bangla news

ছয় মাসে বিদেশ গেলেন চট্টগ্রামের ১৭ হাজার শ্রমিক

আল রাহমান, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-২৫ ১১:০৯:১৪ এএম
বিদেশগামী বাংলাদেশি শ্রমিক। ছবি: সংগৃহীত

বিদেশগামী বাংলাদেশি শ্রমিক। ছবি: সংগৃহীত

চট্টগ্রাম: নানামুখী প্রশিক্ষণ, উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচি আর বৈদেশিক মুদ্রা আয় করে স্বাবলম্বী হওয়ার আশায় বেকার নারী-পুরুষরা বিশ্বের ১৬৮টি দেশে বৈধ শ্রমিক হিসেবে যাচ্ছেন।

চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ২৩ জুন পর্যন্ত চট্টগ্রাম জেলা থেকে বিদেশ গেছেন ১৬ হাজার ৯৯০ জন শ্রমিক। এর মধ্যে ১৬ হাজার ৫৫৬ জন পুরুষ এবং ৪৩৪ জন নারী শ্রমিক।

২০১৮ সালে একই সময়ে চট্টগ্রাম থেকে কাজ নিয়ে বিদেশ পাড়ি দেন ১৮ হাজার ৯০৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১৮ হাজার ৩৯০ জন এবং নারী ৫১৬ জন। চট্টগ্রাম থেকে মধ্যপ্রাচ্যের কাতার, সৌদি আরব, ওমান, কুয়েত, দুবাই, মালয়েশিয়া ও হংকংয়ে বেশি শ্রমিক গেছেন কাজ নিয়ে।

২০১৮ সালে বাংলাদেশ থেকে বৈধভাবে ৭ লাখ ৩৪ হাজার শ্রমিক কাজ নিয়ে বিভিন্ন দেশে গেছেন। ২০১৭ সালে এ সংখ্যা ছিল ১০ লাখ ৮ হাজার।

নগরের আগ্রাবাদের সরকারি কার্যভবন-২ এর জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল আলম মজুমদার বাংলানিউজকে জানান, সরকারের নানা উদ্যোগের কারণে আগামীতে কাজ নিয়ে বিদেশে যাওয়া শ্রমিকের সংখ্যা বাড়বে। সারা দেশে ৪৩৭ উপজেলায় কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি) হবে। প্রথম ও দ্বিতীয় দফায় ৯০টি কেন্দ্রের নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম জেলার রাউজান, সন্দ্বীপ, পটিয়া, ফটিকছড়ি, হাটহাজারী, মিরসরাই উপজেলায় ৬টি টিটিসি নির্মাণ হবে। রাউজান ও সন্দ্বীপের টিটিসি’র অর্ধেকের বেশি কাজ হয়ে গেছে।

তিনি জানান, মিরসরাইতে স্পেশাল ইকোনমিক জোনের সড়কের পাশে জেলা প্রশাসন থেকে টিটিসির জন্য যে জমি প্রস্তাব করা হয়েছে তা মন্ত্রণালয় বাতিল করে উপজেলা সদরে করার নির্দেশনা দিয়েছে। পটিয়া, ফটিকছড়ি ও হাটহাজারীর টিটিসির জন্য জমি অধিগ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

টিটিসিগুলোতে দেশ-বিদেশের চাহিদার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে পরিবর্তনযোগ্য পাঠ্যসূচিতে ৩ মাস, ৬ মাস, ১ ও ২ বছরের ট্রেড কোর্স করানো হবে। তখন কোনো কর্মীকে প্রশিক্ষণের জন্য জেলায় আসতে হবে না। বর্তমানে নগরের নাসিরাবাদে পৃথক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে বিদেশগামী নারী ও পুরুষ শ্রমিকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

টিটিসির বাইরে নগরের বাকলিয়ায় ৩ একর জমির ওপর প্রতিষ্ঠা করা হবে ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজি (এমআইটি)। এর জন্য ভূমি মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।   

চট্টগ্রাম জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসে বিদেশগামী কর্মীদের নাম বিএমইটি’র ডাটাবেজে নিবন্ধন, বায়োমেট্রিক ফিঙ্গার ইমপ্রেশান (আঙুলের ছাপ), বিদেশগমন সংক্রান্ত তথ্য সহায়তা, প্রবাসী কর্মীর মরদেহ আনার ব্যাপারে সহায়তা, ওয়ারিশদের নিকট মরদেহ পরিবহন ও দাফনের জন্য শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের প্রবাসী কল্যাণ ডেস্ক থেকে ৩৫ হাজার টাকা প্রদান, ৩ লাখ টাকা অনুদান, কর্মীদের নিরাপদে বিদেশগমন ও প্রত্যাবর্তনে সহায়তাসহ বিভিন্ন ধরনের সেবা দেওয়া হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১১০০ ঘণ্টা, জুন ২৫, ২০১৯
এআর/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-25 11:09:14