ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২২ জিলহজ ১৪৪১

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

গবেষণাপত্র ছড়িয়ে দিতে যৌথভাবে কাজ করবে গ্রন্থবিপণি বাতিঘর

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১১৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৯
গবেষণাপত্র ছড়িয়ে দিতে যৌথভাবে কাজ করবে গ্রন্থবিপণি বাতিঘর ছবি: বাংলানিউজ

চট্টগ্রাম: আন্তর্জাতিকমানের গবেষণাপত্র, জার্নাল ও বিভিন্ন প্রকাশনা ছড়িয়ে দেওয়া, শিক্ষার্থীদের ভেতর বই পড়ার আগ্রহ তৈরি করা ও শিক্ষামূলক নানান ধরণের কর্মসূচি বাস্তবায়নে জনপ্রিয় গ্রন্থবিপণি প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রামের বাতিঘর ও তারুণ্যমুখর বিদ্যাপীঠ চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি (সিআইইউ) যৌথভাবে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

রোববার (১৭ নভেম্বর) সকালে নগরের জামাল খানের সিআইইউ ক্যাম্পাসের কনফারেন্স রুমে এই উপলক্ষে দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

সিআইইউর পক্ষে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আনজুমান বানু লিমা ও বাতিঘরের প্রধান দিপংকর দাশ নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

চুক্তি অনুযায়ী, বাতিঘর ও সিআইইউ কর্তৃপক্ষ এখন থেকে সব ধরণের জাতীয় ও আন্তর্জাতিকমানের পুস্তক-বই-জার্নাল ও প্রকাশনা একে অপরের সঙ্গে বিনিময় করবে। সিআইইউর সব শিক্ষক ও শিক্ষার্থীকে বিশেষ ছাড়ে মূল্যবান বইগুলো কেনা ও পড়ার জন্য সহযোগিতা করবে বাতিঘর।

শুধু তাই নয়, সিআইইউর বিভিন্ন জার্নাল, ক্রোনিক্যাল ও প্রকাশনাগুলো সাধারণ মানুষের পড়ার জন্য বাতিঘর কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। পাশাপাশি যৌথভাবে শিক্ষকদের মৌলিক গবেষণাপত্র প্রচার ও সেমিনার-সিম্পোজিয়াম আয়োজনে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবে প্রতিষ্ঠানটি।

জানতে চাইলে সিআইইউর ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আনজুমান বানু লিমা বলেন, বাতিঘর চট্টগ্রামের সাহিত্য ও সাংস্কৃতির প্রাণকেন্দ্র। অন্যদিকে সিআইইউ বরাবরই গুণগত শিক্ষা ছড়িয়ে দিতে বদ্ধপরিকর। সৃষ্টিশীল মেধা বিকশিত করতে দুই প্রতিষ্ঠানের এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়।

বাতিঘরের প্রধান দিপংকর দাশ বলেন, সাধারণত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এই ধরণের উদ্যোগ নিতে তেমন দেখা যায় না। আমরা সিআইইউ কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্ত যুগোপযুগী বলে মনে করি।

সিআইইউর উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী বলেন, সাহিত্যপ্রেমীদের অনন্য এক আনন্দভুবন এই বাতিঘর। দুটো প্রতিষ্ঠানই জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে দিতে পাশাপাশি চলছে দীর্ঘদিন। আশা করছি এই উদ্যোগের ফলে মানুষের জানার ঝুলি অন্য এক উচ্চতায় পৌঁছবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন স্কুল অব লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সের ডিন অধ্যাপক কাজী মোস্তাইন বিল্লাহ, ইংরেজি বিভাগের প্রধান সার্মেন রড্রিক্স, সিআইইউর লাইব্রেরিয়ান ড. মো. জিল্লুর রহমান, প্রশাসনিক শাখার ডেপুটি ডিরেক্টর কুমার দোয়েল দে, মানবসম্পদ শাখার সহকারি পরিচালক মো. আশরাফুল হক, বাতিঘরের পাবলিকেশন্স সম্পাদক মোজাম্মেল মাহমুদ প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২০১০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৮, ২০১৯

জেইউ/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa