ঢাকা, বুধবার, ১২ আষাঢ় ১৪২৬, ২৬ জুন ২০১৯
bangla news

৬ সেকেন্ডে তালা ভাঙেন জাহাঙ্গীর!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-১৩ ২:৫১:৪৬ পিএম
গ্রেফতার চার আসামি। ছবি: বাংলানিউজ

গ্রেফতার চার আসামি। ছবি: বাংলানিউজ

চট্টগ্রাম: মাত্র ৬ সেকেন্ডেই যেকোনো ধরনের তালা ভাঙা বা খুলতে সক্ষম জাহাঙ্গীর আলম (৪০)। দিনের বেলা পুরাতন কাপড় কেনার ছদ্মবেশে মাথায় টুকরি নিয়ে বিভিন্ন বাসায় যান। টুকরিতে থাকে তালা ভাঙার সরঞ্জাম। টার্গেট করেন বাইরে থেকে তালাবন্ধ বাসাকে। অল্প সময়ে চুরি করে সটকে পড়েন জাহাঙ্গীর।

বুধবার (১৩ মার্চ) দুপুরে কোতোয়ালী থানায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন।

বুধবার ভোরে কোতোয়ালী থানার পুরাতন স্টেশন রোড থেকে জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেফতার গ্রেফতার করে কোতোয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক সজল দাশের নেতৃত্বে একটি টিম। এ সময় রেহেনা বেগম (৪৫) নামে জাহাঙ্গীরের এক সহযোগীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

জাহাঙ্গীর আলম চন্দনাইশ উপজেলার ইসলামিয়াবাদ পশ্চিম কেশুয়া এলাকার নুরুল ছফার ছেলে। রেহেনা বেগম পটিয়া উপজেলার জংশনপাড়া এলাকার জানে আলমের স্ত্রী।

ওসি মোহাম্মদ মহসীন জানান, ‘নগরের বিভিন্ন থানা এলাকায় চুরি করে বেড়ায় জাহাঙ্গীর আলম। বিশেষ করে সকালে বা দুপুরে চুরি করে থাকে। বাসা তালাবদ্ধ করে বাচ্চাকে স্কুল থেকে আনতে গেলে ওই সময়টাকে বেছে নেয় চুরির জন্য।’

তিনি জানান, ‘মাত্র ৬ সেকেন্ডেই যেকোনো ধরনের তালা ভাঙা বা খুলতে সক্ষম জাহাঙ্গীর। দিনের বেলা পুরাতন কাপড় কেনার ছদ্মবেশে মাথায় টুকরি নিয়ে বিভিন্ন বাসায় যান। টুকরিতে থাকে তালা ভাঙার সরঞ্জাম। টার্গেট করেন বাইরে থেকে তালাবন্ধ বাসাকে। অল্প সময়ে চুরি করে সটকে পড়েন জাহাঙ্গীর।’

জাহাঙ্গীর আলম ও রেহেনা বেগমের কাছ থেকে ১৪৫টি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের চোরাই মোবাইল, ১০৬ জোড়া জুতা, কাপড়সহ বিভিন্ন চোরাই মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান ওসি মোহাম্মদ মহসীন।

চুরি ও তালা ভাঙার কৌশল সম্পর্কে পুলিশের কাছে স্বীকার করেন জাহাঙ্গীর আলম। কীভাবে তালা ভাঙেন তাও পুলিশ কর্মকর্তাদের দেখান তিনি।

‘ভাড়ায় খাটেন সন্ত্রাসী অলি ও কামরুল’

পুলিশের হাতে গ্রেফতার অলি উল্লাহ মামুন প্রকাশ অলি (২৩) ও মো. কামরুল হাসান প্রকাশ হাছান (২৫) রেয়াজউদ্দিন বাজার এলাকায় যেকোনো অপরাধমুলক কর্মকাণ্ডে ‘ভাড়ায় খাটেন’ বলে জানিয়েছেন ওসি মোহাম্মদ মহসীন।

উদ্ধার হওয়া চোরাই মোবাইল। ছবি: বাংলানিউজবুধবার ভোরে অলি উল্লাহ মামুন প্রকাশ অলি ও মো. কামরুল হাসান প্রকাশ হাছানকে ধারালো অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেন কোতোয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক মৃণাল কান্তি মজুমদারের নেতৃত্বে একটি টিম।

অলি উল্লাহ মামুন প্রকাশ অলি সাতকানিয়া উপজেলার পূর্ব গাটিয়াডাঙ্গা চরপাড়া এলাকার আবু তাহেরের ছেলে ও মো. কামরুল হাসান প্রকাশ হাছান একই উপজেলার কালিয়াইশ পশ্চিম কাঠগড় এলাকার মীর আহমদের ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে ওসি মোহাম্মদ মহসীন জানান, ‘অলি উল্লাহ মামুন প্রকাশ অলি ও মো. কামরুল হাসান প্রকাশ হাছান রেয়াজউদ্দিন বাজার এলাকায় যেকোনো অপরাধমুলক কর্মকাণ্ডে ভাড়ায় খাটেন। অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে জায়গা দখল, দোকান দখল থেকে শুরু করে যেকোনো কাজ তারা করেন। তাদের কিছু বড় ভাই আছেন তাদের কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে এর আগে। অন্যদেরও গ্রেফতারের চেষ্ট চলছে।’

সংবাদ সম্মেলনে কোতোয়ালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামরুজ্জামানসহ অভিযান পরিচালনাকারী টিমের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৪ ঘণ্টা, মার্চ ১৩, ২০১৯
এসকে/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-03-13 14:51:46