bangla news

৬৪ ঘণ্টায় ১ জাহাজের ৪২৭৯ টিইইউ’স হ্যান্ডলিং বন্দরে

আল রাহমান, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-২৩ ৬:৫৫:২২ পিএম
এনসিটি-৩ বার্থে ‘এমভি দেলওয়ার ট্রেডার’

এনসিটি-৩ বার্থে ‘এমভি দেলওয়ার ট্রেডার’

চট্টগ্রাম: দেশের প্রধান সমুদ্রবন্দরের নিউমুরিং কনটেইনার টার্মিনালের (এনসিটি) ৩ নম্বর বার্থে ৬৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ২৭৯ টিইইউ’স হ্যান্ডলিংয়ের রেকর্ড হয়েছে।

গত শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) ‘এমভি দেলওয়ারি ট্রেডার’ নামের জাহাজটি কলম্বো থেকে ১ হাজার ১৪২ বক্সে ২ হাজার টিইইউ’স নিয়ে এনসিটি-৩ জেটিতে আসে। সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) জাহাজটি ১ হাজার ২৩৫ বক্সে ২ হাজার ২৭৯ টিইইউ’স কনটেইনার নিয়ে বন্দর ছেড়ে যায়। জাহাজটি বন্দর জেটিতে অবস্থান করে ৭৩ ঘণ্টা। এর মধ্যে কনটেইনার লোড-আনলোডে সময় লাগে ৬৪ ঘণ্টা।

এনসিটি-৩ বার্থের দায়িত্বে থাকা শীর্ষ টার্মিনাল অপারেটর মেসার্স সাইফ পাওয়ারটেকের চিফ অপারেটিং অফিসার  ক্যাপ্টেন তানভীর হোসেন বাংলানিউজকে এসব বিষয় নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, জাহাজটিতে আমদানি-রফতানি মিলে ২ হাজার ৩৭৭ বক্সে ৪ হাজার ২৭৯ টিইইউ’স হ্যান্ডলিং করেছি আমরা। এটি নতুন একটি মাইলফলক বা রেকর্ড।

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ নতুন যে কি গ্যান্ট্রি ক্রেন, হ্যান্ডলিং ইক্যুইপমেন্ট সংযোজন করেছে তারই রেজাল্ট হচ্ছে ৬৪ ঘণ্টায় এতগুলো কনটেইনার হ্যান্ডলিং করতে পারা। পাশাপাশি অফডকগুলো আমদানি পণ্যভর্তি কনটেইনার দ্রুততম সময়ের মধ্যে বন্দর থেকে নিয়ে যাওয়া এবং রফতানি পণ্যভর্তি কনটেইনার যথাসময়ে হুক পয়েন্টে পাঠানোও গুরুত্বপূর্ণ ছিল। এর ফলে জাহাজের গড় অবস্থান সময় কমবে। মেরিটাইম ওয়ার্ল্ডে বন্দরের সুনাম বাড়বে। আমদানি ও রফতানিকারকরা এর সুফল ভোগ করবেন।  

তিনি জানান, গত ৫ সেপ্টেম্বর একই জাহাজের ৯০ ঘণ্টায় ৪ হাজার ১৮৫ টিইইউ’স হ্যান্ডলিং ছিল সর্বশেষ রেকর্ড।

জাহাজটির লোকাল এজেন্ট মারকো শিপিংয়ের সিনিয়র ম্যানেজার বোরহান উদ্দিন আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের জাহাজটি দ্রুততম সময়ের মধ্যে আমদানি-রফতানি কনটেইনার লোড-আনলোড করে রেকর্ড করেছে। বিরতির সময় বাদ দিলে যা দাঁড়ায় ৬৪ ঘণ্টা। বন্দরের আধুনিক ব্যবস্থাপনা, নতুন নতুন হ্যান্ডলিং যন্ত্রপাতি সংগ্রহ, স্টেকহোল্ডারদের আন্তরিকতাসহ অনেক বিষয় এর সঙ্গে জড়িত।  

>> দিনে ১০ হাজারের বেশি কনটেইনার হ্যান্ডলিং হচ্ছে বন্দরে

বাংলাদেশ সময়:  ১৮৪৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯
এআর/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম চট্টগ্রাম বন্দর
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-23 18:55:22