bangla news

সিআইইউতে ক্যাম্পাস জব, আগ্রহ শিক্ষার্থীদের!

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-১৯ ৪:৪৮:০০ পিএম
উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরীর সঙ্গে স্টুডেন্ট সাপোর্টার শিক্ষার্থীরা।

উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরীর সঙ্গে স্টুডেন্ট সাপোর্টার শিক্ষার্থীরা।

চট্টগ্রাম: ‘ক্লাসের ফাঁকে ফাঁকে এখানে কাজ করছি। খুব ভাল লাগছে। প্রশাসনিক কাজের দক্ষতা বাড়ছে। আমরা নিজেরাই শিক্ষার্থী, নিজেরাই আবার নিজেদের বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা করছি।’

কথাগুলো বলছিলেন বিবিএ’র ছাত্রী উম্মে হানি চৌধুরী। পড়ছেন চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটিতে (সিআইইউ)।

কেবল উম্মে হানি নয়, তার মতো সিআইইউর এমন আরও বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষার্থীরাও পড়ালেখার ফাঁকে ফাঁকে এখানে ক্যাম্পাস জবের সঙ্গে জড়িত।

‘স্টুডেন্ট সাপোর্ট’ হিসেবে তারা কাজ করছেন ভালো ফলাফলের ভিত্তিতে। কাজ করতে গিয়ে তাদের অভিজ্ঞতা কেমন কিংবা সিআইইউর বড় কর্মকর্তাদের পাশে থেকে কাজ শেখার অনুভূতি কি- এমন সব চমৎকার বিষয়গুলো উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরীর কাছে ব্যক্ত করতে পেরে তারা ভীষণ আনন্দিত।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নগরের জামালখানের সিআইইউ ক্যাম্পাসের কনফারেন্স রুমে এ উপলক্ষে স্টুডেন্ট সাপোর্টদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় মতবিনিময়। এ সময় ক্যাম্পাস জবের সঙ্গে জড়িত ১০ জন ছাত্র-ছাত্রী তাদের কাজের গল্পগুলো অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন।

তারা জানান, হাতে-কলমে কাজ শেখার কারণে তাদের ভেতর আগের চেয়ে দায়িত্বশীলতা বহুগুণ বেড়েছে। সময়মতো কাজ শেষ করা, ফাইল প্রস্তুত করা, সিনিয়রদের কাজগুলো খুব কাছ থেকে দেখা, চ্যালেঞ্জ নেওয়া-এমন সব বিষয়গুলো তাদেরকে জীবনে প্রতিষ্ঠিত হতে সবসময় অনুপ্রেরণা জোগাচ্ছে।

শাহেদ বিন রফিক নামের ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের একজন ছাত্র বলেন, সিআইইউতে ভর্তি হওয়ার পর জেনেছি এখানে পড়ালেখার পাশাপাশি ক্যাম্পাস জবের সুযোগ রয়েছে। এই ধরনের কাজ একজন শিক্ষার্থীকে আরও দক্ষ ও চৌকষ করে গড়ে তুলতে সহায়তা করে।

একই রকম অনুভূতির কথা জানান মুনা, মুনতাসির, শাহাদাত, সৌমিত, মুনতাসির, সপ্তবর্ণা, আতিয়া, ফারাহ, জান্নাতসহ অনেকে।

সিআইইউর উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী  বলেন, কোনো কাজই ছোট নয়। সময়ের কাজ সময়ে সম্পন্ন করতে হবে। কাজের ভেতর লুকিয়ে আছে সৃষ্টিশীলতা। সুস্থ কর্মচর্চার মধ্য দিয়ে মানুষ বড় হয়ে ওঠে।

সিআইইউর ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আনজুমান বানু লিমার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য দেন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক সরকার কামরুল মামুন, ফিন্যান্স অ্যান্ড অ্যাকাউন্টস শাখার ভারপ্রাপ্ত পরিচালক সালমা বেগম (এফসিএ), সিআইটিএস শাখার উপ-পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, অ্যাডমিন শাখার উপ-পরিচালক কুমার দোয়েল দে, সহকারি পরিচালক মো. আশরাফুল হক, সিনিয়র অফিসার জাফরীন চৌধুরী, বিশ্বনাথ দে প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০
এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-19 16:48:00