ঢাকা, রবিবার, ৮ বৈশাখ ১৪২৬, ২১ এপ্রিল ২০১৯
bangla news

চট্টগ্রামে বিস্তারের নবযাত্রা

424 |
আপডেট: ২০১৪-১২-২৯ ১০:০৬:০০ এএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

শিল্প সংস্কৃতি চর্চার এ যেন একটুকরো ছোট্ট মিলনক্ষেত্র। সংস্কৃতির সব শাখার অপূর্ব যোগসূত্র ঘটাতেই বিস্তার,চট্টগ্রাম আর্টস কমপ্লেক্স। বিশদ বাঙলার যাত্রা শেষ করে বিস্তারের বিস্তৃতি ঘটাতে সোমবার বিকেলে এর আনুষ্ঠানিক উদ্ধোধন ঘোষণা হয়।

চট্টগ্রাম: শিল্প সংস্কৃতি চর্চার এ যেন একটুকরো ছোট্ট মিলনক্ষেত্র। সংস্কৃতির সব শাখার অপূর্ব যোগসূত্র ঘটাতেই বিস্তার,চট্টগ্রাম আর্টস কমপ্লেক্স।

বিশদ বাঙলার যাত্রা শেষ করে বিস্তারের বিস্তৃতি ঘটাতে সোমবার বিকেলে এর আনুষ্ঠানিক উদ্ধোধন ঘোষণা হয়।

শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীনের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিস্তারের পরম্পরাতে(গ্যালারী) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের ১০জন স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীদের শতবর্ষে গুরুপ্রণাম শীর্ষক যৌথ শিল্পকর্ম প্রর্দশন ও বিশিষ্ট শিল্প সমালোচক আবুল মনসুরের জয়নুল বিষয়ক একটি শিল্প বক্তৃতার আয়োজন করা হয়।

মেহেদীবাগস্থ বেলী ভবনে শিল্পচর্চায় কয়েকজন নিবেদিতপ্রাণ মানুষের উদ্যোগে বিশদ বাঙলা নবগঠিত রূপে বিস্তার-চট্টগ্রাম আর্টস কমপ্লেক্সের উদ্বোধন করা হয়।

বিশিষ্ট রবী্ন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী শিলা মোমেনের সফল কর হে আজি এ সভা গানের মাধ্যমে বিস্তারের উদ্বোধন করেন কবি ও সাংবাদিক আবুল মোমেন।বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন সাহিত্যিক ফেরদৌস আরা আলীম।

উদ্বোধনকালে আবুল মোমেন বলেন,দিনে দিনে বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক কার্যক্রম ঢাকামুখী হয়ে যাচ্ছে।কিন্তু আমরা যেখানেই বাস করি বৈশ্বিক মানুষ হতে পারি।

বিশদ বাঙলা থেকে বিস্তারের উত্তণে আশা করি চট্টগ্রামকে নতুন জীবন দেবে,সাংস্কৃতিক সমকালীনতা সৃষ্টি করবে।সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে চট্টগ্রামকে এক নম্বর স্থানে নিয়ে যাবে।

বিস্তার উদ্বোধনের পর কমপ্লেক্সে অবস্থিত পরম্পরা গ্যালারীতে আমাদের দেখাও বিশ্ব শীর্ষক আর্ন্তজাতিক আলোকচিত্র প্রর্দশনী উদ্বোধন করে অতিথিরা্।এছাড়া কমপ্লেক্সে অবস্থিত চাতক ক্যাফে, সদস্য কোণও উদ্বোধন করা হয়।

অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে ছিলেন স্থপতি বিধান বড়ুয়া,চারুকলা ইনস্টিটিউটের পরিচালক নাসিমা মাসুদ, শিল্পী নাজলী লায়লা মনসুর,চবির বাংলা বিভাগের অধ্যাপক লায়লা্ জামান,আলোকচিত্রী শোয়েব ফারুকী প্রমুখ।

আর্টস কমপ্লেক্সটি ঘুরে দেখা যায় পরিপূর্ণ বাঙালী ঢঙে ও শৈলীতে সাজানো। আছে নকশী কাঁথা,একতারা,হাতে তৈরি নানা কারু পণ্য,নানান মাত্রার বইয়ের বিশাল সম্ভার।

কক্ষগুলোর নামকরণে রয়েছে পরিপূর্ণ বাঙালিয়ানা। পরম্পরা গ্যালারী ,চাতক ক্যাফে, প্রক্ষালন, কোমল গান্ধার নামের দুর্লভ চলচ্চিত্রের সিডি সংগ্রহ,হেঁসেল রান্নাঘর।শিল্পীদের সাজঘরের নামকরণ করা হয়েছে পরখ ঘর। শীতল হাওয়ার একটু নিরিবিলি কোণ পেতে আছে দক্ষিনা হাওয়া নামে বারাণ্দা।

বিস্তারের পরিচালক বিশিষ্ট শিল্প সমালোচক আলম খোরশেদ বাংলানিউজকে বলেন,দেশকে ঢাকা থেকে চট্টগ্রা্মমুখী করার জন্য বহুমুখী শিল্পপ্রতিষ্ঠান হিসেবে বিস্তারের এ নতুন যাত্রা।চট্টগ্রামের শিল্প সংস্কুতির অঙ্গনে একটি স্থায়ী গুণগত মান আনার জন্য বিস্তার গঠিত হয়েছে। আমরা সংস্কৃতির সমস্ত শাখার বৈচিত্রময় কার্যক্রম এখানে আয়োজন করতে চাই।

বাংলাদেশ সময়: ২১০৬ ঘন্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14