bangla news

ইডিইউতে ২৫০ শিক্ষার্থী পেলো পরিপূর্ণতার স্বীকৃতি

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-১৬ ১২:৪১:০৬ পিএম
 অ্যাক্সেস একাডেমি গ্র্যাজুয়েশন সিরিমনিতে শিক্ষার্থীর হাতে সার্টিফিকেট তুলে দেন অতিথিরা।

অ্যাক্সেস একাডেমি গ্র্যাজুয়েশন সিরিমনিতে শিক্ষার্থীর হাতে সার্টিফিকেট তুলে দেন অতিথিরা।

চট্টগ্রাম: ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটিতে নতুন ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের দুর্বলতা কাটিয়ে তোলার মাধ্যমে উচ্চশিক্ষার জন্য পরিপূর্ণ করে তুলছে অ্যাক্সেস একাডেমি। শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) মহাসমারোহে আয়োজিত হলো এই একাডেমির প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের নিয়ে ‘গ্র্যাজুয়েশন সিরিমনি ২০২০’। বিকেল ৩টা থেকে জাঁকজমকপূর্ণ এ আয়োজন শুরু হয়, চলে ৯টা পর্যন্ত।

ইংরেজি ও গণিত বিষয়ে শিক্ষার্থীদের ব্যক্তিপর্যায়ের ঘাটতি দূর করা এবং নৈতিক-যৌক্তিক চিন্তায় পারদর্শী করে তোলা হচ্ছে এই একাডেমিতে। এর ফলে শিক্ষার্থীরা উচ্চশিক্ষায় পাঠ গ্রহণ ও অর্জিত জ্ঞান সমাজে প্রয়োগে আরো সচেতন হয়ে উঠতে পারছে। প্রচলিত পরীক্ষা ব্যবস্থার পরিবর্তে শিক্ষার্থীদের উন্নতি ও মেধা যাচাইয়ে নেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের কোর্সওয়ার্ক। এছাড়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে দলগত কাজ করার প্রবণতা ও নেতৃত্ব তৈরি করাও এর লক্ষ্য।

এ অনুষ্ঠানে গেস্ট অব অনার ছিলেন এসিসিএ বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার আহসানুল হক বাশার। তিনি গ্র্যাজুয়েটদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, কর্মজীবনে যে কোনো ব্যক্তিকে সমাজের নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে মিশতে হলেও অনেকেই তা পারে না। কিন্তু শিক্ষার্থীদের এ ধরনের নানা সমস্যা কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করছে ইডিইউর অ্যাক্সেস অ্যাকাডেমি। যা শিক্ষার্থীদের পূর্ণ বিকাশে সহযোগিতা করছে।

গ্র্যাজুয়েশন স্পিকার ছিলেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যানের অ্যাক্সেস অ্যাকাডেমির ডিরেক্টর জন রেমারেক। তিনি বলেন, অ্যাক্সেস একাডেমি বিশ্ববিদ্যালয়ের মান উন্নত হওয়ার ভিত গড়ে দেয়।

প্রধান অতিথি উপাচার্য অধ্যাপক মু. সিকান্দার খান বলেন, উন্নত বিশ্ব বিভিন্ন সামাজিক বিষয়ে বর্তমানে অনেক উন্নত ও প্রগতিশীল আচরণে অভ্যস্ত হয়ে উঠেছে। আমাদের দেশ এক্ষেত্রে এখনো কিছুটা পিছিয়ে আছে। অ্যাক্সেস একাডেমিতে শিক্ষার্থীদের উন্নত করে তোলা হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান বলেন, শিক্ষার্থীদের নিজেকে মেলে ধরার অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করা ও তাদের সমকালীন বিশ্বের উপযোগী মানে গড়ে তোলা আমাদের দায়িত্ব। সে লক্ষ্যে ইডিইউর প্রতিটি কার্যক্রম পরিচালিত। গ্র্যাজুয়েশনের জন্য ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে তারতম্য কাটিয়ে সবাইকে সমমানে নিয়ে আসা হচ্ছে। যাতে বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে পড়ালেখাসহ সবক্ষেত্রে সবাই সমানভাবে অংশ নিতে পারে।

এ অনুষ্ঠানে ২৫০ জন শিক্ষার্থীর হাতে সার্টিফিকেট তুলে দেওয়া হয়। সার্টিফিকেট প্রদান শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এ আয়োজন সমাপ্ত হয়। মিডিয়া পার্টনার ছিলো বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম।

উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সামস উদ-দোহা, রেজিস্ট্রার সজল কান্তি বড়ুয়া, পরিচালক শাফায়েত কবির চৌধুরীসহ ডিন, ফ্যাকাল্টি মেম্বার, কর্মকর্তা ও একাডেমির ইনস্ট্রাকটররা।

বাংলাদেশ সময়: ১২৩৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২০
এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-16 12:41:06