bangla news

সড়ক ছেড়ে ক্লাসে ফেরার ঘোষণা চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীদের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৮-০৫ ১০:৪৩:২৫ এএম
চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসকের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের বৈঠক।  ছবি: উজ্জ্বল ধর

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসকের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের বৈঠক। ছবি: উজ্জ্বল ধর

চট্টগ্রাম: নিরাপদ সড়কসহ কয়েকটি দাবিতে আন্দোলনরত নগরের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা সড়ক ছেড়ে ক্লাসে ফেরার ঘোষণা দিয়েছেন।

রোববার (৫ আগস্ট) বিকেলে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেনের সঙ্গে বৈঠক শেষে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ক্লাসে ফিরে যাওয়ার এ ঘোষণা দেন।

বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে জেলা প্রশাসনের বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে নগরের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ২৬ শিক্ষার্থী অংশ নেন।

বৈঠকে শিক্ষার্থীরা সড়ক দুর্ঘটনায় কেউ মারা গেলে দায়ী চালকের কঠোর শাস্তি রেখে আইন তৈরি, স্কুল-কলেজের সামনে ফুটওভার ব্রিজ, স্পিড ব্রেকার, জেব্রা ক্রসিং তৈরি, সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তির পরিবারকে আর্থিক সহায়তা ও আহত ব্যক্তির চিকিৎসাসেবা, নগরে শিক্ষার্থীদের অর্ধেক বাস ভাড়া নিশ্চিত করা, শিক্ষার্থীদের জন্য স্কুল বাসের ব্যবস্থা করাসহ বিভিন্ন দাবি জেলা প্রশাসকের কাছে উপস্থাপন করেন।

শিক্ষার্থীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসক বলেন, নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করতে সরকার ইতোমধ্যে বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে। কিন্তু এসব উদ্যোগ বাস্তবায়নে কিছুটা সময় প্রয়োজন। সড়ক নিরাপদ করতে যা যা করা দরকার সবই করা হবে।

তিনি বলেন, আইন তৈরিতে সরকার কাজ করছে। প্রক্রিয়া শেষে দ্রুত এটি সংসদে পাস করা হবে। নগরের বিভিন্ন স্কুল কলেজের সামনে ফুটওভার ব্রিজ, স্পিড ব্রেকার, জেব্রা ক্রসিং তৈরির বিষয়ে সিটি করপোরেশনের সঙ্গে জেলা প্রশাসন কথা বলেছে। এসব বাস্তবায়নে সিটি করপোরেশন দ্রুত কাজ শুরু করবে।

জেলা প্রশাসক বলেন, গণপরিবহনের চালক-সহকারীরা অনেক সময় শিক্ষার্থীদের বাসে নিতে চায় না, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে দাঁড়ায় না। আমরা গণপরিবহন মালিকদের সঙ্গে বসবো। শিক্ষার্থীরা যাতে গণপরিবহনে স্বাচ্ছন্দ্যে চলতে পারে তা নিশ্চিত করা হবে।

শিক্ষার্থীরা বলেন, যেহেতু নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করার দাবি সরকার মেনে নিয়ে দ্রুত বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়েছে, তাই সড়কে আন্দোলন নয়, ক্লাসেই ফিরে যাবেন তারা।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আমিরুল কায়ছার, জেলা প্রশাসনের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) সৈয়দ মোরাদ আলী, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শান্তা রহমান, তানভির ফরহাদ শামীম প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩০ ঘণ্টা, আগস্ট ০৫, ২০১৮
এমআর/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2018-08-05 10:43:25