bangla news

রহস্যঘেরা বিস্ফোরণ, চুলার ওপর এখনো তরকারি!

​সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১৭ ১০:৫৮:০৯ পিএম
কেজিডিসিএল কর্মকর্তার দাবি গ্যাস লাইন থেকে বিস্ফোরণ হয়নি

কেজিডিসিএল কর্মকর্তার দাবি গ্যাস লাইন থেকে বিস্ফোরণ হয়নি

চট্টগ্রাম: নগরের পাথরঘাটার ব্রিক ফিল্ড রোডের বড়ুয়া ভবনে বিস্ফোরণের কারণ রহস্যঘেরাই থেকে গেছে। প্রাথমিকভাবে ফায়ার সার্ভিস, বিস্ফোরক অধিদফতর, পুলিশ, জেলা প্রশাসন, সিটি করপোরেশনসহ বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা গ্যাসলাইনে লিক হওয়াকে দায়ী করলেও কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের (কেজিডিসিএল) কর্মকর্তারা তা মানতে নারাজ।

রোববার (১৭ নভেম্বর) দুপুরে ও বিকেলে দুই দফা ঘটনাস্থল পরিদর্শন, আলামত সংগ্রহ, ছবি ও ভিডিও বিশ্লেষণ করে কেজিডিসিএলের মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী সৈয়দ আবু নসর মো. সালেহ বাংলানিউজকে বলেন, চুলার ওপর পাতিল এবং সেই পাতিলে এখনো তরকারি অক্ষত আছে। দেয়ালে টাঙানো রশিতে ঝুলছে কাপড়। একটি প্লাস্টিক পুড়েনি। রান্নাঘরে গ্যাসের জিআই লাইন অক্ষত। এমনকি দুই ঘরের মাঝখানের দেয়ালটিও অক্ষত। কোনোভাবেই এটি গ্যাসলাইন লিকেজের অগ্নিকাণ্ড নয়। কারণ এখানে আগুনটা ছোট, বিস্ফোরণটা বড়।

তাহলে এত শক্তিশালী বিস্ফোরণ কীভাবে ঘটলো জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা দেখেছি সেপটিক ট্যাংকের ঢাকনা উড়ে গেছে। ওই ট্যাংক থেকেই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। কেজিডিসিএল ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। কমিটি কাজ শুরু করেছে। এরপর বিস্তারিত বলতে পারবো। প্রাথমিকভাবে আমরা বলতে পারি, গ্যাসলাইন লিকেজ থেকে এ ঘটনা ঘটেনি।

তবে রাতে ফায়ার সার্ভিসের একজন কর্মকর্তা বাংলানিউজকে বলেন, গ্যাসলাইনের রাইজারটা ছিল মরিচায় ভরা, অনেক পুরনো। হতে পারে এ রাইজার থেকে গ্যাস লিক হয়ে বাসার কক্ষগুলো গ্যাস চেম্বারে পরিণত হয়েছিল। সকালে বাসার একজন সদস্য দিয়াশলাইয়ের (ম্যাচ) কাঠি জ্বালানোর পরই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সেপটিক ট্যাংক আমরাও দেখেছি। কিন্তু সেটি একেবারে ভর্তি ছিল।

বিস্ফোরণে আহত অর্পিতা নাথের সঙ্গে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে কথা বলেছেন সিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) শাহ মো. আব্দুর রউফ। তিনি বলেন, ওই বাসায় দিয়াশলাইয়ের কাঠি জ্বালানোর সঙ্গে সঙ্গে বিস্ফোরণ হয়েছে।

পাথরঘাটার বড়ুয়া ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনায় এ পর্যন্ত নারী শিশুসহ ৭ জন নিহত এবং ৯ জন আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এর মধ্যে এক নারীর মুখমণ্ডল আগুনে ঝলসে গেছে।  

বাংলাদেশ সময়: ২২৪১ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
এআর/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-17 22:58:09