[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ কার্তিক ১৪২৫, ১৬ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

দেড় হাজার দর্শকের সুইমিং পুল তৈরি

মিজানুর রহমান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১০-০৮ ৯:৫৪:৩৪ পিএম
চট্টগ্রামের প্রথম আন্তর্জাতিক মানের সুইমিং কমপ্লেক্স। ছবি: সোহেল সরওয়ার

চট্টগ্রামের প্রথম আন্তর্জাতিক মানের সুইমিং কমপ্লেক্স। ছবি: সোহেল সরওয়ার

চট্টগ্রাম: অপেক্ষার প্রহর শেষ। এবার উদ্বোধনের পালা। স্বাধীনতার পরে এই প্রথম চট্টগ্রাম পাচ্ছে আন্তর্জাতিক মানের সুইমিং কমপ্লেক্স। নগরের আউটার স্টেডিয়ামে প্রায় সাড়ে ১১ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এ সুইমিং কমপ্লেক্সটি চলতি মাসেই চালু করা হচ্ছে।

চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থা (সিজেকেএস) সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালের মার্চে ১১ কোটি ৬১ লাখ টাকা ব্যয়ে চট্টগ্রামের প্রথম আন্তর্জাতিক মানের সুইমিং কমপ্লেক্সটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়। প্রায় এক একর জায়গা জুড়ে নির্মিত হওয়া এ সুইমিং কমপ্লেক্সে রয়েছে ৫০ মিটার দৈর্ঘ্য, ২২ মিটার প্রস্ত এবং ১.৮ মিটার গভীর ৮ লাইনের একটি সুপেয় পানির সুইমিং পুল।

চট্টগ্রামের প্রথম আন্তর্জাতিক মানের সুইমিং কমপ্লেক্স। ছবি: সোহেল সরওয়ারএছাড়াও আন্তর্জাতিক মানের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে সুইমিং কমপ্লেক্সটিতে থাকছে খোলোয়াড়দের জন্য অত্যাধুনিক ড্রেসিং রুম, প্লেয়ার্স লাউঞ্জ, ১ হাজার ৫০০ দর্শকের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন গ্যালারি, বিশুদ্ধ পানির পিউরিফিকেশন প্লান্ট, ডিপ টিউবওয়েল, নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য ২৫০ কেভি’র বিদ্যুৎ সাব স্টেশন এবং নিজস্ব পার্কিংয়ের ব্যবস্থা।

সোমবার (৮ অক্টোবর) সরেজমিনে সুইমিং কমপ্লেক্স ঘুরে দেখা গেছে, কমপ্লেক্সটির নির্মাণ কাজ প্রায় শেষ। কমপ্লেক্সের বাইরে পার্কিংয়ের জায়গায় ঢালাইয়ের কাজ চলছে। ভিতরে শেষ মুহূর্তের ধোয়া-মোছা, রং করা এবং ইলেকট্রিক বাল্ব লাগানোর কাজ করছেন কিছু শ্রমিক।

সুইমিং কমপ্লেক্স পরিদর্শন করেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন  । ছবি: সোহেল সরওয়ারসুইমিং কমপ্লেক্স নির্মাণ প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এম জামান বিল্ডার্স এর প্রজেক্ট ডিরেক্টর মো. আরমান চৌধুরী বাংলানিউজকে জানান, সুইমিং কমপ্লেক্স নির্মাণের কাজ প্রায় ৯৫ শতাংশ শেষ। প্রায় দুইশ শ্রমিক কয়েকটি শিফটে এখন শেষ মুহুর্তের কাজগুলো করছেন। সব মিলিয়ে ১৫ দিনের মধ্যেই আমরা প্রকল্পটি জাতীয় ক্রীড়া সংস্থার (এনএসসি) মাধ্যমে চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থা (সিজেকেএস) কে বুঝিয়ে দিতে পারবো।

এনএসসির সাব অ্যাসিসটেন্ট ইঞ্জিনিয়ার জাহিদ হোসেন বাংলানিউজকে জানান, দেশের অন্যান্য বিভাগীয় শহরগুলোতে সুইমিং কমপ্লেক্স থাকলেও চট্টগ্রামে এতোদিন ছিলো না। সিজেকেএস সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এনএসসি এ প্রকল্পটি হাতে নেয়। ইতোমধ্যে প্রায় কাজ শেষ, আশা করছি চলতি মাসেই এটি উদ্বোধন করা যাবে।

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, অন্যান্য শহরের সুইমিং কমপ্লেক্সের সঙ্গে চট্টগ্রামের সুইমিং কমপ্লেক্সটির কিছু পার্থক্য আছে। এটি দেশের সর্বাধুনিক এবং আন্তর্জাতিক মান সম্পন্ন সুইমিং কমপ্লেক্স। পানির পিউরিফিকেশন ফিল্টারের কারণে এটি অনন্য।

চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বাংলানিউজকে বলেন, চট্টগ্রামে একটি আন্তর্জাতিক মানের সুইমিং পুলের অভাব ছিল। বর্তমান সরকার সেটি পূরণ করেছে। নির্মাণকাজ প্রায় শেষ। মাসখানেকের মধ্যেই এটি উদ্বোধন করা হবে।

সুইমিং পুলটি চালু হলে চট্টগ্রাম থেকেই দেশ সেরা সাতারু উঠে আসবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩০ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৮, ২০১৮
এমআর/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa