তা শতভাগ বুঝে নিতে হবে।  

সড়ক উন্নয়নকাজে ঠিকাদারের গাফিলতি দেখলে সঙ্গে সঙ্গে লাইসেন্স বাতিল ও কালো তালিকাভুক্ত করার নির্দেশনা দিয়ে প্রশাসক সুজন বলেন, খেয়াল রাখতে হবে ওয়ার্কঅর্ডারে বর্ণিত সময়ের মধ্যেই ঠিকাদার কাজ সম্পন্ন করছে কিনা।  

তিনি নগরের গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোর কাজ অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সংস্কারের ওপর জোর দেন। যে সব সড়কে অবৈধ স্থাপনা, ট্রাক, বাসস্ট্যান্ড অবৈধ গাড়ি পার্কিং দ্বারা দখল হয়েছে তা দ্রুত উচ্ছেদ, আর্থিক জরিমানাসহ জব্দ করতে হবে। নগরবাসীর সেবার সুফল গভীরতর করতে আলাদা সেল গঠন করে নতুন নতুন প্রকল্প  নিতে হবে।  

নগরে অধিকতর সেবা নিশ্চিত করতে সেবাদানকারী সংস্থা বন্দর, সিডিএ, ওয়াসা, পিডিবি সঙ্গে সমন্বয়ন সাধন করে কাজ করার পরামর্শ দেন সুজন।  
বৈঠকে চসিক প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল সোহেল আহমদ, মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ আবুল হাশেম, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোহাম্মদ আবু সালেহ, কামরুল ইসলাম, আনোয়ার হোছাইন, মুনিরুল হুদা, সুদীপ বসাক, ঝুলন কুমার দাশ, নির্বাহী প্রকৌশলী ফরহাদুল আলম, আবু সাদাত মোহাম্মদ তৈয়ব, অসীম বড়ুয়া, জসিম উদ্দিন, বিপ্লব বড়ুয়া, সহকারী প্রকৌশলী আশিকুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৫ ঘণ্টা, আগস্ট ১০, ২০২০
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa