bangla news

আমার কোনো গ্রুপ নেই, চবি ছাত্রলীগ নিয়ে নওফেল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-২৯ ১:৫৬:৪১ পিএম
শিক্ষামন্ত্রী ও শিক্ষা উপমন্ত্রী সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী ও শিক্ষা উপমন্ত্রী সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্রলীগের গ্রুপিং রাজনীতি নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

তিনি বলেছেন, ‘আপনারা বারবার বলেন, আমার গ্রুপ। আমার কীসের গ্রুপ? আপনারা বলতেছেন গ্রুপের কথা, আমি বলছি নাকি? আমি কি বলছি, আমি গ্রুপ করি?’

বুধবার (২৯ জানুয়ারি) বাংলাদেশ মেরিন একাডেমির ৫৪তম ব্যাচের ক্যাডেটদের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নোত্তরে শিক্ষা উপমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এর আগে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তিনি বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক সময় ছাত্র আন্দোলন থাকে। কিন্তু কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে যদি কারও দাবি থাকে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সরকারের সময়ে তা নিয়ে আন্দোলনের প্রয়োজন নেই।’

‘শেখ হাসিনার সরকারের সময়ে দাবি করতে হয় না। যা প্রয়োজন তা যদি প্রধানমন্ত্রী শুধু অবহিত হন, তাহলেই সে যৌক্তিক দাবি তিনি পূরণ করেন। অতএব কারও কোনো ধরনের আন্দোলনে যাওয়ার প্রয়োজন নেই।’

চবিতে ছাত্রলীগের গ্রুপিং সমস্যাটি স্থানীয় নেতাদের কারণে হচ্ছে ইঙ্গিত করে ডা. দীপু মনি বলেন, ‘বিভিন্ন রাজনৈতিক দলে বিভিন্ন ইস্যূ নিয়ে কারও কারও মধ্যে সমস্যা থাকতে পারে। সেগুলো স্থানীয় সমস্যা। স্থানীয় সমস্যা স্থানীয় পর্যায়েই সমাধান করতে হবে।’

প্রসঙ্গত, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শাখা ছাত্রলীগের বগি ভিত্তিক সংগঠন সিএফসি, বিজয়, সিক্সটি নাইন, ভিএক্স, বাংলার মুখ এবং রেড সিগন্যালের কর্মীরা নিজেদের মধ্যে গত দুই মাসে অন্তত ১০ বার সংঘর্ষে জড়িয়েছে।

এ সময়ে তাদের ডাকা কয়েক দফা অবরোধের কারণে বন্ধ রাখতে হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম।

সর্বশেষ গত সোমবার দুপুরে রেড সিগন্যালের দুই কর্মীকে সিক্সটি নাইনের কর্মীরা মারধর করলে রাতে বিশ্ববিদ্যালয় অবরোধের ঘোষণা দেয় রেড সিগন্যাল। যদিও মঙ্গলবার সকালে অবরোধ শিথিল ঘোষণা করা হয়।

শাখা ছাত্রলীগের বগি ভিত্তিক সংগঠন সিএফসি ও বিজয়ের নেতা-কর্মীরা দীর্ঘদিন ধরে প্রয়াত মেয়র চট্টলবীর এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারি হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত।

তার মৃত্যুর পর সিএফসি ও বিজয়ের নেতা-কর্মীরা নিজেদেরকে মহিউদ্দিন পুত্র নওফেলের অনুসারি হিসেবে পরিচয় দিয়ে থাকেন।

অন্যদিকে সিক্সটি নাইন, ভিএক্স, বাংলার মুখ এবং রেড সিগন্যালের কর্মীরা চট্টগ্রামের বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারি হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৮, ২০২০
এমএম/এমআর/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-29 13:56:41