[x]
[x]
ঢাকা, সোমবার, ৭ কার্তিক ১৪২৫, ২২ অক্টোবর ২০১৮
bangla news
সীতাকুণ্ডে পথসভা

বিরোধ ভুলে একমঞ্চে থাকবেন চার নেতা!

সরওয়ার কামাল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৯-২১ ৯:৫১:৪০ পিএম
আওয়ামী লীগের লোগো

আওয়ামী লীগের লোগো

চট্টগ্রাম: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে উত্তরবঙ্গে নির্বাচনী ট্রেনের পর এবার বহর নিয়ে সড়কপথে চট্টগ্রামে আসছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা।

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড জনগণের কাছে তুলে ধরতে ও দলীয় নেতাকর্মীদের চাঙা করতে এমন পরিকল্পনা আওয়ামী লীগের।

আওয়ামী লীগ নেতারা বহর নিয়ে শনিবার (২২ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রামে প্রথম পথসভা করবেন সীতাকুণ্ডে। পথসভাকে কেন্দ্র করে ঐক্যের সুর বাজতে শুরু করেছে চার নেতায় বিভক্ত সীতাকুণ্ড আওয়ামী লীগে।

সীতাকুণ্ড আওয়ামী লীগের রাজনীতি সংসদ সদস্য দিদারুল আলম, উপজেলা চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা যুবলীগের সভাপতি এসএম আল মামুন ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়া ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা মোস্তফা কামাল চৌধুরীর চার বলয়ে বিভক্ত। তবে বড় বিরোধ দিদারুল আলম, এসএম আল মামুন ও আব্দুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়ার মধ্যে।

এ তিন নেতার বিভক্তি নিয়ে বিব্রত সাধারণ নেতাকর্মীরাও। মোস্তফা কামাল চৌধুরী কিছু দিন নিষ্ক্রিয় থাকলেও নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আবারও সক্রিয় হতে শুরু করেছেন। অবশেষে এ চার নেতা শনিবার বিকেলে সীতাকুণ্ড উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠেয় পথসভায় একমঞ্চে উঠবেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে দীর্ঘদিনের এ বিভক্তি মেটাতে কাজ করছেন জেলা আওয়ামী লীগ ও দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতারা।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, সাবেক সংসদ সদস্য আবুল কাসেম মাস্টারের মৃত্যুর পর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রথম সহ-সভাপতি মো. ইসহাককে দলের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি করা হয়। পরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়ার সঙ্গে সংসদ সদস্য দিদারুল আলমের বিরোধের জেরে মো. ইসহাককে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দ্বিতীয় সহ-সভাপতি গোলাম মোস্তফাকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ঘোষণা করে দলের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়া রেজুলেশন করেন।

আবার দলীয় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অতিথি করা নিয়ে বিরোধ হয় এসএম আল মামুন ও আব্দুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়ার মধ্যে। এ তিন নেতার বিরোধের বাইরে আওয়ামী লীগের একটি অংশ নিয়ে আলাদা বলয় তৈরি করেছেন কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা মোস্তফা কামাল চৌধুরী।

এদিকে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের সিদ্ধান্তে সীতাকুণ্ডের পথসভায় সভাপতিত্ব করবেন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. ইসহাক ও সভা পরিচালনা করবেন সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়া।

শুক্রবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাতে বিষয়টি বাংলানিউজকে নিশ্চিত করেছেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ সালাম।

এমএ সালাম বলেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের সিদ্ধান্তে সীতাকুণ্ডের পথসভায় সভাপতিত্ব করবেন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. ইসহাক ও সভা পরিচালনা করবেন সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়া। সীতাকুণ্ডে যে বিরোধ রয়েছে আশা করি তা আর থাকবে না। তাদের সঙ্গে আমরা কথা বলেছি। পথসভায় সব নেতারা উপস্থিত থাকবেন।

তিনি বলেন, সামনে জাতীয় নির্বাচন। এমন সময় আমাদের মধ্যে বিরোধ কাম্য নয়। আওয়ামী লীগ বড় রাজনৈতিক দল। আমরা আওয়ামী লীগের কর্মী। আমাদের মধ্যে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা থাকবে এটা স্বাভাবিক। নেতৃত্বের প্রতিযোগিতাকে বিরোধ বানিয়ে ফেললে দলের ক্ষতি হবে।

পথসভার প্রস্তুতি প্রসঙ্গে এমএ সালাম বলেন, আমরা পথসভার সব প্রস্তুতি শেষ করেছি। জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে আমাদের নেতাকর্মীরা উপস্থিত থাকবেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮
এসকে/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache