ঢাকা, শনিবার, ৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ আগস্ট ২০১৯
bangla news

ম্যাজিস্ট্রেট দেখে রসমালাই ডাস্টবিনে ফেললো মধুবন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-১৬ ৪:১৩:৩৫ পিএম
অভিযানে জব্দ করা হয় ফ্রিজভর্তি মেয়াদহীন রসমালাই ও গাজরের হালুয়া।

অভিযানে জব্দ করা হয় ফ্রিজভর্তি মেয়াদহীন রসমালাই ও গাজরের হালুয়া।

চট্টগ্রাম: মেয়াদহীন রসমালাই ও গাজরের হালুয়ায় ভর্তি ছিলো মিষ্টির দোকান মধুবনের ফ্রিজ। বিক্রয়কর্মীরা মেয়াদের স্টিকার লাগিয়ে ফ্রিজের এসব রসমালাই এবং গাজরের হালুয়াই বিক্রি করছিলেন ক্রেতাদের কাছে।

ম্যাজিস্ট্রেট আসার খবর পেয়ে মেয়াদহীন এসব খাবার দ্রুত ডাস্টবিনে ফেললেও শেষ রক্ষা হয়নি প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষের। ভ্রাম্যমাণ আদালতে গুনতে হয়েছে জরিমানা।

বৃহস্পতিবার (১৬ মে) দুপুরে হাটহাজারীর ইছাপুর বাজারে মধুবনের বিক্রয় কেন্দ্রে ভেজালবিরোধী এ অভিযান চালায় উপজেলা প্রশাসন। অভিযানে নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রুহুল আমিন।

মো. রুহুল আমিন বাংলানিউজকে বলেন, ভেজালবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে ইছাপুর বাজারে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযানের খবর পেয়ে ফ্রিজভর্তি প্রায় ২০ কেজি মেয়াদহীন রসমালাই ও গাজরের হালুয়া পাশের ডাস্টবিনে ফেলে দেয় মিষ্টির দোকান মধুবনের বিক্রয়কর্মীরা। আদালতের নির্দেশে এসব খাবার জব্দ করা হয়।

তিনি বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে মধুবনের ম্যানেজার জানিয়েছেন- মেয়াদহীন এসব রসমালাই ও গাজরের হালুয়া বিক্রির সময়েই উৎপাদন ও মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখের আলগা স্টিকার লাগিয়ে বিক্রি করেন তারা! এ সময় সেখান থেকে বেশ কিছু আলগা স্টিকারও জব্দ করা হয়। ক্রেতা ঠকিয়ে মেয়াদহীন খাবার বিক্রির দায়ে প্রতিষ্ঠানটিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

একই সময়ে ইছাপুর বাজারের নুরজাহান বেকারিতে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমাণ আদালত। ফ্রিজে ৭ দিন আগের বাসি মিষ্টি সংরক্ষণের দায়ে বেকারি মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১০ ঘণ্টা, মে ১৬, ২০১৯
এমআর/এসি/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-16 16:13:35