bangla news

ইডিইউতে আগামীর ইঞ্জিনিয়ারদের মেধার লড়াই

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-২২ ১১:৪৭:৫৫ এএম
ইডিইউতে ইঞ্জিনিয়ারিং ডে’তে অতিথিদের সঙ্গে বিজয়ীরা।

ইডিইউতে ইঞ্জিনিয়ারিং ডে’তে অতিথিদের সঙ্গে বিজয়ীরা।

চট্টগ্রাম: ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাসে দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে শেষ হলো ইন্ট্রা ডিপার্টমেন্ট ইঞ্জিনিয়ারিং ডে ফল-২০১৯।

বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) ইডিইউ স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের উদ্যোগে সম্পন্ন হয় এ আয়োজন।

প্রতিযোগিতার মধ্যে সকাল সাড়ে ৯টায় অনুষ্ঠিত হয় প্রোগ্রামিং কনটেস্ট; দুপুর ১২টা থেকে ২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয় ইঞ্জিনিয়ারিং অলিম্পিয়াড; প্রজেক্ট ও পোস্টার প্রেজেন্টেশন এবং স্ক্যাভেঞ্জার হান্ট অনুষ্ঠিত হয় দুপুর আড়াইটায়। বিকেল ৪টা থেকে ইউনিভার্সিটির অ্যাম্ফিথিয়েটারে শুরু হয় পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক মু. সিকান্দার খান। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের বিশ্লেষণী ক্ষমতাকে জাগিয়ে তোলা ও মেধার বিকাশ ঘটাতে প্রতিযোগিতার বিকল্প নেই। কর্মক্ষেত্রে ঝাঁপিয়ে পড়ার আগে  বিশ্ববিদ্যালয় জীবনেই নিজেদের মেধা যাচাই নিতে শিক্ষার্থীদের এসব প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া উচিৎ। দেশি-বিদেশি বড় বড় প্রতিযোগিতাগুলোতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে শিরোপা ছিনিয়ে আনতে হবে।

ইডিইউর প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান বলেন, ইডিইউর শিক্ষার্থীদের বিশ্বমঞ্চে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার যোগ্য করে তুলছি আমরা। এ লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের ইন্টারন্যাশনাল গ্র্যাজুয়েট লিডারশিপ এক্সপেরিয়েন্স (আইজিএলই) কোর্সের অধীনে বিশ্বের উন্নত ও বাণিজ্যিক শহরগুলোয় নিয়ে যাচ্ছি, যা তাদের মধ্যে জ্ঞান এবং নেতৃত্বগুণ তৈরি করবে। একইসঙ্গে শিক্ষার্থীরা বড় ক্যানভাসে চিন্তা করার ক্ষমতা অর্জন ও সৃজনশীলতাকে শাণিত করতে পারবে।

স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের অ্যাসোসিয়েট ডিন ড. নাজিম উদ্দিন বলেন, বরাবরের মতোই চমৎকার সব আইডিয়া ও এর প্রাণবন্ত উপস্থাপনা দিয়ে বিচারকদের মুগ্ধ করেছে শিক্ষার্থীরা। বাংলাদেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও ইডিইউর ইঞ্জিনিয়াররা তাদের প্রতিভার স্বাক্ষর রাখছে।

অতিথি ছিলেন স্কুল অব লিবারেল আর্টসের অ্যাসোসিয়েট ডিন মুহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, স্কুল অব বিজনেসের অ্যাসোসিয়েট ডিন ড. মুহাম্মদ রকিবুল কবির, স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সহকারী অধ্যাপক ড. এটিএম মাহমুদুর রহমান, সামিউল ইসলাম, লিংকন চৌধুরী। উপস্থিত ছিলেন ইউনিভার্সিটির শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

স্ক্যাভেঞ্জার হান্টে বিজয়ী হয়েছে টিম হাম পাঞ্চ। প্রোগ্রামিং কনটেস্টে বিজয়ী হয়েছেন রাতুল দাস, প্রশান্ত পাল ও আকিল উদ্দিন চৌধুরীর দল। ইঞ্জিনিয়ারিং অলিম্পিয়াডে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন সিয়াম সাজনান চৌধুরী, প্রথম রানার আপ হয়েছেন ডলি ইয়াসমিন এবং দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছেন সামিয়া গফুর।

প্রজেক্ট ও পোস্টার প্রেজেন্টেশনে বিজয়ী হয়েছেন ‘রিভার ওয়েস্ট কালেক্টর’ শীর্ষক প্রজেক্ট উপস্থাপনকারী আলি আকবর, ইশরাত জাহান ও শহিদুল ইসলাম চৌধুরী সাকিবের দল; প্রথম রানার আপ হয়েছেন ‘স্মার্ট হুইল চেয়ার’ শীর্ষক প্রজেক্ট উপস্থাপনকারী যোবাইরুল হক, শুভাশিষ সেন ও মু. শাহজালালের দল।

পুরস্কার বিতরণ শেষে সাংস্কৃতিক পর্বে অন্যান্য শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি সঙ্গীত পরিবেশ করে গানের দল ছায়াপথ ও এভোকাডোস।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০১৯
এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-22 11:47:55