ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৩ জুলাই ২০১৯
bangla news

সেনাবাহিনীর সহায়তায় রুবি সিমেন্টের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-১১ ৭:৩২:০৭ পিএম
রুবি সিমেন্টের অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দিয়েছে সিডিএ।

রুবি সিমেন্টের অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দিয়েছে সিডিএ।

চট্টগ্রাম: বিমানবন্দর সড়কের সিমেন্ট ক্রসিং এলাকায় নালার জায়গা দখল করে নির্মিত রুবি সিমেন্টের অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দিয়েছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ)।

সেনাবাহিনীর সহায়তায় বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) বিকেলে সিডিএর স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল আলম চৌধুরী এ অভিযান পরিচালনা করেন।

এ সময় জলাবদ্ধতা নিরসনে বাস্তবায়নাধীন মেগা প্রকল্পের পরিচালক ও সিডিএর নির্বাহী প্রকৌশলী আহমেদ মাঈনুদ্দীন, দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জিয়াউল হক সুমন উপস্থিত ছিলেন।

মেগা প্রকল্পের পরিচালক প্রকৌশলী আহমেদ মাঈনুদ্দীন বাংলানিউজকে বলেন, রুবি সিমেন্ট কারখানার ভেতরের খালটিতে পানি যাওয়ার জন্য ৮ ফুট প্রস্থ একটি নালা রয়েছে। ওই নালা দিয়ে সিমেন্ট ক্রসিং মোড় থেকে রুবি সিমেন্টের গেট হয়ে পানি পড়ে।

তিনি আরও বলেন, রুবি সিমেন্ট কর্তৃপক্ষ নালাটি ভরাট করে সেটির ওপর স্ল্যাব বসিয়ে দেয়। পাশাপাশি সিমেন্ট ক্রসিং মোড় থেকে নালার মুখ পর্যন্ত প্রায় ১৮ ফুট জায়গা দখল করে গেট, গার্ড রুম তৈরি করে। এজন্য ওই এলাকার পানি নামতে পারছে না। ফলে জলাবদ্ধতার কারণে বিমানবন্দর সড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হচ্ছে।

আহমেদ মাঈনুদ্দীন বলেন, প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থা বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহায়তায় সিডিএর ভ্রাম্যমাণ আদালত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে। নালাটি চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনকে বুঝিয়ে দেওয়া হযেছে। দ্রুত নতুনভাবে নালা তৈরি করে পানি চলাচল নিশ্চিত করা হবে।

দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জিয়াউল হক সুমন বাংলানিউজকে বলেন, নালা ভরাট হয়ে যাওয়ায় রুবি সিমেন্ট কারখানার ভেতরের খালটিতে এলাকার পানি নামার পথ বন্ধ হয়ে যায়। এজন্য বিমানবন্দর ও পতেঙ্গামূখী সড়কে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। তবে ইতোমধ্যে নালার ওপর গড়ে উঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের পাশাপাশি পানি চলাচল নিশ্চিত করা হয়েছে। দ্রুত নালাটি নতুনভাবে তৈরি করা হবে।

অভিযানে সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলোর কর্মকর্তা-কর্মচারী, থানা পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেটকে সহায়তা করেন।

প্রসঙ্গত, জলাবদ্ধতার কারণে গত সোমবার থেকে চট্টগ্রাম বিমানবন্দরমুখী সড়কে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। ৪ দিন অতিবাহিত হওয়ার পরেও বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) পর্যন্ত যানজট অব্যাহত রয়েছে। যানজট ইপিজেড, কাস্টমস, নিমতলা, বারিক বিল্ডিং পর্যন্ত দীর্ঘায়িত হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩০ ঘণ্টা, জুলাই ১১, ২০১৯
এসইউ/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-11 19:32:07