ঢাকা, মঙ্গলবার, ৪ আষাঢ় ১৪২৬, ১৮ জুন ২০১৯
bangla news

বিন্দু থেকে সিন্ধু শতবর্ষী সমবায় ‘ব্যাংক’

আল রাহমান, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৯-৩০ ৮:২২:০৭ পিএম
ধলঘাট আর্বান সমবায় সমিতি লিমিটেড। ছবি: সোহেল সরওয়ার

ধলঘাট আর্বান সমবায় সমিতি লিমিটেড। ছবি: সোহেল সরওয়ার

পটিয়া থেকে: প্রীতিলতাসহ বিপ্লবীদের স্মৃতিধন্য পটিয়ার ধলঘাটায় ব্যাংক বলতে মানুষ ধলঘাট আর্বান সমবায় সমিতি লিমিটেডকে বোঝে। শতবর্ষী ব্যাংকটি ‘সমবায় শক্তি, সমবায় মুক্তি’ স্লোগানে সগৌরবে আলো ছড়াচ্ছে পুরো জনপদে।

১৯১৮ সালের ৩ জুলাই কবি শশাঙ্ক মোহন সেন, যামিনী রঞ্জন চৌধুরী, হিমাংশু বিমল দাশ, দ্বিজেন্দ্রনাথ দাশ, হরিলাল দত্ত প্রমুখ এ সমিতি প্রতিষ্ঠা করেন। ২০১৮ সালের মার্চে শতবর্ষ উদযাপন করা হয়। শতবর্ষী সমবায় সমিতিটি নিয়ে গর্ব করেন সমিতির সদস্য, উপকারভোগীসহ স্থানীয় লোকজন। ফলে ঐতিহ্যবাহী পটিয়ার অন্যতম ঐতিহ্যে পরিণত হয়েছে ব্যাংকটি।

বর্তমানে দোতলা ভবনে সমিতির কার্যক্রম পরিচালনা করছে নির্বাচিত পর্ষদ। তিন বছর পর পর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সদস্যরাই নির্বাচিত করেন সমিতির সভাপতি, সহ-সভাপতি, সম্পাদক ও সদস্যদের।    

বর্তমানে ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে আছেন চন্দন দাশ। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, এখন ধলঘাট আর্বান সমবায় সমিতি লিমিটেডের সদস্য সংখ্যা ৩ হাজার ৫০০। সঞ্চয়ী গ্রাহক আছেন ১০ হাজার ৬ জন। প্রতিবছর সদস্যরা ২০-৩০ শতাংশ পর্যন্ত লভ্যাংশ পেয়ে থাকে। ৮ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত আর্থিক সেবা দিয়ে থাকেন সদস্য ও গ্রাহকদের।বর্তমানে সমিতির তহবিলে আছে প্রায় ৫ কোটি টাকা।

দিনভর কর্মব্যস্ত থাকে ধলঘাট আর্বান সমবায় সমিতি লিমিটেড

তিনি জানান, সমিতির গ্রাহকদের জন্য ছাপানো চেক বই, জমা বই, আমানতের পাস বই, নমুনা সইয়ের স্লিপ, গ্রামীণ ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্পের বই রয়েছে।সদস্য হতে হলে ২০ টাকায় ভর্তি ফরম, ২০০ টাকা সঞ্চয়, ২০টি ১০ টাকা দামের শেয়ার, ২০ টাকা ভর্তি ফি, ২০ টাকা জমা পাস বই, ৪০ টাকায় উপ-আইন, ৫০ টাকায় ম্যাগাজিন কিনতে হয়। সঙ্গে দিতে হয় ৬ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি, নমিনির ছবি ও পরিচয়পত্রের ২ কপি।

সমিতি থেকে সর্বনিম্ন ১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত ১০০ টাকা কিস্তিতে ১০ বছর মেয়াদি ঋণ দেওয়া হয়। ৭৫ হাজার টাকা ঋণ নিলে কিস্তি ৫০০ টাকা।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাইলে সমিতির সভাপতি রনবীর ঘোষ বাংলানিউজকে বলেন, এ সমিতি হাজারো মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করেছে। সরল সুদে ঋণ দিয়ে দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়েছে। গরিব-মেধাবী শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে। আগামীতে সমবায় ভবন তৈরি হলে কুটির শিল্প কারখানা ও বিক্রয়কেন্দ্র খোলা হবে দুইটি। কম্পিউটার আউটসোর্সিং প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। সরকারের পাশাপাশি শতবর্ষী এ সমিতি এলাকার উন্নয়ন ও দারিদ্র্য বিমোচনে অতীতের মতো ভূমিকা রাখবে।  

শতবর্ষী ধলঘাট আর্বান সমবায় সমিতি লিমিটেডে সংরক্ষিত আছে পুরোনো নথিও

সমিতির সাবেক সদস্য প্রবোধ রায় চন্দন বাংলানিউজকে বলেন, ব্রিটিশ আমল থেকে ঐতিহ্য ধরে রেখেছে এ সমিতি। স্বচ্ছতা, দায়িত্ববোধ ও জবাবদিহি থাকায় যার সুনাম ছড়িয়ে পড়েছে পুরো উপমহাদেশে। সমিতির প্রতিষ্ঠাদের মধ্যে ১৪ জনের ম্যুরাল স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

২০১০ সালের ৩১ জানুয়ারি নবনির্মিত দোতলা ভবন উদ্বোধন করেন পটিয়ার সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরী।  

বাংলাদেশ সময়: ২০০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮
এআর/টিসি          

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2018-09-30 20:22:07