bangla news

এমপি লতিফের অর্থায়নে ৫টি কোয়ারেন্টিন সেন্টার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৪-০২ ১০:৩৭:১৪ এএম
এম এ লতিফ এমপি’র অর্থায়নে কোয়ারেন্টিন সেন্টার।

এম এ লতিফ এমপি’র অর্থায়নে কোয়ারেন্টিন সেন্টার।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম-১১ আসনের এমপি এমএ লতিফের ব্যক্তিগত উদ্যোগ ও অর্থায়নে জনসাধারণকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষায় ৫টি অস্থায়ী কোয়ারেন্টিন সেন্টারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

নির্বাচনী এলাকার ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের সিডিএ আবাসিক এলাকায় আগ্রাবাদ মহিলা কলেজ, ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে রেলওয়ে কলোনি উচ্চ বিদ্যালয়, ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডে হালিশহর মেহের আফজল উচ্চ বিদ্যালয়, ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডে ব্যারিস্টার সুলতান আহমদ কলেজ ও ৪০ নম্বর ওয়ার্ডে পতেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অনুমতি সাপেক্ষে অস্থায়ী কোয়ারেন্টিন সেন্টারে দেড় শতাধিক শয্যার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এম এ লতিফ এমপি’র অর্থায়নে কোয়ারেন্টিন সেন্টার।জানা গেছে, এসব শয্যায় থাকার জন্য আলাদা আলাদা বেড, মশারি, জুতা, গামছা-স্যান্ডেল এবং খাওয়ার জন্য প্লেট, বাটি ও গ্লাস সরবরাহ করা হয়েছে। রোগীর উপযোগী খাবার সরবরাহ দেওয়া হবে এমপি লতিফের ‘এমপি কিচেনস’ থেকে। এছাড়া জ্বর, সর্দি-কাশির রোগীর জন্য সাধারণ সব ওষুধ দেওয়া হবে।

দেশের প্রধান চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর, দেশের বড় দুটি ইপিজেড, চট্টগ্রাম আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দর এবং বঙ্গবন্ধু টানেল নির্মাণ কাজের জন্য দেশি-বিদেশিসহ অনেক লোকজনের অবস্থান বন্দর-পতেঙ্গা এলাকায়। যদিও এখনও পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি এই এলাকায়, এরপরও চরম ঝুঁকিতে থাকা এলাকাবাসীর জন্য ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন স্থাপনের উদ্যোগ এই প্রথম।

এম এ লতিফ এমপি’র অর্থায়নে কোয়ারেন্টিন সেন্টার।এ প্রসঙ্গে এম এ লতিফ এমপি বাংলানিউজকে বলেন, এসব কোয়ারেন্টিন সেন্টারে আসার পর থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যাওয়া পর্যন্ত সব কিছুই দেওয়া হবে বিনামূল্যে আমার তহবিল থেকে। ৫টি কোয়ারেন্টিন সেন্টার পরিচালনার জন্য স্থানীয় অধিবাসী এবং চিকিৎসকদের সমন্বয়ে পৃথক পরিচালনা টিম গঠন করা হয়েছে। এলাকাবাসী এসব কোয়ারেন্টিন সেন্টারে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কিনা তা বিনামূল্যে পরীক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত হয়ে সঠিক চিকিৎসার পদক্ষেপ নিতে পারবেন।

বাংলাদেশ সময়: ১০২৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ০২, ২০২০
এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-04-02 10:37:14