bangla news

ছাত্রলীগের দু’পক্ষের গোলাগুলি, আসামি শিবির নেতা!

856 |
আপডেট: ২০১৪-০৯-২৮ ১১:০২:০০ এএম

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দু’’পক্ষের মধ্যে শনিবার গভীর রাতে গুলি বিনিময়ের ঘটনায় শিবিরের সাবেক সভাপতিসহ ছাত্রলীগের ৩৪নেতাকর্মীকে আসামী করে হাটহাজারী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। রোববার সন্ধ্যায় ছাত্রলীগ কর্মী ফরহাদ হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা নং-২৬।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে  ছাত্রলীগের দু’’পক্ষের মধ্যে শনিবার গভীর রাতে গুলি বিনিময়ের ঘটনায় শিবিরের সাবেক সভাপতিসহ ছাত্রলীগের ৩৪নেতাকর্মীকে আসামী করে হাটহাজারী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। রোববার সন্ধ্যায় ছাত্রলীগ কর্মী ফরহাদ হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা নং-২৬।   

মামলায় ছাত্রশিবিরের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক সভাপতি আশিকুল্লাহ, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য রাকিব হোসেন, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন মামুন, মানবসম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক এস এম আলাউদ্দিনসহ ২২জন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করা হয়।

হাটহাজারী থানা পুলিশের পরিদর্শক(তদন্ত) সালাউদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন,‘‘শনিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ে গোলাগুলির ঘটনায় ফরহাদ হোসেন নামে এক শিক্ষার্থী বাদি হয়ে শিবির নেতা আশিকুল্লাহসহ ২২জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত আরো ১০-১২জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে। তদন্ত করে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’

শিবির নেতাকে আসামী করা প্রসঙ্গে মামলার বাদি ফরহাদ হোসেন বাংলানিউজকে বলেন,‘‘‘গভীর রাতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাসির হায়দার বাবুলের অনুসারীরা শিবিরের সঙ্গে যোগসাজশ করে আমাদের উপর হামলা চালায়। হামলায় শিবিরের সাবেক সভাপতি আশিকুল্লাহ অংশ নিয়েছে। আমরা তাকে দেখেছি। তাই তাকে আসামী করা হয়েছে।’’

ফরহাদ হোসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংষ্কৃতি বিভাগ ২০০৮-০৯ সেশনের শিক্ষার্থী। নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী সমর্থিত ভার্সিটি এক্সপ্রেস (ভিএক্স) নামে ছাত্রলীগের একটি উপ গ্রুপের সদস্য। শনিবার রাতে গুলি বিনিময়ের ঘটনায় তিনিও আহত হয়েছেন বলে বাংলানিউজের কাছে দাবি করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, শনিবার রাত দেড়টার দিকে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী সমর্থিত ছাত্রলীগের দুটি উপ গ্রুপ ভিএক্স ও সিএফসি’র মধ্যে গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ভিএক্সের তিন কর্মী গুলিবিদ্ধ ও আরো কয়েকজন আহত হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক হাবিবুর রহমান রবিন।

শনিবার রাত তিনটার দিকে শুভ বড়ুয়া ও রাসেল নামে ছাত্রলীগের দুই কর্মীকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন পুলিশের চমেক হাসপাতাল ফাঁড়ির নায়েক আবুল বাশার।

প্রসঙ্গত, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের এই দুই পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে কোন্দল চলে আসছিল।  ২১ ও ২৪ সেপ্টেম্বর রাতেও এ দু’পক্ষের মধ্যে গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে।


** ফের চবি ছাত্রলীগের দুই পক্ষে গুলি বিনিময়, গুলিবিদ্ধ ৩


বাংলাদেশ সময়: ২১০২ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-09-28 11:02:00