ঢাকা, সোমবার, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৩ আগস্ট ২০২০, ১২ জিলহজ ১৪৪১

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

তেঁতুল বিচির চালানে এলো সুপারি!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-২৮ ০২:৫৪:০৮ এএম
তেঁতুল বিচির চালানে এলো সুপারি! তেঁতুল বিচির চালানে বন্দরে এসেছে সুপারি।

চট্টগ্রাম: তেঁতুল বিচি আমদানির ঘোষণা দিয়ে নিয়ে আনা সুপারির একটি চালান আটক করেছেন কাস্টম হাউসের কর্মকর্তারা।

কাস্টম হাউস সূত্রে জানা গেছে, খাতুনগঞ্জের ২৩৬ নুরুল আবছার চৌধুরী মার্কেটের ঠিকানার আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান ডিএম ট্রেডিংয়ের নামে তেঁতুল বিচি ঘোষণা দেওয়া একটি চালান চট্টগ্রাম বন্দরে আসে। যার বিএল নম্বর- 587300073 এবং কনটেইনার নম্বর- SUDU6740092.

ঘোষিত পণ্য তেঁতুল বিচি আমদানির শুল্কহার ১৫ শতাংশ।

প্রাপ্ত পণ্য সুপারির করহার ১০৪ শতাংশ। এ চালানে শুল্ক ফাঁকি দেওয়ার চেষ্টা ছিলো ১১ লাখ টাকা।

কাস্টম হাউসের অডিট ইনভেস্টিগেশন অ্যান্ড রিসার্চ (এআইআর) শাখার সহকারী কমিশনার নুর এ হাসনা সানজিদা অনুসুয়া বাংলানিউজকে বলেন, কাস্টম হাউস কর্তৃপক্ষ বেশ কয়েক মাস আগে চট্টগ্রাম বন্দরে আসা কিছু চালানের বিল অব এন্ট্রি দাখিল না হওয়ায় তালিকা অনুযায়ী কায়িক পরীক্ষা করছে। এরই অংশ হিসেবে তেঁতুল বিচির চালানটির কায়িক পরীক্ষা সম্পন্ন করি। যাতে ঘোষিত পণ্য তেঁতুল বিচি পাওয়া গেছে ১ টনেরও কম, ৯২০ কেজি। অন্যদিকে সুপারি পাওয়া গেছে ২৫ টন।

এ ব্যাপারে কাস্টম আইনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, পণ্য আমদানির পর বন্দর থেকে খালাসের জন্য আমদানিকারকের পক্ষে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট কাস্টম হাউসে বিল অব এন্ট্রি দাখিল করে, শুল্ক পরিশোধ করে। কিন্তু এ চালানের পক্ষে বিল অব এন্ট্রি দাখিল হয়নি, শুল্কও জমা পড়েনি। তাই ধারণা করা হচ্ছে-আমদানিকারক কাস্টম কর্মকর্তাদের নজর এড়িয়ে বা কোনো অপকৌশলে চালানটি খালাসের সুযোগ খুঁজছিলো।        

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa