ঢাকা, শনিবার, ৭ বৈশাখ ১৪২৬, ২০ এপ্রিল ২০১৯
bangla news

দীর্ঘায়ুর স্বপ্নে ভোরে হাঁটেন তারা

জমির উদ্দিন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-২১ ১০:১৫:০৮ এএম
ডিসি হিলে আসা প্রাতঃভ্রমণকারীরা। ছবি: উজ্জ্বল ধর

ডিসি হিলে আসা প্রাতঃভ্রমণকারীরা। ছবি: উজ্জ্বল ধর

চট্টগ্রাম: নগরের জামালখান এলাকার বাসিন্দা ৭৫ বছরের প্রদীপ চৌধুরী। কাকডাকা ভোরে বেরিয়ে পড়ার অভ্যাস তার। এ বয়সেও ডিসি হিলে প্রতিদিন এক ঘণ্টা সময় কাটান তিনি। ৩০ মিনিট হাঁটেন আর বাকি সময়টুকু ব্যায়াম করেন।

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সেই প্রদীপ চৌধুরীকে দেখা গেল হাল্কা রোদে হাঁটতে! ঘড়িতে তখন সকাল ৮টা। অন্যদিন এসময়ে ব্যায়াম শেষ করলেও, এদিন আরও জোরে হাঁটছিলেন তিনি।

দীর্ঘ সময় ধরে ব্যায়াম করার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বললেন, আগে থেকে ডায়াবেটিস, গ্যাস্ট্রিক, শ্বাসকষ্ট ও প্রশ্রাবের সমস্যাতো আছেই, এবার রোগের খাতায় যোগ হলো প্রেশার। সুস্থ থাকতে চিকিৎসকের পরামর্শে তাই হাঁটার সময় বাড়িয়ে দিয়েছি।

ডিসি হিলে ব্যায়াম করছেন প্রাতঃভ্রমণকারীরা। ছবি: উজ্জ্বল ধরকাজির দেউড়ী এলাকার বাসিন্দা ৭০ বছরের চন্দ্রনাথ সেন। এক ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে তার সংসার। তিনিও ডিসি হিলে নিয়মিত হাঁটতে আসেন। তার ডায়াবেটিস থাকলেও প্রতিদিন হেঁটে তা নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এসেছেন।

চন্দ্রনাথ সেন বাংলানিউজকে বলেন, আমি অনেক বছর ধরে হাঁটছি। সুস্থ থাকার জন্য হাঁটার কোনো বিকল্প নেই। প্রতিদিন ব্যায়াম করি বলেই ডায়াবেটিস ছাড়া আর কোনো রোগ নেই। চিকিৎসকরাও চেম্বারে গেলে হাঁটার জন্য পরামর্শ দেন।

শুধু প্রদীপ চৌধুরী কিংবা চন্দ্রনাথ সেন নন, ডিসি হিলে প্রতিদিন সকাল ও বিকেলে শতাধিক মানুষ হাঁটেন শুধু সুস্থভাবে ‘বেঁচে’ থাকার স্বপ্নে। এখানে তরুণ-তরুণী যেমন হাঁটতে আসেন তেমনি বৃদ্ধ পুরুষ-মহিলারাও নিয়মিত শরীরচর্চা করেন।

ডিসি হিলে আসা প্রাতঃভ্রমণকারীরা। ছবি: উজ্জ্বল ধরডিসি হিলে আসা বেশ ক’জন প্রাতঃভ্রমণকারীর সঙ্গে কথা বলে নানান রোগে আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে কেউ হৃৎপিণ্ডের সমস্যা, কেউ রক্তচাপের সমস্যা আর কেউবা শ্বাসকষ্ট ও কিডনিজনিত সমস্যা, স্থূলতা রুখতে, ডায়াবেটিসের সমস্যা, বাত-ব্যথা, স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করতে নিয়মিত হাঁটেন। তবে চল্লিশোর্ধ্ব মানুষের ক্ষেত্রে বেশিরভাগই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে হাঁটছেন।

জীবন বীমা করপোরেশনের ডেপুটি ম্যানেজার মো. নাজমুল হক বাংলানিউজকে বলেন, ডায়াবেটিস ও হার্টের সমস্যা ছিলো। নিয়মিত হাঁটার কারণে ডায়াবেটিস যেমন নিয়ন্ত্রণে এসেছে, তেমনি হার্টের সমস্যাও অনেকটা মিটে গেছে। তারপরও নিয়মিত হাঁটছি নিজেকে সুস্থ রাখতে।

নিয়মিত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম নেই ডিসি হিলে। ছবি: উজ্জ্বল ধরপরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতায় গাফেলতি

এখানে হাঁটতে আসা অনেকেই দাবি জানিয়েছেন, ডিসি হিল যেন আরও একটু পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা হয়।

সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা রতন কান্তি চৌধুরী বলেন, নিউমার্কেট, কাজির দেউড়ী, জামালখান এমনকি লালখান বাজার থেকেও এখানে মানুষ হাঁটতে আসে। কিন্তু ডিসি হিলের প্রবেশমুখে বৌদ্ধ মন্দিরের সামনের অংশে বেশ কয়েকদিন ধরে উৎকট গন্ধ ছড়াচ্ছে। মনে হয় কোনো প্রাণী মরে পচে গেছে। এছাড়া ওয়াকওয়ের আশপাশের জায়গা পরিষ্কার রাখলে আরও ভালো হতো। ভ্রাম্যমাণ মানুষের নেশাদ্রব্য গ্রহণ বন্ধ করার ব্যাপারে এখানকার নিরাপত্তাকর্মীদের দৃষ্টি দেয়া প্রয়োজন।

