ঢাকা, রবিবার, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৯ আগস্ট ২০২০, ১৮ জিলহজ ১৪৪১

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

পশুরহাট স্বাস্থ্যবিধি বড় চ্যালেঞ্জ: নাছির

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২১ ঘণ্টা, জুলাই ৮, ২০২০
পশুরহাট স্বাস্থ্যবিধি বড় চ্যালেঞ্জ: নাছির

চট্টগ্রাম: ভিন্ন পরিবেশ পরিস্থিতিতে এবার কোরবানির পশুর হাট বসছে উল্লেখ করে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি অবশ্যই মানতে হবে। ক্রেতা-বিক্রেতার স্বাস্থ্যবিধি মেনে কোরবানির হাট পরিচালনা করতে হবে।

এটি আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।
 
বুধবার (৮ জুলাই) বাংলানিউজের সঙ্গে আলাপচারিতায় মেয়র এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের দুইটি স্থায়ী পশুর হাট আছে। কোরবান উপলক্ষে প্রতিবছর কিছু অস্থায়ী হাট বসাই। গত বছর ৬টি অস্থায়ী হাট বসানো হয়েছিলো। এবার আমরা ৭টি হাট বসানোর প্রস্তাব জেলা প্রশাসনের কাছে দিয়েছি। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ ৩টি অস্থায়ী হাটের বিষয়ে আপত্তি দিয়েছে। সেগুলো বাদ দিয়ে চারটি অস্থায়ী হাটের ইজারা দরপত্র আহ্বান করেছি। বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে।  

আমরা অতীতের অভিজ্ঞতায় দেখেছি পশুরহাটগুলো বিকেলের দিকে, সন্ধ্যার দিকে বসে। ক্রেতারা বিকেলের দিকে হাটে যান। চট্টগ্রামে একটি সংস্কৃতি চালু আছে, কোরবানি দাতার পরিবারের অনেক সদস্য পেছনে হাটে। যার কারণে হাটের ওপর চাপ পড়ে। এবার যেহেতু করোনাকাল, জনগণকে আহ্বান জানাবো, দুইজনের বেশি যেন হাটে না যান। বয়স্ক ও শিশুরা যেন হাটে যাওয়া থেকে বিরত থাকেন। হাটে যারা পশু কিনতে যাবেন তারা যেন শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাতে হাটে যান।  

মেয়র বলেন, আমরা অনলাইনকে উৎসাহিত করবো। জেলা প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের কর্মকর্তাকে বলেছি, নিবন্ধিত খামারিরা যেন অনলাইনে বিক্রি করেন। অন্যান্য বছর তারা হাটে নিয়ে গরু বিক্রি করেছেন।  

পশু কোরবানিদাতা নগরবাসীকে আহ্বান জানাবো, সকালে যাতে পশু কেনেন। দুইটি ভাগ করে, এলাকা নির্ধারণ করে দিতে চাই। যাতে হাটের ওপর চাপ কম পড়ে। পশুর হাটে একাধিক প্রবেশপথ নির্ধারণ করে দেবো। বহির্গমন (বের হওয়ার পথ) আলাদা করে দেবো। মাস্ক, গ্লভস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারে উৎসাহিত করবো। চসিকের পক্ষ থেকে বিনামূল্যেও বিতরণ করবো।  

হাটে জীবাণুনাশক ওষুধ ছিটানো থেকে শুরু করে অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য যে সব পদক্ষেপ দরকার সেই পরিকল্পনা গ্রহণ করে আন্তরিকতার সঙ্গে বাস্তবায়ন করবো। পর্যাপ্ত স্বেচ্ছাসেবক দেবো। যারা স্বাস্থ্যবিধি মানবেন না তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করবো।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৫ ঘণ্টা, জুলাই ০৮, ২০২০
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa