ঢাকা, রবিবার, ১০ ভাদ্র ১৪২৬, ২৫ আগস্ট ২০১৯
bangla news

৩৫ দশমিক ১ ডিগ্রি তাপমাত্রায় কাহিল চট্টগ্রাম

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৫-২৮ ১২:২৬:১৬ পিএম
জিইসি মোড়ের সেন্ট্রাল প্লাজার সামনে গরমে কাহিল বিক্রয়কর্মী পানিতে স্বস্তি খুঁজছে।  ছবি: সোহেল সরওয়ার

জিইসি মোড়ের সেন্ট্রাল প্লাজার সামনে গরমে কাহিল বিক্রয়কর্মী পানিতে স্বস্তি খুঁজছে। ছবি: সোহেল সরওয়ার

চট্টগ্রাম: শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সোমবার (২৮ মে) বিকেল তিনটায় ৩৫ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করেছে পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিস। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি। আগের দিন ২৭ মে সর্বোচ্চ রেকর্ড করা হয়েছিল ৩৪ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সহকারী আবহাওয়াবিদ মেঘনাথ তঞ্চ্যঙ্গা বাংলানিউজকে এ তথ্য জানান।

সোমবার একই সময়ে সন্দ্বীপে ৩৫ ডিগ্রি, সীতাকুণ্ডে ৩৫ দশমিক ৬ ডিগ্রি, রাঙামাটিতে ৩৫ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে।

৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় রীতিমতো হাঁসফাঁস অবস্থা দ্বিতীয় বৃহত্তম নগর চট্টগ্রামের। খেটে খাওয়া মানুষ, দিনমজুর, শিক্ষার্থী, চাকরিজীবী, গণপরিবহনের যাত্রী থেকে সর্বস্তরের মানুষকে কাহিল হতে দেখা গেছে। কেউ খুঁজেছেন গাছতলা, বহুতল ভবন, ওভারব্রিজের নিচের ছায়া। কেউ আবার বার বার গোসল করে, হাত-মুখ ধুয়ে, কুলি করে স্বস্তি পেতে চেয়েছেন।   

দুপুরে দেওয়ানহাট মোড়ে বৃদ্ধা আজিজুল শেখকে দেখা গেল দোকান থেকে ফ্রিজের মিনারেল ওয়াটারের বোতল কিনে একের পর এক কুলি করছেন। বাংলানিউজকে তিনি বলেন, ‘বাসের ভেতর ছিলাম। মনে হলো মাথা ঘুরে পড়ে যাব। তড়িঘড়ি করে নেমে হাতমুখ ধুয়ে কুলি করছি। একটু স্বস্তি লাগছে।’

গরমের প্রভাব পড়েছে ইফতার বাজারেও। সরেজমিন দেখা গেছে, ভাজা-পোড়ার চেয়ে মিষ্টি দই, ফিরনি, দই-চিঁড়া, ডিমের পুডিং, ফালুদা, কলা, জুস, লিচু, আম, মোসাম্বি, লেবু ইত্যাদিই বিক্রি হয়েছে বেশি।  

শুধু ইফতার নয়, গরমের প্রভাব পড়েছে ঈদবাজারেও। সোমবার গরমের কারণে দিনের বেলা বেশিরভাগ বিপণিকেন্দ্রই ছিল ফাঁকা। রাতে কিছু কিছু শপিং সেন্টারে ক্রেতাদের আনাগোনা বাড়লেও বেশিরভাগ মানুষের হাতে ছিল পানির বোতল। তুলনামূলক বেশি ক্রেতা ছিল শীততাপ নিয়ন্ত্রিত শোরুম, বিপণিকেন্দ্রে। গরমে কাহিল হয়ে পড়েন রিয়াজউদ্দিন বাজার, টেরিবাজারসহ বিভিন্ন এলাকার ছোট ছোট দোকানের বিক্রয়কর্মীরা।   

মেঘনাথ তঞ্চ্যঙ্গা বাংলানিউজকে বলেন, আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। চট্টগ্রামের দু-এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া ও বিজলি চমকানোসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।   

আবহাওয়া অধিদপ্তরের ঝড় সতর্কীকরণ কেন্দ্র থেকে জানানো হয়েছে, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপের সৃষ্টি হয়েছে। পশ্চিমা লঘুচাপ বিহার এবং তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। যার বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

মৌসুমের উষ্ণতম দিন পার করলো ঢাকা

মৌসুমী বায়ু না আসা পর্যন্ত অস্বস্তিকর গরম!​ 

বাংলাদেশ সময়: ২২১৯ ঘণ্টা, মে ২৮, ২০১৮
এআর/টিসি

 

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2018-05-28 12:26:16