bangla news

নাট্যজন শান্তনু বিশ্বাস আর নেই

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-১২ ৪:৫৯:০০ পিএম
শান্তনু বিশ্বাস।

শান্তনু বিশ্বাস।

চট্টগ্রাম: নাট্যকার, নাট্য নির্দেশক, সংগীত শিল্পী, গীতিকার, নাট্য অভিনেতা শান্তনু বিশ্বাস (৬৯) আর নেই।

শুক্রবার (১২ জুলাই) বিকাল ৪টার দিকে ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ ‌করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই কন্যাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

কালপুরুষ নাট্য সম্প্রদায়ের সাধারণ সম্পাদক মিশফাক রাসেল বাংলানিউজকে জানান, মঙ্গলবার (৯ জুলাই) অসুস্থ হওয়ার পর তাকে নগরের একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) বিকাল ৫টায় ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মারা যান।   

শান্তনু বিশ্বাস মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তীকালে থিয়েটারের সঙ্গে যুক্ত হয়ে নাটক লেখা, অভিনয় ও নির্দেশনা শুরু করেন।  ১৯৭৬ সালের দিকে কয়েকজন নাট্যকর্মী সহ অঙ্গন থিয়েটার গড়ে তোলেন। ‘কালো গোলাপের দেশ’ তাঁর লেখা প্রথম নাটক। এর আগে তিনি ‘অঙ্গন’ এবং ‘গণায়ন’-এ অভিনয় করে সারাদেশে একজন শক্তিমান অভিনেতা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন। তিনি নাটকের নির্দেশনা আবহও তৈরি করেন তৃতীয় নাটক ‘নবজন্ম’-তে। মুক্তিযুদ্ধের ওপর ভিন্ন আঙ্গিকে লেখা তার নাটক ‘ইনফরমার’ ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পায়।

শান্তনু বিশ্বাস বিশ্ব নাট্যের অনেক নাটক অনুবাদ করেছেন, রূপান্তরও করেছেন, কিশোর নাট্য রচনা করেছেন।

কবি মনিরুল মনিরের খড়িমাটি থেকে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্রকাশিত হয় শান্তনু বিশ্বাসের গানের বই ‘গানের কবিতা- খোলাপিঠ’।

শান্তনু বিশ্বাস সঙ্গীতের সংগঠকও। এ বিষয়ে তিনি গবেষণা করেছেন, প্রবন্ধও লিখেছেন। বহুরৈখিক আড়ালচারী শিল্পী কালপুরুষ নাট্য সম্প্রদায়ের উপদেষ্টা শান্তনু বিশ্বাস নিজের রচনা, নির্দেশনা ও অভিনয় নিয়ে সবশেষ মঞ্চে ওঠেন ২৮ জুন, ‘নির্ভার’ নাটক মঞ্চায়নকালে।

শান্তনু বিশ্বাসের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রামের নাট্যাঙ্গণের কলাকুশলীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫০ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০১৯
এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-07-12 16:59:00