ঢাকা, সোমবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২০ মে ২০১৯
bangla news

শবে বরাতে মসজিদে মুসল্লির ঢল

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-২১ ৯:৪৬:৫৫ পিএম
শবে বরাত উপলক্ষে মসজিদগুলো সাজানো হয়েছে দৃষ্টিনন্দন সাজে। ছবি: সোহেল সরওয়ার

শবে বরাত উপলক্ষে মসজিদগুলো সাজানো হয়েছে দৃষ্টিনন্দন সাজে। ছবি: সোহেল সরওয়ার

চট্টগ্রাম: পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে এশার নামাজে চট্টগ্রামের মসজিদগুলোতে মুসল্লিদের ঢল নেমেছে। বাড়তি মুসল্লির চাপ সামলাতে কোথাও কোথাও মসজিদের ছাদ, পাশের সড়কেও নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বড় বড় মসজিদগুলোর সামনে বসেছে আতর, টুপি, সুরমা, জায়নামাজ, তসবিহ, ধর্মীয় বই-পুস্তিকার ভাসমান দোকানও।

রাত জেগে মুসল্লিরা যাতে এবাদত করতে পারেন সে লক্ষ্যে শবে বরাতের তাৎপর্য নিয়ে আলোচনা, খতমে কোরআন, মিলাদ, কিয়াম, জিকির, তাহাজ্জুতসহ বিভিন্ন ধরনের নফল নামাজ, মোনাজাতের ব্যবস্থা করা হয়েছে।   

রোববার (২১ এপ্রিল) রাতে সরেজমিন এমন চিত্র দেখা গেছে।

হজরত শাহসুফি আমানত খান (র.) মাজারে মোনাজাত করছেন সাজ্জাদানশীন বেলায়েত উল্লাহ খান দামপাড়া জমিয়তুল ফালাহ মসজিদে বাবার হাত ধরে নামাজ আদায়ে যাচ্ছিলেন কিশোর আবিদ আবরার। সে বললো, আজ সৌভাগ্যের রাত। বরাত বণ্টনের রাত। তাই মসজিদে যাচ্ছি। সেখানে অনেক মুসল্লি একসঙ্গে মোনাজাত করবেন। মা বলেছেন, তাদের উসিলায় দোয়া কবুল হবে।

আল্লাহর কাছে কী চাইবে এমন প্রশ্নের উত্তরে সে বললো, ভালোভাবে পড়াশোনা করার জন্য দোয়া চাইব। দেশসহ বিশ্বের শান্তি ও কল্যাণের জন্য দোয়া চাইব।

শবে বরাত উপলক্ষে নগর ও জেলার দরগাহ-মাজার, খানকাগুলোতেও ভক্তদের ভিড় উপচেপড়া। কোরআন তেলাওয়াত, জেয়ারত, খতমে খাজেগান, খতমে ইউনুস, জিকির, মিলাদ, কিয়ামে মশগুল সবাই।

লালদীঘির হজরত শাহসুফি আমানত খান (র.) দরগাহে মাগরিব নামাজের পর থেকে ভক্তদের সমাগম হতে থাকে। যত রাত বাড়ে তত ভিড় বাড়তে শুরু করে।

সাজ্জাদানশীন বেলায়েত উল্লাহ খান (ম জি আ) বাংলানিউজকে বলেন, এ রাতে আল্লাহ ক্ষমা, জীবিকা, বিপদগ্রস্তদের আহ্বান করেন। এ রাত হচ্ছে আল্লাহর নৈকট্য হাসিলের রাত।    

শাহ সুফি আমানত খান ফাউন্ডেশন আয়োজিত লাইলাতুল বরাতের আলোচনা সভা পরিচালনা করেন  শাহজাদা সৈয়দ মো. হাবীব উল্লাহ খান মারুফ। আলোচনায় অংশ নেন শাহজাদা আরিফ উল্লাহ খান তায়িফ শাহ, শিল্পপতি তানভীর খান, মুফতি আল্লামা জহিরুল হক, আল্লামা মো. মঈনুদ্দিন প্রমুখ।

শবে বরাতে বিশেষ কর্মসূচি ছিল নগরের হজরত গরিবুল্লাহ শাহ (র.), মিছকিন শাহ (র.), বদনা শাহ (র.), হজরত হাফেজ মুনির উদ্দিন (র.), নজির শাহ (র.) মাজার, আলমগীর খানকাহ শরিফ, ফটিকছড়ির মাইজভাণ্ডার শরিফ, আনোয়ারার শাহ মোহছেন আউলিয়া (র.) দরগাহে।

এদিকে পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে এক বিবৃতিতে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, শবে বরাত প্রত্যেক মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের কাছে মহিমান্বিত রাত। এ রাতে মানবজাতিকে আল্লাহর বিশেষ অনুগ্রহ ও ক্ষমা লাভের অপার সুযোগ এনে দেয়।

তিনি সবার জন্য ক্ষম, বরকত, দেশের সমৃদ্ধি ও কল্যাণ কামনা করেন বিবৃতিতে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪০ ঘণ্টা, এপ্রিল ২১, ২০১৯
এআর/টিসি

 

 

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14