ঢাকা, রবিবার, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৯ আগস্ট ২০২০, ১৮ জিলহজ ১৪৪১

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

বন্দরের সদস্য প্রকৌশল পদে নিয়ামুল হাসান

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৭ ঘণ্টা, জুলাই ৯, ২০২০
বন্দরের সদস্য প্রকৌশল পদে নিয়ামুল হাসান কমডোর মোহাম্মদ নিয়ামুল হাসান

চট্টগ্রাম: বাংলাদেশ নৌবাহিনীর কমডোর মোহাম্মদ নিয়ামুল হাসান চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (প্রকৌশল) পদে যোগ দিয়েছেন।

তিনি বিদায়ী সদস্য (প্রকৌশল) ক্যাপ্টেন এম মহিদুল হাসানের কাছ থেকে বুধবার (৮ জুলাই) দায়িত্বভার বুঝে নেন।

বন্দর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, কমডোর মোহাম্মদ নিয়ামুল হাসান ১৯৮৮ সালের জানুয়ারিতে বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে অফিসার ক্যাডেট হিসেবে যোগ দেন।

১৯৯০ সালের ১ জুলাই ইলেকট্রিক্যাল শাখার কমিশন লাভ করেন। কম্পিটেন্সি সার্টিফিকেট অর্জনের পর তিনি নৌবাহিনীর বিভিন্ন ছোট, মাঝারি জাহাজ ও ফ্রিগেটে ইলেকট্রিক্যাল অফিসারের দায়িত্ব পালন করেন।

কমডোর নিয়ামুল বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক এবং পরবর্তীতে একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। পরবর্তীতে তিনি রয়াল নেভি, ব্রিটেনে সিস্টেম ইঞ্জিনিয়ারিং ম্যানেজমেন্টে উচ্চতর কোর্স সম্পন্ন করেন। এ ছাড়াও তিনি দেশে ও বিদেশে বিভিন্ন কোর্সে অংশ নিয়েছেন। তিনি যুক্তরাজ্যের এঅ্যান্ডপি টাইন শিপইয়ার্ডে ক্যাসেল ক্লাস অফসোর পেট্রোল ভেসেলের রিজেনারেশন প্রজেক্টের সদস্য হিসেবে কাজ করেছেন।
তিনি চাকরি জীবনে বিভিন্ন স্টাফ, প্রশিক্ষণ ও অধিনায়কত্বের দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন। বিএন ডকইয়ার্ডে তিনি ডিজিএম (ইলেকট্রিক্যাল) এবং নৌ-সদর দফতরের নৌ-অস্ত্র ও বিদ্যুৎ প্রকৌশল পরিদফতরে উপ-পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে নৌ সদর দফতরে টেকনিক্যাল স্টোরস-পরিদফতরের পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন।

এ ছাড়া তিনি সশস্ত্র বাহিনীর বিভাগের গোয়েন্দা অধিদফতরে কর্নেল স্টাফের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি নৌবাহিনীর কারিগরি প্রশিক্ষণ ঘাঁটি, বানৌজা শহীদ মোয়াজ্জমে প্রশিক্ষক ও পরবর্তীতে ইলেকট্রিক্যাল স্কুলের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির ইইসিই বিভাগে প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছেন। পরবর্তীতে তিনি সিলেট ক্যাডেট কলেজের অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বাংলাদেশ নৌবাহিনী নেভাল এভিয়েশনের মেইন্টেন্যান্স উইংয়ের প্রথম অধিনায়ক হিসেবে দীর্ঘ সময় দায়িত্ব পালন করেছেন। আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে তিনি জাতিসংঘ মিশনে মিলিটারি অরজারভার হিসেবে লাইবেরিয়াতে নিয়োজিত ছিলেন। চট্টগ্রাম বন্দরে যোগদানের আগে তিনি বিএন কলেজ ঢাকার অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করেছেন।

ব্যক্তিগত জীবনে শারমিন সুলতানা তার স্ত্রী এবং তারা এক মেয়ে ও ২ ছেলের বাবা-মা। অবসরে তিনি বই পড়া, সাতাঁর কাটা এবং গলফ খেলতে পছন্দ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৫ ঘণ্টা, জুলাই ০৯, ২০২০
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa