[x]
[x]
ঢাকা, সোমবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৫, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

১২ রবিউল আউয়াল আল্লামা তাহের শাহের সদারতে জুলুস

চট্টগ্রাম প্রতিদিন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-১১-১৪ ১০:০৭:২৩ এএম
জশনে জুলুসের ফাইল ছবি

জশনে জুলুসের ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম: আনজুমান-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের উদ্যোগে বিশ্বের বৃহত্তম জশনে জুলুস আল্লামা সৈয়্যদ মুহাম্মদ তাহের শাহের (মজিআ) সদারতে ৯ রবিউল আউয়াল ঢাকায় ও ১২ রবিউল আউয়াল চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে।

এ লক্ষ্যে মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) জশনে জুলুস মিডিয়া উপকমিটির প্রস্তুতি সভা মিডিয়া উপকমিটির আহ্বায়ক মোহাম্মদ আমির হোসেন সোহেলের সভাপতিত্বে  পিএইচপি হাউসে অনুষ্ঠিত হয়।এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ট্রাস্টের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মহসিন।

বিশেষ অতিথি ছিলেন আনজুমান ট্রাস্টের এডিশনাল সেক্রেটারি মোহাম্মদ সামশুদ্দীন, প্রেস অ্যান্ড পাবলিকেশন সেক্রেটারি অধ্যাপক কাজী শামসুর রহমান, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়ার গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মদ দিদারুল ইসলাম চৌধুরী।

সভায় ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত পবিত্র জশনে জুলুসের সংবাদ প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ায় গুরুত্বের সঙ্গে প্রচার করায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়।

জুলুস আরও ব্যাপকভাবে আয়োজনে নানা পরামর্শ দিয়ে প্রস্তুতি কমিটির সদস্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন দিলশাদ আহমেদ, অ্যাডভোকেট মোছাহেব উদ্দিন বখতিয়ার, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, অধ্যক্ষ আবু তালেব বেলাল, ছাবের আহমেদ, সাদেক হোসেন পাপ্পু, আবু নাছের মোহাম্মদ তৈয়ব আলী, মোহাম্মদ এরশাদ খতিবী, আশেকে রসুল খান বাবু, সাইফুল আলম সিদ্দিকী, মোহাম্মদ হোসাইন খোকন সিদ্দিক প্রমূখ।

মোহাম্মদ মহসিন বলেন, মোরশিদে বরহক আল্লামা সৈয়্যদ মুহাম্মদ তৈয়্যব শাহ (রহ.) ১৯৭৪ সালে পবিত্র জশনে জুলুস প্রবর্তন করেন। বর্তমানে জুলুস সর্বত্র ব্যাপকভাবে হচ্ছে। এ জুলুসের মাধ্যমে বিশ্ব মুসলিমের ঐক্য  ও ভ্রাতৃত্বের বন্ধন দৃঢ় হয়। রাসুলের আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে নব উদ্যমে নিয়ামকের ভূমিকা পালন করে জুলুস।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৪, ২০১৭

এআর/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa