bangla news

সোহেল হত্যা মামলায় কাউন্সিলরসহ ৫২জন অভিযুক্ত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-২০ ১১:১৭:১৯ এএম
মহিউদ্দিন সোহেল।

মহিউদ্দিন সোহেল।

চট্টগ্রাম: সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মহিউদ্দিন সোহেল হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) দুপুরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডবলমুরিং থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ জহির হোসেন মহানগর আদালতে নগর পুলিশের প্রসিকিউশন শাখায় অভিযোগপত্র জমা দেন।

এতে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের একজন কাউন্সিলর ও জাতীয় পার্টির একজন নেতাসহ ৫২ জনকে আসামি করা হয়েছে।

গত ৭ জানুয়ারি সকালে পাহাড়তলী বাজারে ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা মহিউদ্দিন সোহেলকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনার পর পুলিশ ও বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ হয়ে ব্যবসায়ী ও জনতা মিলে মহিউদ্দিন সোহেলকে গণপিটুনি দেওয়ায় তার মৃত্যু হয়েছে। তবে পরদিন পরিবারের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, মহিউদ্দিন সোহেল কোনো চাঁদাবাজ বা সন্ত্রাসী ছিলেন না। পাহাড়তলীকে সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত করার উদ্যোগ নিয়ে তিনি কাউন্সিলর সাবের সওদাগর এবং ওসমান খানের রোষানলে পড়েন।

এ ঘটনায় ৮ জানুয়ারি রাতে মহিউদ্দিন সোহেলের ছোট ভাই শাকিরুল ইসলাম শিশির বাদি হয়ে ডবলমুরিং থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার এজাহারে সাবের ও ওসমান খানসহ ২৭ জনের নাম উল্লেখ করা হয়। এছাড়া আরও ১০০ থেকে ১৫০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জহির হোসেন জানান, অভিযোগপত্র প্রসিকিউশন শাখায় জমা দেওয়া হয়েছে। ৫২ জনকে আসামি করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৭ জন পলাতক আছেন। ৩৫ জনকে ঘটনার পর বিভিন্ন সময় গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার বাদিসহ ২৯ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১১১০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২০, ২০১৯
এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-20 11:17:19