bangla news

ছিনতাইয়ে বাধা দেওয়ায় খুন হন ডা. শাহ আলম: র‌্যাব

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-২২ ৬:৫৯:৩৯ পিএম
বক্তব্য দেন কাজী তারেক আজিজ।

বক্তব্য দেন কাজী তারেক আজিজ।

চট্টগ্রাম: সীতাকুণ্ড থেকে নগরের চান্দগাঁওয়ে ফেরার পথে ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছিলেন শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. শাহ আলম। ছিনতাইকারীদেরকে বাধা দেওয়ায় কারণেই তাকে নির্মমভাবে খুন হতে হয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-র‌্যাব।

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) বিকেলে র‌্যাব-৭ এর চান্দগাঁও ক্যাম্পে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-৭ এর সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) কাজী তারেক আজিজ।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে কর্মস্থল সীতাকুণ্ড থেকে নগরের চান্দগাঁও এলাকার বাসায় ফিরতে একটি লেগুনায় উঠেন সৌদি আরবের মদিনা ফেরৎ চিকিৎসক ডা. শাহ আলম। ওই লেগুনায় আগে থেকেই দুজন ছিনতাইকারী ছিলেন।

লেগুনাটি কিছুদূর অগ্রসর হওয়ার পর আরও দুজন ছিনতাইকারী লেগুনায় উঠেন। লেগুনা আরও কিছুদূর অগ্রসর হওয়ার পর চার ছিনতাইকারী মিলে ডা. শাহ আলমকে যা আছে তা বের করে দিতে বলেন। এতে রাজি না হওয়ায় তাকে ছরিকাঘাতে খুন করেন ছিনতাইকারীরা।

কাজী তারেক আজিজ বলেন, খুনের পর মরদেহের পরিচয় যাতে শনাক্ত করা না যায় সেজন্য ডা. শাহ আলমের মুখ বিকৃত করে দেন ছিনতাইকারীরা। পরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে মরদেহটি ফেলে পালিয়ে যান তারা।

তিনি বলেন, ঘটনার পরপরেই র‌্যাব ছায়াতদন্ত শুরু করে। পাশাপাশি গোয়েন্দা তৎপরতা বাড়ানো হয়। তদন্ত করতে গিয়ে র‌্যাব জানতে পারে লেগুনাতেই খুন হন ডা. শাহ আলম। পরে লেগুনাটির বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করা হয়। চট্টগ্রাম রেল স্টেশন থেকে লেগুনা চালক ওমর ফারুককে (১৯) আটক করা হয়।

‘ওমর ফারুককে জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যেই জট খুলে আলোচিত এ হত্যাকাণ্ডের। এর সঙ্গে যারা জড়িত প্রত্যেককে আইনের আওতায় আনা হবে।’ বলেন র‌্যাব-৭ এর এ কর্মকর্তা।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০১৯
এমআর/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম র‌্যাব
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-22 18:59:39