[x]
[x]
ঢাকা, শনিবার, ৪ কার্তিক ১৪২৫, ২০ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

ঈদের পোশাক গ্রাহকের প্রয়োজনে ফেরত নিতে হবে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৫-১৬ ৪:৪৪:৪৯ এএম
রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের মূল্য, যানজট ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে মতবিনিময়

রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের মূল্য, যানজট ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে মতবিনিময়

চট্টগ্রাম: ঈদ মৌসুমে শোরুম ও বিপণিকেন্দ্রে গ্রাহকের কাছে বিক্রীত পণ্য প্রয়োজনে ফেরত নিতে হবে বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কমিশনার মাসুদ-উল-হাসান।

তিনি বলেন, অনেক বড় শোরুমে ফেরতের আলাদা কাউন্টার থাকে। কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে।

বুধবার (১৬ মে) দুপুরে আগ্রাবাদের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের বঙ্গবন্ধু কনফারেন্স হলে রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের মূল্য, যানজট ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার লক্ষ্যে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (সিসিসিআই) আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন মাহবুবুল আলম।

মাসুদ-উল-হাসান বলেন, চট্টগ্রামে উন্নয়নের মধুর বেদনা অনুভব করছি। রাস্তাঘাট এখন সহনীয় পর্যায়ে আছে।

তিনি ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে বলেন, মিমি সুপার মার্কেটে পার্কিং সীমিত। এতে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি হয়। আপনারা নারী সিকিউরিটি রাখতে পারেন। কেনাকাটায় নারীবান্ধব পরিবেশ রাখতে হবে। বখাটের উৎপাত ঠেকাতে ২৪ ঘণ্টা পুলিশ থাকতে হবে। সানমার চাইলে নাসিরাবাদ স্কুল মাঠ পার্কিং হিসেবে নিতে পারে। আমরা সহযোগিতা করব।

রমজানে যানজট নিয়ন্ত্রণে নানা সিদ্ধান্তের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, দূরপাল্লার বাস সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত নগরে ঢুকবে না। সকাল ১১টা থেকে পণ্যবাহী গাড়ি রাত ৮টা পর্যন্ত নগরে চলবে না। মহাসড়কে ঈদের সময় পণ্যবাহী গাড়ি চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকবে। এ সময় বন্দর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে বেসরকারি কনটেইনার ডিপোর গাড়ি যাতে বন্দর-অফডক চলাচল করতে পারে সে উদ্যোগ নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, রমজানে যানজট নিরসনে নগরের সড়কের পাশে গাড়ি পার্কিং করা যাবে না। ফুটপাতে ইফতার বাজার বসানো যাবে না। তবে হান্ডি রেস্টুরেন্টের মতো যেখানে বড় জায়গা থাকবে তারা ইচ্ছে করলে ইফতার বিক্রি করতে পারবে। সড়কে কোনো হকার বসতে পারবে না।

রমজানে প্রধান চ্যালেঞ্জ ছিনতাইকারী ও বখাটের উৎপাত ঠেকানো উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ দুটি বিষয়ে আমরা কঠোর অবস্থান নেব। ব্যবসায়ীদের অগোচরে পণ্যবাহী গাড়িতে যাতে মাদক পাচার না হয় সে ব্যাপারে সচেতন থাকতে হবে। এখন গাড়ির চাকায় ম্যাগনেট লাগিয়ে ইয়াবা আনা হচ্ছে। কাঠ ছিদ্র করে ফাঁকা বাক্স তৈরি করে ইয়াবা আনছে। গোপন সংবাদে আমরা এ কৌশল নস্যাৎ করে দিচ্ছি।

সভায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের এনডিসি সৈয়দ মোরাদ আলী, সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলাম, চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ, পরিচালক এমএ মোতালেব, ছৈয়দ ছগীর আহমদ, অঞ্জন শেখর দাশ, সাবেক পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ, চসিক কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, বিএসটিআই’র উপ-পরিচালক শওকত ওসমান, চট্টগ্রাম জেলা দোকান মালিক সমিতির সভাপতি সালেহ আহমেদ সুলেমান ও মহানগর সভাপতি সালামত আলী, টেরিবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আহমদ হোসেন, কাজীর দেউড়ি কাঁচাবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আবদুর রাজ্জাক, আন্তঃজেলা মালামাল পরিবহন সংস্থা ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী জাফর আহমেদ, প্রাইম মুভার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিক, ফল ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আলমগীর, ক্যাব সাধারণ সম্পাদক ইকবাল বাহার সাবেরী, পাহাড়তলী বণিক কল্যাণ সমিতির সহ-সভাপতি জাফর আলম ও সাধারণ সম্পাদক এসএম নিজাম উদ্দিন এবং চট্টগ্রাম ফ্রেশ ফুড ভেজিটেবলস অ্যাসোসিয়েশনের মাহবুব রানা বক্তব্য দেন।

মহাসড়কে পণ্যবাহী গাড়ির ওজনের বাধা শিথিল হচ্ছে

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৫ ঘণ্টা, মে ১৬, ২০১৮
এআর/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db