bangla news

তারকের বিরুদ্ধে আরও এক মামলা, গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

411 |
আপডেট: ২০১৪-১২-২৩ ১:০৯:০০ এএম

বঙ্গবন্ধুকে রাজাকার বলায় চট্টগ্রামে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারপারসন তারেক রহমানের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা দায়ের হয়েছে। বিদ্বেষপূর্ণ বক্তব্যের মাধ্যমে রাষ্ট্রের ভেতরে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি এবং মানহানির অভিযোগে দায়ের হওয়া ওই মামলায় তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

চট্টগ্রাম: বঙ্গবন্ধুকে রাজাকার বলায় চট্টগ্রামে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারপারসন তারেক রহমানের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা দায়ের হয়েছে। বিদ্বেষপূর্ণ বক্তব্যের মাধ্যমে রাষ্ট্রের ভেতরে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি এবং মানহানির অভিযোগে দায়ের হওয়া ওই মামলায় তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ পারভেজের আদালতে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মো.নূরুল আলম মামলাটি দায়ের করেছেন। শুনানি শেষে আদালত তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

মামলায় বাদিপক্ষে শুনানি করেন জেলা পিপি অ্যাডভোকেট আবুল হাশেম। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, বঙ্গবন্ধুকে কটাক্ষ করে তীব্র বিদ্বেষপূর্ণ বক্তব্য দেয়ায় আমরা তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৫০০ ও ৫০৪ ধারায় মামলাটি দায়ের করেছি। আদালত তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন।

বাদিপক্ষের আইনজীবী ও অতিরিক্ত জেলা পিপি অ্যাডভোকেট নিখিল কুমার নাথ বাংলানিউজকে বলেন, তারেক রহমান বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটুক্তি করে ছাত্রলীগ, যুবলীগ, আওয়ামী লীগসহ সাধারণ জনগণের মধ্যে অশান্তি সৃষ্টি করেছেন। তার বক্তব্যে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরির আশংকা দেখা দিয়েছে। মামলার আরজিতে আমরা এসব বিষয় উল্লেখ করে তারেক রহমানকে ইন্টারপোলের মাধ্যমে গ্রেপ্তার করে দেশে এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আবেদন জানানো হয়েছে। 

আদালত ১১ জানুয়ারি এ মামলার পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করেছেন বলে জানান  অতিরিক্ত পিপি নিখিল কুমার নাথ।

এ নিয়ে তারেকের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে মোট চারটি মামলা দায়ের হল। এর আগে তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে দু’টি এবং মানহানির অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়।
 
গত ১৫ ডিসেম্বর লন্ডণে বিজয় দিবসের এক আলোচনা সভায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘রাজাকার, খুনি ও পাকবন্ধু’ বলেন তারেক রহমান।

দীর্ঘ পৌনে দুই ঘণ্টার বক্তৃতায় তারেক রহমান দাবি করেন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে শেখ মুজিবের পরিবারের কোনো অবদান নেই।

তারেক বলেন, ‘লাখো মানুষ যখন রণাঙ্গনে, শেখ মুজিবের পরিবার তখন খুনি ইয়াহিয়া খানের পয়সায় খানসেনাদের পাহারায় নিরাপদে দিন কাটাচ্ছেন। আওয়ামী লীগের নেতারা কলকাতায় আর শখের বন্দী শেখ মুজিবের হাতে এরিনমোর পাইপ।’

আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধকালীন দল হলেও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের দল নয় বলে মন্তব্য করেন বিএনপির এই সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে একাধিকবার ‘রং হেডেড ও দখলদার’ বলে উল্লেখ করেন বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ছেলে তারেক রহমান।

তিনি বলেন, ‘আর দখলদার রং হেডেড শেখ হাসিনা যখনই বিপদে পড়েন, জনগণকে ধোঁকা দিতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দোহাই দেয়।’ আওয়ামী লীগকে দেখামাত্র ‘রাজাকার’ বলার পরামর্শ দেন তিনি।

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায় করা মামলাসহ বিভিন্ন মামলার ফেরারি আসামি তারেক রহমান দীর্ঘ প্রায় ছয় বছর ধরে লন্ডনে বসবাস করছেন। সেখানে বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচীতে অংশ নিলেও তিনি দেশে ফিরছেন না।

এ নিয়ে তার মা বেগম খালেদা জিয়াসহ বিএনপি নেতাদের বক্তব্য, তারেক রহমান অসুস্থ। সুস্থ হলেই তিনি দেশে ফিরবেন।

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ছেলে তারেক এর আগেও বিদেশে বিভিন্ন রাজনৈতিক সভায় আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে বিভিন্ন বিতর্কিত বক্তব্য দেন।

১৭ ডিসেম্বর ঢাকায় বিজয় দিবসের আলোচনা সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তারেক রহমানকে কুপুত্র উল্লেখ করে খালেদা জিয়াকে তার জিহ্বা সামলানোর আহ্বান জানান।

বাংলাদেশ সময়: ১২০৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-12-23 01:09:00