ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৩ মে ২০১৯
bangla news

ব্রান্ডের ঘি তৈরিতে লাল সার, ক্ষতিকর রং!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০২-১২ ২:৪৭:০৬ পিএম
ভেজাল ঘি কারখানায় অভিযান পরিচালনা করেন ইউএনও রুহুল আমিন। ছবি: বাংলানিউজ

ভেজাল ঘি কারখানায় অভিযান পরিচালনা করেন ইউএনও রুহুল আমিন। ছবি: বাংলানিউজ

চট্টগ্রাম: হাটহাজারীর ১১ মাইল এলাকায় ভেজাল ঘি তৈরির কারখানায় অভিযান পরিচালনা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় ভেজাল ঘি তৈরির উপকরণ হিসেবে ব্যবহৃত লাল সার, ডালডা, পামওয়েল, ফ্লেভার, ক্ষতিকর রং সহ বিভিন্ন উপকরণ জব্দের পাশাপাশি ১ হাজার ২০০ লিটার ভেজাল ঘি নষ্ট করা হয়।

মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে স্থানীয় কবির চেয়ারম্যানের ভাড়া বাসায় পরিচালিত এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমিন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) সম্রাট খীসা।

ব্রান্ডের ঘি তৈরিতে লাল সার, ক্ষতিকর রং। ছবি: বাংলানিউজরুহুল আমিন বাংলানিউজকে জানান, জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর বিভিন্ন উপকরণ দিয়ে বাঘাবাড়ি স্পেশাল খাঁটি গাওয়া ঘি, গোল্ডেন এসপি, গোল্ডেন পি এস, গোল্ডেন স্পেশাল, আরএস রাজেশ ঘোষ সুপারসহ অন্তত ১০টি ব্রান্ডের ঘি কারখানায় তৈরি করে বাজারজাত করছিলো একটি চক্র। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

তিনি বলেন, অভিযানে ভেজাল ঘি তৈরির উপকরণ হিসেবে ব্যবহৃত লাল সার, ডালডা, পামওয়েল, ফ্লেভার, ক্ষতিকর রং সহ বিভিন্ন উপকরণ জব্দের পাশাপাশি ১ হাজার ২০০ লিটার ভেজাল ঘি নষ্ট করা হয়। তবে কারখানার মালিক পালিয়ে যাওয়ায় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া যায়নি।

‘যারা জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ভেজাল খাদ্য তৈরি করবে এবং ভেজাল খাদ্য বিক্রি করবে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ যোগ করেন রুহুল আমিন।

এদিকে সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাতেও একই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় প্রায় ১ হাজার ৫০০ লিটার ভেজাল ঘি নষ্ট করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯
এমআর/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-02-12 14:47:06