bangla news

খবরদারি করতেই সংসদে অভিশংসনের ক্ষমতা

457 |
আপডেট: ২০১৪-০৮-২৬ ১০:০৬:০০ এএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টফোর.কম

প্রধানমন্ত্রী আর মন্ত্রী-এমপিরা বিচার বিভাগের উপর খবরদারি করতেই বিচারকদের অভিশংসনের ক্ষমতা সংসদে নিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন সাবেক হুইপ সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম।

চট্টগ্রাম: প্রধানমন্ত্রী আর মন্ত্রী-এমপিরা বিচার বিভাগের উপর খবরদারি করতেই বিচারকদের অভিশংসনের ক্ষমতা সংসদে নিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন সাবেক হুইপ সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম।

তিনি বলেন, বিচারকদের অভিশংসনের ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরে যাবে না, অবৈধ হাসিনার বাকশালীদের অভিশংসনের ক্ষমতা বাংলাদেশের জনতার হাতে ফিরিয়ে আনা হবে।

মঙ্গলবার বিকেলে এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। বিচারকদের অভিশংসনের ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরিয়ে আনার প্রতিবাদে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপি এ সমাবেশের আয়োজন করে।

বিএনপি নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমে স্বৈরাচারী শেখ হাসিনা সরকারের পতন ঘটাবে উল্লেখ করে ওয়াহিদুল আলম বলেন, শেখ হাসিনা ৫ জানুয়ারির নির্বাচনকে নিয়ম রক্ষার নির্বাচন বলেছিলেন।

দেশের জনগণ, জাতিসংঘসহ আর্ন্তজাতিক মহলকে আশ্বাস দিয়েছিল নির্বাচনের পরে বিরোধীদলের সঙ্গে আলোচনা করে আরেকটি নির্বাচনের ব্যবস্থা করবেন। কিন্তু তিনি তার কথা রাখেননি বরং ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

সভাপতির বক্তব্যে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আসলাম চৌধুরী বলেন, ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে অবৈধ বাকশালী সরকার নতুন কৌশলে জাতিকে ধ্বংস করার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। যদি উচ্চ আদালতের বিচারকদের অভিশংসনের ক্ষমতা সংসদের হাতে গিলে বিচারকরা স্বাধীনভাবে রায় দিতে পারবে না। দেশে আইনের শাসন থাকবে না।

উত্তর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব কাজী আবদুল্লাহ আল হাসানের সঞ্চালনায় সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে হাছান চৌধুরী, ফটিকছড়ির উপজেলা শাখার আহবায়ক ছালাউদ্দিন, অধ্যাপক ইউনুচ চৌধুরী, আব্দুল আউয়াল চৌধুরী, অধ্যাপক জসিম উদ্দিন চৌধুরী, হাটহাজারী উপজেলা শাখার আহবায়ক নূর মোহাম্মদ, ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন, রাউজান পৌরসভার আহবায়ক সেকান্দর চৌধুরী, আজম খাঁন, মিরশ্বরাই উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আমিন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৪ঘণ্টা, আগস্ট ২৬, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-08-26 10:06:00