সম্প্রতি সোয়া এক ঘণ্টা ধরে ঝাড়ু হাতে ডিসি হিলের ময়লা-আবর্জনা সাফ করার কাজে অংশ নেন এখানে প্রায় হাঁটতে আসা সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। সকালে প্রাতঃভ্রমণ ও ইয়োগা অনুশীলন করা মানুষদের সংগঠন ইয়োগা প্রভাতী মাঝেমধ্যে ডিসি হিল প্রাঙ্গণ পরিষ্কারের উদ্যোগ নেয়।

একসঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়ে চলছে ব্যায়াম। ছবি: উজ্জ্বল ধরপ্রতিদিন হাঁটতে গিয়ে প্রাতঃভ্রমণকারীদের মধ্যে গড়ে উঠেছে হৃদ্যতা। তারা গঠন করেছেন কয়েকটি সংগঠন। এর মধ্যে শতায়ু অঙ্গন, উজ্জীবন, প্রভাতী আসর, দীর্ঘায়ু, চিরঞ্জীব হেলথ ক্লাব, ইউনিটিসহ আরও কয়েকটি সংগঠন রয়েছে।

প্রতিদিন সকালে ডিসি হিলের নজরুল মঞ্চের সামনে প্রায় শতাধিক মানুষ একসঙ্গে আওয়াজ তুলে ব্যায়াম করেন। এরপর কয়েকজন মিলে খেলেন ফুটবল।

একসঙ্গে ব্যায়াম করার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে  ডিসি হিলে আসা প্রবীর চৌধুরী বলেন, ‘একা একা ব্যায়াম করলে বেশিক্ষণ করা যায় না। একসাথে ব্যায়াম করলে সহজে ক্লান্তি আসে না। ঘাম ঝরানোর পর সবাই একসাথে ডাবের পানি খাই।’

জানতে চাইলে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. কামাল হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, ডিসি হিল অপরিষ্কার থাকার বিষয়ে খবর নেওয়া হবে।

ডিসি হিলে কাকডাকা ভোরে হাঁটছেন প্রবীণ প্রদীপ চৌধুরী। ছবি: বাংলানিউজবিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের অভিমত

অতিরিক্ত চর্বিযুক্ত খাবার গ্রহণ, অনিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভ্যাস, ধূমপান, মাদক গ্রহণের ফলে  রক্তনালি সরু হয়ে মানুষ হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হয়। তাই শরীর সুস্থ রাখতে এসব খাদ্যাভ্যাস বর্জন করার পাশাপাশি শরীর চর্চা করার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. রিজোয়ান রেহান বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের কাছে চল্লিশোর্ধ্ব অনেক রোগী আসেন যাদের বেশিরভাগই হৃদরোগে আক্রান্ত। হৃদরোগ থেকে রেহাই পেতে হলে নিয়মমাফিক হাঁটার অভ্যাস করতে হবে। খাবারের তালিকায় শাক-সবজি, ছোট মাছ রাখতে হবে।

সবুজ প্রকৃতির সঙ্গে মিতালী গড়েছে ডিসি হিল। ছবি: উজ্জ্বল ধরহাঁটার জন্য আরও উন্মুক্ত জায়গা দরকার

নগরে জনসংখ্যার চাপ যেমন বাড়ছে, তেমনি রোগ ব্যাধিও মানুষের শরীরে বাসা বাঁধছে। এ জন্য চিকিৎসকের কাছে রোগী গেলেই প্রথম পরামর্শ দেন হাঁটার। কিন্তু অপরিকল্পিত নগরায়নের ফলে হাঁটার জায়গা কমে যাচ্ছে। ডিসি হিল, চকবাজারের প্যারেড মাঠ, সিআরবিসহ হাতেগোনা কয়েকটি উন্মুক্ত জায়গা আছে যা জনসংখ্যার তুলনায় পর্যাপ্ত নয়। তাই প্রাতঃভ্রমণকারীরা নগরে আরও কয়েকটি হাঁটার জন্য উন্মুক্ত জায়গা তৈরী করার দাবি তুলেছেন। কেউ কেউ ওয়ার্ডভিত্তিক হাঁটার জায়গা তৈরি করার কথাও বলেছেন।

নগর পরিকল্পনাবিদ একেএম রেজাউল করিম বাংলানিউজকে বলেন, আগ্রাবাদের ডেবার পাড়, পাহাড়তলীর দীঘি এলাকাসহ আরও কয়েকটি খোলা জায়গা আছে। এখনও সময় আছে এগুলো রক্ষা করার। এগুলো যদি সংস্কার করে হাঁটার জায়গা করে দেয়া যায়, তবে নগরবাসী উপকৃত হবে। আগামী ৫ বছর পর এসব খোলা জায়গা দখল হয়ে যেতে পারে। তাই এখনই উদ্যোগ নিতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১০২০ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০১৯
জেইউ/এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14