bangla news

চিকিৎসককে হাসপাতালে পৌঁছে দিচ্ছে সিএমপি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৪-০২ ৮:০৩:২৫ পিএম
বাসা থেকে চিকিৎসককে হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছে পুলিশ।

বাসা থেকে চিকিৎসককে হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছে পুলিশ।

চট্টগ্রাম: বাসা থেকে চিকিৎসককে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছে পুলিশ। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) হটলাইন নাম্বারে ফোন করলে খুলশী থানা পুলিশ ওই নারী চিকিৎসক শারমিনকে খুলশী গ্রিনহাউজ আবাসিক এলাকা থেকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছে দেয়।

বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ডাক্তার শারমিনকে পুলিশের গাড়ি করে হাসপাতালে পৌঁছে দেন খুলশী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রবাল বিশ্বাস।

খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রনব চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, শারমিন নামে একজন চিকিৎসক কর্মস্থলে যেতে পুলিশের সহায়তা নিয়েছেন। আমরা তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছি।

দুপুর ২টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ডাক্তার নুরানী সুলতানাকে হালিশহর এলাকায় তার বাসায় পৌঁছে দেয় পাঁচলাইশ থানা পুলিশের সদস্যরা।

পাঁচলাইশ থানার ওসি আবুল কাশেম ভুঁইয়া বাংলানিউজকে বলেন, নুরানী সুলতানা নামে একজন ডাক্তারকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে হালিশহর এলাকায় বাসায় পৌঁছে দিয়েছি আমরা।

নগরের আগ্রাবাদ মোড় থেকে আয়েশা নামে এক নার্সকে মেট্রোপলিটন হাসপাতালে পোঁছে দেন ডবলমুরিং থানার এসআই মহিম উদ্দীন।

ডবলমুরিং থানার ওসি সদীপ কুমার দাশ বাংলানিউজকে বলেন, আয়েশা নামে এক নার্স কর্মস্থলে যেতে পুলিশের সহায়তা চেয়েছেন। আমরা তাকে পোঁছে দিয়েছি।

এদিকে বুধবার হালিশহর আই ব্লক থেকে দুইজন চিকিৎসককে পাহাড়তলী চক্ষু হাসপাতাল ও লায়ন্স হাসপাতালে পৌঁছে দেয় হালিশহর থানা পুলিশ।

হালিশহর থানার ওসি মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, বুধবার দুইজন ডাক্তারকে আমরা তাদের কর্মস্থলে পৌঁছে দিয়েছি।

পাহাড়তলী থানাধীন ফইল্যাতলী বাজার এলাকা থেকে দুইজন চিকিৎসককে তাদের কর্মস্থল এক খান এলাকায় আল আমিন হাসপাতালে পৌঁছে দেয় পাহাড়তলী থানা পুলিশ।

পাহাড়তলী থানার ওসি মাঈনুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, দুইজন চিকিৎসক পুলিশের হটলাইনে ফোন করে কর্মস্থলে যেতে পুলিশের সহায়তা চেয়েছিলেন। আমরা তাদের পৌঁছে দিয়েছি।

চান্দগাঁও থানা পুলিশ চারজন স্বাস্থ্যকর্মীকে কাপ্তাই রাস্তার মাথা থেকে সদরঘাট মেমন মাতৃসদন হাসপাতালে পৌঁছে দেন বলে বাংলানিউজকে জানান চান্দগাঁও থানার ওসি আতাউর রহমান খোন্দকার।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটিতে বন্ধ রয়েছে গণপরিবহন। এতে সরকার ঘোষিত এ ছুটির বাইরে থাকা চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা পড়েন বিপাকে। চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের কর্মস্থলে আনা নেওয়ার ঘোষণা দেন সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে চলমান বন্ধের মধ্যে ‘ডাক্তার বাঁচলে আমরা বাঁচবো’ স্লোগান নিয়ে এ কর্মসূচি ঘোষণা করে সিএমপি।

এ সেবা নিতে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সিএমপির হটলাইন নাম্বারে (০১৪০০৪০০৪০০ অথবা ০১৮৮০৮০৮০৮০) ফোন করে ঠিকানা জানাতে হবে। সেই ঠিকানায় গাড়ি নিয়ে পৌঁছে যাবে পুলিশ।

সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। সরকার চিকিৎসকদের আনা নেওয়ার কাজে ব্যবহৃত গাড়ি চলাচলের অনুমতি দিলেও অনেকের ব্যক্তিগত গাড়ি নেই। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে আমরা তাদের জন্য গাড়ির ব্যবস্থা করেছি।

তিনি বলেন, আমরা পুলিশ সদস্যরা যেমন কাজ করছি তেমনি চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরাও কাজ করছেন এমন সংকটময় মুহূর্তে। আমরা চাই তারাও যাতে নির্বিগ্নে মানুষকে সেবা দিতে পারেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪১ ঘণ্টা, এপ্রিল , ২০২০
এসকে/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সিএমপি
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-04-02 20:03:25