bangla news

ফুটপাত দখলের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স মেয়র নাছিরের

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-২১ ৮:২৩:৪২ পিএম
বক্তব্য দেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

বক্তব্য দেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

চট্টগ্রাম: নগরের সড়ক, ফুটপাত ও চসিকের জায়গার ওপর কাঁচাবাজার, হকার বসানোর বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স অবস্থানের ঘোষণা দিলেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

তিনি বলেন, নগরের বিভিন্ন সড়ক, ফুটপাত ও ড্রেনের ওপর ইট, বালু, কংকর, লৌহজাত দ্রব্য, নির্মাণসামগ্রী, অস্থায়ী দোকান ও মালামাল এবং কাঁচাবাজার বসিয়ে সর্বসাধারণের চলাচলের পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা কোনোক্রমে বরদাশত করা হবে না।

মেয়র বলেন, এসব কর্মকাণ্ড পরিবেশ দূষণ এবং নগরের সৌন্দর্যহানির শামিল। যা নাগরিক স্বার্থের পরিপন্থী ও বে-আইনি। এ ধরনের কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করবে চসিক।

‘অভিযান চলাকালে সড়ক, ফুটপাত ও চসিকের জায়গার ওপর কোনো ধরনের স্থাপনা পাওয়া গেলে মালামাল জব্দ ও জেল-জরিমানাসহ আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) থিয়েটার ইনস্টিটিউট চট্টগ্রাম (টিআইসি) মিলনায়তনে চসিকের ৫৪তম সাধারণ সভায় সভাপতির বক্তব্যে মেয়র এ ঘোষণা দেন।

সভায় চসিক প্যানেল মেয়র, কাউন্সিলর, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর, চসিক প্রধান নির্বাহী মো. সামসুদ্দোহা, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল সোহেল আহমদ, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মফিদুল আলম, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, মেয়রের একান্ত সচিব মো. আবুল হাশেম, স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট (যুগ্ম জেলা জজ) জাহানারা ফেরদৌস, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আফিয়া আখতারসহ চসিকের বিভাগীয় ও শাখা প্রধান এবং নগরের সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভা সঞ্চালনায় ছিলেন চসিক সচিব আবু শাহেদ চৌধুরী।

মেয়র বলেন, ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই লালদীঘি মাঠে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতির বিরোধী সুশৃঙ্খল মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সমাবেশে নগরের ৪১টি ওয়ার্ডে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতিবিরোধী গঠিত কমিটির সদস্য ও নেতারা সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলরের নেতৃত্বে এ সমাবেশে যোগদান করবেন।

মেয়র বলেন, যত্রতত্র ময়লা ফেলে নগরের পরিবেশকে কোনোক্রমেই ব্যাহত করতে দেওয়া যাবে না। তাই নগরের হোটেল, রেস্টুরেন্ট ও কমিউনিটি সেন্টারের মালিকদের নিয়ে বৈঠকের পরামর্শ দেন তিনি।

মেয়র বলেন, উন্নয়নকাজে জড়িত ঠিকাদারদের করুণা দেখানোর কোনো সুযোগ নেই। তাদের কাছ থেকে কার্যাদেশ মতে শতভাগ কাজ আদায় করতে হবে। কাজের গুণগতমানের ক্ষেত্রে কোনো ধরনের আপস করা যাবে না।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীকে উপলক্ষ করে যত্রতত্র জাতির পিতার ছবি, ম্যুরাল ও ভাস্কর্য স্থাপন করা যাবে না। বিষয়টি কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের তদারকির আহ্বান জানান মেয়র।

বাংলাদেশ সময়: ২০২০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২১, ২০২০
এআর/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-21 20:23:42