ঢাকা, বুধবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

চট্টগ্রামে আমদানিকারকের জেল, কোটি টাকা অর্থদণ্ড

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৫৫ ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০১৪
চট্টগ্রামে আমদানিকারকের জেল, কোটি টাকা অর্থদণ্ড ছবি: প্রতীকী

চট্টগ্রাম: চেক প্রতারণার অভিযোগে আবাসন প্রতিষ্ঠানের দায়ের করা পাঁচটি মামলায় নগরীর আছাদগঞ্জের এক ভোগ্যপণ্য আমদানিকারককে এক বছর করে মোট পাঁচ বছরের কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই রায়ে আদালত তাকে পাঁচটি চেকের বিপরীতে এক কোটি ৮০ লক্ষ ২৩ হাজার দু’শ টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন।



মঙ্গলবার চট্টগ্রামের দ্বিতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মো.আব্দুর রশিদ এ রায় দিয়েছেন।

দন্ডিত ভোগ্যপণ্য আমদানিকারক মো.কামাল উদ্দিন নগরীর আছাদগঞ্জের আফসানা এন্টারপ্রাইজের মালিক।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, কামাল উদ্দিন ইমপালস প্রপার্টিজ লিমিটেড নামে একটি আবাসন প্রতিষ্ঠান থেকে কিস্তিতে ফ্ল্যাট কিনেছিলেন। কিস্তি পরিশোধের অংশ হিসেবে তিনি পূবালী ব্যাংকের পাঁচটি চেক ইমপালসকে দেন।

পাঁচটি চেকে উল্লিখিত টাকার পরিমাণ হচ্ছে, ৩৩ লক্ষ ৯৭ হাজার ৮’শ টাকা, ৩৮ লক্ষ ৫৫ হাজার ২’শ টাকা, ৩৫ লক্ষ ১৭ হাজার ২’শ টাকা, ৩৮ লক্ষ ৫৫ হাজার ২’শ টাকা এবং ৩৩ লক্ষ ৯৭ হাজার ৮’শ টাকা। চেকে উল্লিখিত মোট টাকার পরিমাণ হচ্ছে এক কোটি ৮০ লক্ষ ২৩ হাজার দু’শ টাকা।

পাঁচটি চেক ব্যাংকে জমা দেয়ার পর অপর্যাপ্ত তহবিলের কারণে সেগুলো প্রত্যাখাত হয়। এরপর লিগ্যাল নোটিশ দিয়েও কোন সাড়া না পেয়ে ২০১৩ সালের ২৯ জুলাই পাঁচটি মামলা দায়ের করেন ইমপালস লিমিটেডের পক্ষে অ্যাডভোকেট এস এম সাইফুর রহমান।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনাকারী অতিরিক্ত মহানগর পিপি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা মাহমুদ বাংলানিউজকে বলেন, পাঁচটি মামলায় অভিযোগ গঠন এবং সাক্ষ্য গ্রহণের পর আদালত রায় দিয়েছেন। রায়ে এক বছর করে ‍পাঁচ বছর কারাদন্ড এবং চেকে উল্লিখিত টাকা অর্থদণ্ড হিসেবে দিয়েছেন।

কামাল উদ্দিন ভিন্ন মামলায় দন্ডিত হয়ে বর্তমানে কারাগারে আছেন। মঙ্গলবার রায় ঘোষণার সময় তাকে আদালতে হাজির করা হয়েছিল।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৫ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa