bangla news

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল: বন্দরের বহির্নোঙরে পণ্য খালাস বন্ধ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-০৮ ২:২২:৫৪ পিএম
বন্দরের বহির্নোঙরে পণ্য খালাস বন্ধ (ফাইল ফটো)

বন্দরের বহির্নোঙরে পণ্য খালাস বন্ধ (ফাইল ফটো)

চট্টগ্রাম: ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে সাগর উত্তাল ও আবহাওয়া অধিদফতরের ৪ নম্বর সংকেতের কারণে চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে পণ্য খালাস বন্ধ হয়ে গেছে।

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) দুপুরে লাইটার শিপ মালিকদের সংগঠন ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট সেলের (ডব্লিওটিসির) একজন কর্মকর্তা বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ আবহাওয়া অধিদফতরের সতর্ক সংকেতকে গুরুত্ব দিয়ে বন্দর চ্যানেল নিরাপদ রাখতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে। ইতোমধ্যে লাইটার শিপগুলোর ওপর নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। রাতে যেসব লাইটার বহির্নোঙরে গেছে সেগুলো ফিরে আসছে কিংবা নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যাচ্ছে। বড় জাহাজের বিদেশি ক্যাপ্টেনরা আবহাওয়া বৈরী হওয়ায় নিরাপত্তাজনিত কারণে লাইটারিং বন্ধ করে দিয়েছেন।

পৌনে ১টায় বাংলাদেশ লাইটার শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি মো. নবী আলম বাংলানিউজকে বলেন, আমি এখন কর্ণফুলী নদীর পাড়ে। ঘূর্ণিঝড় এখনো দূরে আছে। তবে লাইটার শিপে লোড আনলোড বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। নিরাপদ গন্তব্যে জাহাজ নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে বন্দর সচিব মো. ওমর ফারুক বাংলানিউজকে জানিয়েছেন, আবহাওয়া অধিদফতর ৪ নম্বর সংকেত দেখাতে বলায় বিকেলে বন্দর ভবনের সম্মেলক কক্ষে ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি সভা আহ্বান করা হয়েছে। বন্দর চেয়ারম্যান সভায় সভাপতিত্ব করবেন।

তিনি জানান, বন্দরের মূল জেটিতে কনটেইনার ও কার্গো খালাস স্বাভাবিক রয়েছে। সংকেত বাড়লে ধাপে ধাপে হ্যান্ডলিং কার্যক্রম কমিয়ে আনা হবে।

বিদেশ থেকে আমদানি করা গম, ডাল, ক্লিংকারসহ খোলা পণ্যবাহী বড় জাহাজ বেশি ড্রাফটের (জাহাজের পানির নিচের অংশ) কারণে বন্দরের মূল জেটিতে ভিড়তে না পারায় বহির্নোঙরে ছোট জাহাজে (লাইটার শিপ) খালাস করে বিভিন্ন নদীবন্দর, কারখানার ঘাটে নিয়ে যাওয়া হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৮, ২০১৯ 
এআর/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-08 14:22:54