bangla news

ওয়াসার অনিয়ম তদন্তের দাবি ক্যাবের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-১১ ৯:৫৮:১২ পিএম
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম ওয়াসার উন্নয়ন প্রকল্পে অনিয়মগুলো দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মাধ্যমে তদন্তের দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)।

শনিবার (১১ মে) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে জানানো হয়, উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য চট্টগ্রাম ওয়াসাকে ১৩ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হলেও চুক্তিভিত্তিক নিয়োগপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) একেএম ফজলুল্লাহ ১০ বছর দায়িত্ব পালন করেও ওয়াসাকে সমৃদ্ধ করতে পারেনি।

‘অনিয়ম, বাজেট সংশোধন, অদক্ষ প্রশাসন, স্বজনপ্রীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, আত্মীয়করণ ও গ্রাহক স্বার্থকে উপেক্ষা করার জন্য ওয়াসা নগরবাসীর যন্ত্রণার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

বিবৃতি দেন, ক্যাব কেন্দ্রিয় কমিটির সহ-সভাপতি এসএম নাজের হোসাইন, চট্টগ্রাম বিভাগের সাধারণ সম্পাদক কাজী ইকবাল বাহার ছাবেরী, নগরের সভাপতি জেসসিন সুলতানা পারু, সাধারণ সম্পাদক অজয় মিত্র শংকু, যুগ্ন সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম ও দক্ষিণ জেলার সভাপতি আবদুল মান্নান।

ক্যাব নেতারা বলেন, প্রকল্প বাজেট পূনঃ সংশোধন করে ব্যয় বাড়িয়ে রাষ্ট্রীয় সম্পদের লুণ্ঠন হলেও কেউ এর ব্যাখ্যা চায়নি। প্রকল্পের নজরদারিতে বোর্ড সদস্যদেরকে সম্পৃক্ত করা হয়নি। ব্যবস্থাপনা পরিচালক নিজের ইচ্ছা অনুযায়ে ব্যয় বৃদ্ধি করেন।

বিবৃতিতে ক্যাব নেতারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, নগরে পানি সংকট হলে ওয়াসা বিভিন্ন প্রকল্পের দোহাই দিয়ে প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু প্রতিশ্রুত সময়ের পর তাদের সেই প্রতিশ্রুতির কোন ফল নগরবাসী পায় না।

‘এর মূল কারণ অপরিকল্পিত ও ঠিকাদার নির্ভর উন্নয়ন প্রকল্প, নিন্মমানের উপকরণ ব্যবহার, সরবরাহ লাইনে ত্রুটি, পানি চুরি ও বিলিং ব্যবস্থার ত্রুটি দূর না করা।

বিবৃতিতে বলা হয়, সেবার মান উন্নয়নে গ্রাহকদের সাথে মতবিনিময়ের নামে পাঁচ তারাকা হোটেলে কয়েকজন অনুগত গ্রাহক নিয়ে গ্রাহক সভা আয়োজন করে প্রতারণা করেছে ওয়াসা। নগর জুড়ে পানির জন্য হাহাকার থাকলেও ওয়াসা তা স্বীকার করতে নারাজ।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৫ ঘণ্টা, মে ১১, ২০১৯
এসইউ/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম ওয়াসা চট্টগ্রাম ওয়াসা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-11 21:58:12