ঢাকা, রবিবার, ১০ ভাদ্র ১৪২৬, ২৫ আগস্ট ২০১৯
bangla news

ব্যবসা-বাণিজ্যের কেন্দ্রবিন্দু হবে চট্টগ্রাম: জব্বার

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-১১ ১:৫০:০৫ পিএম
বক্তব্য দেন ডাক টেলিযোগাযোগ ও প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

বক্তব্য দেন ডাক টেলিযোগাযোগ ও প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

চট্টগ্রাম: শিল্পনগর, বন্দরনগর চট্টগ্রাম আগামীতে ডিজিটাল ব্যবসা বাণিজ্যের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন ডাক টেলিযোগাযোগ ও প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

সোমবার (১১ মার্চ) শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপন ও জেলা পর্যায়ে আইটি/হাইটেক পার্ক স্থাপন (১২ জেলা) প্রকল্পে জমি প্রদানকারী চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) সঙ্গে হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

নগর ভবনের চসিক সভাকক্ষে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ও হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম।

মন্ত্রী বলেন, কৃষি প্রধান দেশ বাংলাদেশ। বিশ্বে শিল্প বিপ্লব, বিদ্যুৎ বিপ্লব ও ইন্টারনেট বিপ্লব ঘটেছে। তলাহীন ঝুড়ির দেশ বলেছিল কিসিঞ্জার। দেশে সঠিকভাবে নগরায়ণ ও শিল্পবিপ্লব হয়নি।

চট্টগ্রামের একটি বিদ্যালয় পরিদর্শনের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ, জীবনযাপনের রূপান্তর শিশুরা জানে। চট্টগ্রাম ডিজিটাল যুগে পেছনে পড়ে থাকতে পারে না। চতুর্থ বিপ্লব হাইটেক পার্ক। চট্টগ্রামে কোথায় এ পার্ক হবে বুঝতে পারছিলাম না। মেয়র ম্যাজিকের মতো জায়গা দেখালেন। আমি অভিভূত হলাম। কোনো প্রশ্ন, শর্ত ও বিধিবিধান ছাড়া একবাক্যে জায়গা দিয়ে দিলেন।

মন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রাম শিল্পনগর হিসেবে পরিচিত। মিরসরাইয়ে ইকোনমিক জোন হচ্ছে। আগামী ৫ বছরে সব কারখানায় ডিজিটাল প্রযুক্তি কাজে লাগাতে হবে। দেশে এমন কোনো ইউনিয়ন থাকবে না যেখানে হাইস্পিড ইন্টারনেট থাকবে না। ইন্টারনেট একটি অবকাঠামো।

উন্নত বিশ্বের মানুষ ৫জি দিয়ে কথা বলছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ৫জি কী করতে পারে তা আমরা আন্দাজও করতে পারিনি। বন্দরের জাহাজ চলাচল বা চসিকের দৈনন্দিন কার্যক্রম নির্ভর করবে প্রযুক্তির ওপর। মেয়র দূরদর্শিতার সঙ্গে চট্টগ্রামের ভবিষ্যৎ দেখেছেন। চট্টগ্রামের অবস্থান ভিন্ন। সারা বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ চট্টগ্রামের রয়েছে। ঢাকায় তো সমুদ্রবন্দর নেই। চট্টগ্রাম ডিজিটাল ব্যবসা বাণিজ্যের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবে। বাংলাদেশ রূপান্তরের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রাম ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে চট্টগ্রামকে সহায়তা করা মানে বাংলাদেশ সহায়তা করা। চট্টগ্রামের উন্নয়ন মানে বাংলাদেশের উন্নয়ন। গ্রামকে শহর করবো এটা আমাদের প্রতিজ্ঞা। আমরা ডিজিটাল চট্টগ্রাম তৈরি করতে সহযোগিতা করবো। সেবা ও জীবনযাপনে প্রযুক্তির সহায়তা কাজে লাগবে। হাইটেক পার্ক এ ক্ষেত্রে সহায়তা হবে।

তিনি বলেন, আমাদের বড় সম্পদ মানুষ। ৬৫ ভাগ মানুষের বয়স ৩৫ বছরের নিচে। ডিজিটাল সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে পারলে বিশ্বজয় করতে পারবো।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪০ ঘণ্টা, মার্চ ১১, ২০১৯
এআর/এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-03-11 13:50:05